ঢাকা, রবিবার, ৩১ ভাদ্র ১৪২৬, ১৫ সেপ্টেম্বর ২০১৯
bangla news

ত্রিপুরায় রাষ্ট্রপতি নির্বাচনের ভোটগ্রহন অনুষ্ঠিত

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৭-০৭-১৭ ৫:৫৫:১৩ এএম
রাষ্ট্রপতি নির্বাচনে ভোট দিচ্ছেন ত্রিপুরার সংসদ সদস্যরা

রাষ্ট্রপতি নির্বাচনে ভোট দিচ্ছেন ত্রিপুরার সংসদ সদস্যরা

আগরতলা: রাষ্ট্রপতি নির্বচানে ভারতের অন্য রাজ্যের মতো ত্রিপুরার নির্বাচিত বিধায়ক ও সংসদ সদস্যরা ভোট প্রয়োগ করেছেন।

সোমবার (১৭ জুলাই) বিধায়ক ও সংসদ সদস্যরা তাদের ভোটাধিকার প্রয়োগ করেন।
 
রাজ্যের মোট ৬০ জন বিধায়কের মধ্যে ৫৯ জন তাদের মতাধিকার প্রয়োগ করেন। বিধায়ক তথা ত্রিপুরা বিধানসভার স্পিকার রমেন্দ্র চন্দ্র দেবনাথ শারীরিক অসুস্থতার জন্য কলকাতায় চিকিৎসাধীন সেখানে তিনি ভোট দিয়েছেন।

এদিন স্থানীয় সময় বেলা ১০টা থেকে রাজধানী আগরতলার ক্যাপিটেল কমপ্লেক্সে অবস্থিত বিধানসভা ভবনের লবিতে ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হয়। স্থানীয় সময় দুপুর দেড়টার মধ্যে ৫৯ তাদের ভোটাধিকার প্রয়োগ করেন।

শাসক বামফ্রন্টের ৫১ জন বিধায়ক, কংগ্রেস দলের তিন জন ও তৃণমূল কংগ্রেসের সঙ্গে সম্পর্ক ছিন্ন ছয় বিধায়ক ভোট দেন। তৃণমূল কংগ্রেস দলের সঙ্গে সম্পর্ক হীন ৬ বিধায়ক ও কংগ্রেস দলের এক বিধায়ক রতন লাল নাথ আগেই জানিয়ে ছিলেন যে তারা কংগ্রেস মনোনীত প্রার্থী মীরা কুমারকে ভোট দেবেন না।

তারা এই বিষয়ে তাদের অবস্থান স্পষ্ট করতে কিছুদিন আগে ভোট প্রচারে বিজেপি প্রার্থী রামনাথ কবিন্দ যখন গৌহাটিতে এসেছিলেন তখন তারা তার সঙ্গে স্বাক্ষাৎ করেন। তখন তারা তাকে তাদের ভোট দেওয়ার বিষয়টি নিশ্চিত করেন।

এদিকে বামফ্রন্ট আগেই জানিয়ে দিয়েছে যে, তারা ধর্মনিরপেক্ষতার প্রশ্নে কংগ্রেস প্রার্থী মীরা কুমারকে ভোট দেবেন। অপর দিকে তৃণমূল কংগ্রেস দলও মীরা কুমারকে সমর্থনের ঘোষণা দিয়েছেন। যেহেতু বামফ্রন্ট কংগ্রেস প্রার্থীকে সমর্থন করেছে তাই তৃণমূল বিধায়করা মীরা কুমারকে ভোট না দেওয়ার সিদ্ধান্তের কথা জানিয়েছেন। এই ইস্যুতে তারা দলের সঙ্গে সম্পর্ক ছিন্ন করেন।

তাই ধরে নেয়া যায় রাষ্ট্রপতি নির্বাচনে ত্রিপুরা রাজ্যের মোট ৫৯টি ভোটের মধ্যে ৭টি ভোট পেয়েছেন বি জে পি প্রার্থী ও বাকি ভোটগুলো গিয়েছে কংগ্রেস প্রার্থীর জন্য।

ভোট গণনা হবে ২০ জুলাই ও নবনির্বাচিত রাষ্ট্রপতি শপথ নেবেন ২৫ জুলাই। কারণ ওইদিন বর্তমান রাষ্ট্রপতি প্রণব মুখার্জির মেয়াদ শেষ হচ্ছে।

বাংলাদেশ সময়: ১৬০৭ ঘণ্টা, জুলাই ১৭, ২০১৭
এসসিএন/বিএস

 

        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
cache_14 2017-07-17 05:55:13