ঢাকা, রবিবার, ২৪ শ্রাবণ ১৪২৭, ০৯ আগস্ট ২০২০, ১৮ জিলহজ ১৪৪১

আগরতলা

নিউ সিটিজেনশিপ অ্যামেন্ডমেন্ট বিলের প্রতিবাদে বিক্ষোভ

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ০৬১০ ঘণ্টা, নভেম্বর ১৯, ২০১৯
নিউ সিটিজেনশিপ অ্যামেন্ডমেন্ট বিলের প্রতিবাদে বিক্ষোভ

আগরতলা (ত্রিপুরা): ভারত সরকারের নিউ সিটিজেনশিপ অ্যামেন্ডমেন্ট বিল- ২০১৬ প্রত্যাহারের দাবিতে সোমবার (১৮ নভেম্বর) উত্তরপূর্ব ভারত জুড়ে বিক্ষোভ কর্মসূচি পালন করছে একাধিক জনজাতি সংগঠন।

এই কর্মসূচির অংশ হিসেবে এদিন ত্রিপুরার পশ্চিম জেলার অন্তর্গত খুমলুং এলাকায় যৌথভাবে প্রতিবাদ প্রদর্শন করে ত্রিপুরা স্টুডেন্ট ফেডারেশন (টিএসএফ) এবং নর্থ-ইস্ট স্টুডেন্ট অর্গানাইজেশনের (এনইএসও) ত্রিপুরা রাজ্য শাখার সদস্যরা।

পাশাপাশি এই বিল প্রত্যাহারের দাবি জানিয়ে দুই সংগঠন যৌথভাবে ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী এবং স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত সাহার কাছে আবেদন করেন।

এ আবেদন পত্র পাঠানো হয় ত্রিপুরা রাজ্যের রাজ্যপাল রমেশ বৈষ্যর মাধ্যমে।

এরপর এদিন স্থানীয় সময় বিকেল ২টা থেকে সাড়ে ৪টা পর্যন্ত আগরতলা থেকে প্রায় ৩১ কিলোমিটার দূরে খুমলুং এলাকায় বিক্ষোভ কর্মসূচি পালন করে তারা।

টিএসএফ এর সম্পাদক সুনীল দেববর্মা জানান, ভারত সরকার ইতোমধ্যে নিউ সিটিজেনশিপ অ্যামেন্ডমেন্ট বিল -২০১৬ সংসদের নিম্নকক্ষ লোকসভায় পাশ করিয়েছে। আগামী অধিবেশনে পার্লামেন্টের উচ্চকক্ষ রাজ্যসভায় পাশ করতে চাইছে। এই বিল পাশ করলে বিদেশি নাগরিক ভারতে এসে নাগরিকত্ব নিতে পারবে। এমনিতেই উত্তরপূর্ব ভারতে প্রচুর সংখ্যক অবৈধ নাগরিক বসবাস করছেন। এই বিলে উল্লেখ করা হয়েছে, একটি বিশেষ ধর্মীয় গোষ্ঠীর মানুষ বিদেশ থেকে ভারতে এসে নাগরিকত্বের আবেদন জানালে তাদের নাগরিকত্ব দেওয়া হবে। যদি এটা করা হয় তবে উত্তরপূর্বের জনজাতি অংশের মানুষের জীবনে বিশেষ প্রভাব পড়বে।

অপর দিকে নর্থ-ইস্ট স্টুডেন্ট অর্গানাইজেশনের (এনইএসও) সহ-সভাপতি উপেন্দ্র দেববর্মা জানান, এদিন ভারত সরকারের নিউ সিটিজেনশিপ অ্যামেন্ডমেন্ট বিল -২০১৬ এর প্রতিবাদ জানিয়ে উত্তরপূর্ব ভারতের ৭টি রাজ্যের মোট ৮সংগঠনের সদস্যরা একযোগে প্রতিবাদ কর্মসূচি পালন করেছে।  

বাংলাদেশ সময়: ০১০৯ ঘণ্টা, নভেম্বর ১৯, ২০১৯
এসসিএন/এইচএডি/

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa