ঢাকা, রবিবার, ১০ চৈত্র ১৪২৫, ২৪ মার্চ ২০১৯
bangla news

শৈত্যপ্রবাহে কাঁপছে ত্রিপুরাসহ উত্তর-পূর্ব ভারত

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৮-১২-২৮ ৩:৩১:০২ পিএম
কুয়াশাচ্ছন্ন আগরতলার আশপাশ-ছবি-বাংলানিউজ

কুয়াশাচ্ছন্ন আগরতলার আশপাশ-ছবি-বাংলানিউজ

আগরতলা (ত্রিপুরা): তীব্র শৈত্যপ্রবাহে কাঁপছে ত্রিপুরাসহ গোটা উত্তর-পূর্ব ভারত। আবহাওয়া অধিদফতরের দেওয়া তথ্য অনুসারে, গত ক’দিন ধরে ত্রিপুরা রাজ্যের তাপমাত্রার পারদ সর্বনিম্ন ৭ থেকে ৯ ডিগ্রি সেলসিয়াসে ঘোরাফেরা করছে। 

শুক্রবার (২৮ ডিসেম্বর) সকালে তাপমাত্রা ছিলো ৭ ডিগ্রি সেলসিয়াস। বেলা বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে তাপমাত্রা কিছুটা বেড়েছে। তবে বইছে কনকনে ঠাণ্ডা উত্তরে হাওয়া। দিনের বেশিরভাগ সময় সূর্য ঢেকে আছে ঘন কুয়াশার চাদরে। ফলে দিনেরবেলায়ও হেডলাইট জ্বালিয়ে যানবাহন চলাফেরা করছে।

এই শৈত্যপ্রবাহের প্রভাব পড়েছে জনজীবনে। তীব্র শীতের কারণে সাধারণ মানুষজন ঘর থেকে বের হতে চাচ্ছেন না। তাই রাজধানী আগরতলাসহ অন্য এলাকার বাজারগুলিতে সকাল-বিকেলে মানুষের সংখ্যা খুব কমই লক্ষ করা যাচ্ছে। সন্ধ্যা নামার কিচ্ছুক্ষণের মধ্যে বাজারগুলি মানুষশূন্য হয়ে পড়ছে। 

তীব্র শীতের কারণে সমস্যায় পড়েছেন বস্তি ও খোলা আকাশের নিচে বসবাসকারী মানুষজন। সেইসঙ্গে শীতে কাবু গৃহপালিত প্রাণীরা। শীতের সঙ্গে কুয়াশার কারণে দিনের বেশিরভাগ সময় সূর্যের দেখা মিলছে না। তাই কষ্ট আরও তীব্র আকার নিচ্ছে। এমন অবস্থায় কবে শীতের দাপট কমবে এই অপেক্ষায় দিন কাটাচ্ছেন খোলা আকাশের নিচে বসবাসকারী মানুষ।

তবে শিগগির শীত কমে যাওয়ার আশ্বাস দিতে পারছে না আবহাওয়া অধিদফতর। তাদের দেওয়া পূর্বাভাস বলছে, আগরতলাসহ রাজ্যে আরও ক’দিন চলবে শীতের দাপট। সর্বনিম্ন তাপমাত্রা থাকবে ৭ ডিগ্রি সেলসিয়াসের আশেপাশে। 

এদিকে উত্তর-পূর্ব ভারতের অরুণাচল প্রদেশে তাপমাত্রা ৮ থেকে ২২ ডিগ্রির মধ্যে ঘোরাফেরা করছে। নাগাল্যান্ডের তাপমাত্রা ৩ থেকে ১৬ ডিগ্রিতে ঘোরাফেরা করছে, মণিপুর ৫ থেকে ২১ ডিগ্রি, মিজোরাম রাজ্যে ৪ থেকে ১৮ ডিগ্রি, মেঘালয় রাজ্যে ২ থেকে ১১ ডিগ্রি এবং আসাম রাজ্যে ৯ থেকে ২১ ডিগ্রি সেলসিয়াস। সব মিলিয়ে গোটা উত্তর-পূর্ব ভারত কাঁপছে শীতে। 

বাংলাদেশ সময়: ১৫৩০ ঘণ্টা, ২৮ ডিসেম্বর, ২০১৮
এসসিএন/আরআর

ক্লিক করুন, আরো পড়ুন :   কুয়াশা
        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
cache_14