ঢাকা, শুক্রবার, ৮ ভাদ্র ১৪২৬, ২৩ আগস্ট ২০১৯
bangla news

আগরতলায় বন্যার্তদের পাশে ৪৬ আশ্রয়কেন্দ্র

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৯-০৭-১৬ ১০:৫৪:০০ এএম
আশ্রয়কেন্দ্রে গরুকে খাবার দিচ্ছেন একজন নারী। ছবি: বাংলানিউজ

আশ্রয়কেন্দ্রে গরুকে খাবার দিচ্ছেন একজন নারী। ছবি: বাংলানিউজ

আগরতলা (ত্রিপুরা): টানা তিনদিনের ভারী বর্ষণে ত্রিপুরার আগরতলায় বন্যার সৃষ্টি হয়েছে। প্লাবিত হয়েছে রাজ্যের রাধানগর, শ্রীলঙ্কা বস্তি, প্রতাপগড়, সুভাষনগর, টাউন প্রতাপগড়, বনমালীপুর, ছন্দ্রপুর, কাশীপুর, বলদাখাল, খয়েরপুর, বাংলাদেশ সীমান্তবর্তী জয়পুরসহ বেশ কয়েকটি এলাকা। ডুবে গেছে বাড়িঘর ও সড়ক। বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়েছে যোগাযোগ ব্যবস্থা।

 

এদিকে রাজ্যের হাওড়া, গোমতী, দেও, ধলাই, মনু, খোয়াইসহ অন্যান্য নদীর পানি বিপদসীমার ওপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে।

মঙ্গলবার (১৬ জুলাই) রাজ্যের আবহাওয়া অধিদফতরের পূর্বাভাস বলছে, শনিবার (২০ জুলাই) পর্যন্ত রাজ্যে বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে।

বন্যা কবলিত এলাকা থেকে লোকজন সরিয়ে রাজধানীর মহাত্মা গান্ধী স্কুল, রামঠাকুর গার্লস স্কুল, রাধামাধব মন্দিরসহ অপেক্ষাকৃত উঁচু এলাকার স্কুলগুলোতে পাঠানো হয়েছে। তাদের মহকুমা প্রশাসনের পক্ষ থেকে খাবার, বিশুদ্ধ পানি, শিশুদের জন্য দুধ-খাবারসহ প্রয়োজনীয় ওষুধ সরবারহ করা হচ্ছে। পাশাপাশি কেন্দ্রে গবাদি পশু রাখাও ব্যবস্থা করা হয়েছে।

সোমবার (১৫ জুলাই) দুপুরে রাজধানীর মহাত্মা গান্ধী স্কুল, রামঠাকুর স্কুলসহ আশপাশের আশ্রয়কেন্দ্র পরিদর্শন করেছেন সদর মহকুমা শাসক অফিসের তশিলদার আবির দাশ।

তিনি বলেন, আশ্রয়কেন্দ্রে মানুষের কোনো ধরনের সমস্যা যাতে না হয় এজন্য কড়া নজর রাখা হচ্ছে। তাদের ভাত, ডাল, সবজি, ডিমসহ শিশু খাদ্য দেওয়া হয়েছে। স্বাস্থ্য দফতরের কর্মীরা এসে ওষুধ দিচ্ছেন। সরকারের পাশাপাশি বন্যার্তদের পাশে দাঁড়িয়েছে বিভিন্ন স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন এবং শাসকদল বিজেপির কর্মী-সমর্থকরা।

বাংলাদেশ সময়: ১০১৬ ঘণ্টা, জুলাই ১৬, ২০১৯
এসসিএন/এএটি

ক্লিক করুন, আরো পড়ুন :   আগরতলা
        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

আগরতলা বিভাগের সর্বোচ্চ পঠিত

Alexa
cache_14 2019-07-16 10:54:00