bangla news

টিটিএডিসিকে টেরিটোরিয়াল কাউন্সিলে উন্নীত করার প্রস্তাব

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৯-১১-২০ ২:৪০:২৩ পিএম
জনজাতি কল্যাণ দপ্তরের মন্ত্রী মেবার কুমার জমাতিয়া। ছবি: বাংলানিউজ

জনজাতি কল্যাণ দপ্তরের মন্ত্রী মেবার কুমার জমাতিয়া। ছবি: বাংলানিউজ

আগরতলা (ত্রিপুরা): ভারত সরকারের কাছ থেকে সংবিধানে জেলা পরিষদের সংশোধনী বিলের বিষয়ে একটি চিঠি পেয়েছে ত্রিপুরা সরকার। এর পরিপ্রেক্ষিতে ত্রিপুরার মন্ত্রিসভা সিদ্ধান্ত নিয়েছে যে- ত্রিপুরা উপজাতি স্বশাসিত জেলা পরিষদে (টিটিএডিসি) কিছু পরিবর্তন আনবে। রাজ্য মন্ত্রিসভাও টিটিএডিসিতে কিছু পরিবর্তন আনার বিষয়ে সিদ্ধান্ত নিয়েছে। এরমধ্যে প্রথম পরিবর্তনটি হলো- ত্রিপুরার স্বশাসিত জেলা পরিষদ টেরিটোরিয়াল কাউন্সিলে উন্নীত করা।

দ্বিতীয়টি হলো- বর্তমানে টিটিএডিসিতে মোট ৩০টি আসন রয়েছে। এরমধ্যে ২৮টি আসনের সদস্যরা নির্বাচিত এবং দু’টি আসনে মনোনীত। তা বাড়িয়ে ৫০ জন সদস্য করার প্রস্তাব রাখা হয়েছে এবং এরমধ্যে ৬ জন থাকবেন মনোনীত সদস্য। রাজ্যপালের অনুমোদনের ভিত্তিতে এই প্রস্তাব গৃহীত হয়েছে।

বুধবার (২০ নভেম্বর) সকালে ত্রিপুরা সরকারের জনজাতি কল্যাণ দপ্তরের মন্ত্রী মেবার কুমার জমাতিয়া এক সংবাদ সম্মেলনে এসব কথা জানান।

সংবাদ সম্মেলনে মেবার কুমার বলেন, বর্তমানে টিটিএডিসিতে এক স্তরবিশিষ্ট ব্যবস্থা রয়েছে। একে বলা হয় ভিলেজ কাউন্সিল। এ ব্যবস্থাকে তিন স্তরবিশিষ্ট ব্যবস্থায় উন্নীত করার প্রস্তাব রাখা হয়েছে। এগুলোই হবে ভিলেজ কাউন্সিল, ব্লক কাউন্সিল এবং টেরিটোরিয়াল কাউন্সিল। পাশাপাশি টেরিটোরিয়াল কাউন্সিলে দপ্তরের সংখ্যা বাড়ানো হবে। বর্তমানে ১৭টি দপ্তর রয়েছে এগুলোকে বাড়িয়ে ৪৫টি দপ্তরে উন্নীত করার প্রস্তাব রাখা হয়েছে। এই প্রস্তাবগুলো ইতোমধ্যেই ভারত সরকারের কাছে পাঠানো হয়েছে।

এ সিদ্ধান্ত ত্রিপুরা রাজ্যের বর্তমান বিজেপি-আইপিএফটি সরকারের একটি ঐতিহাসিক সিদ্ধান্ত বলে অভিমত ব্যক্ত করেন মন্ত্রী।

বাংলাদেশ সময়: ১৪৩৯ ঘণ্টা, নভেম্বর ২০, ২০১৯
এসসিএন/এইচএডি/

ক্লিক করুন, আরো পড়ুন :   আগরতলা
        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
cache_14 2019-11-20 14:40:23