ঢাকা, রবিবার, ২৮ আষাঢ় ১৪২৭, ১২ জুলাই ২০২০, ২০ জিলকদ ১৪৪১

আগরতলা

ত্রিপুরার উদয়পুরে তিন দিনব্যাপী রাজর্ষী উৎসব 

| বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৭-৩০-০৪ ০৭:৫৬:৪৩ এএম
ত্রিপুরার উদয়পুরে তিন দিনব্যাপী রাজর্ষী উৎসব  রাজা গোবিন্দ মাণিক্যের প্রাসাদ-ছবি-বাংলানিউজ

আগরতলা: রাজন্য শাসিত ত্রিপুরার প্রজাবৎসল রাজা ছিলেন গোবিন্দ মাণিক্য। তার রাজধানী ছিল সাবেক রাঙ্গামাটি যা বর্তমানে উদয়পুর নামে পরিচিত। বর্তমান মূল শহর থেকে খানিকটা দূরে নির্মল পরিবেশে গোমতী নদীর তীরে এখনও রয়েছে রাজপ্রাসাদ ও তার তৈরি ভ‍ুবনেশ্বরী মন্দির। 

গোবিন্দ মাণিক্যের খ্যাতি ত্রিপুরার গন্ডি ছাড়িয়ে গোটা বাংলায় রয়েছে। বিশ্বকবি রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর একাধিকবার ছুটে গিয়েছেন উদয়পুরে, তাকে নিয়ে লিখেছেন বিসর্জন নাটক ও রাজর্ষী উপন্যাস।

রাজপ্রাসাদটি এখন রাজ্যের অন্যতম পর্যটন কেন্দ্র।

রাজা গোবিন্দ মাণিক্য ও কবিগুরুর স্মৃতি ধরে রাখতে প্রতিবছর রাজপ্রাসাদ প্রাঙ্গণে উৎসবের আয়োজন করা হয়। এ বছরও তিন দিনব্যাপী ১৫তম রাজর্ষী উৎসবের আয়োজন করা হয়েছে। ৯ মে শুরু হয়ে এ উৎসব শেষ হবে ১১ মে।

ত্রিপুরা সরকারের পর্যটন দফতরের মন্ত্রী রতন ভৌমিক বাংলানিউজকে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

ভ‍ুবনেশ্বরী মন্দিরত্রিপুরা সরকারের তথ্য ও সংস্কৃতি দফতর, ত্রিপুরা পর্যটন উন্নয়ন নিগম, গোমতী জিলা পরিষদ ও রাজর্ষী উৎসব কমিটির যৌথ উদ্যোগে এ উৎসব অনুষ্ঠিত হবে। উৎসবে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের পাশাপাশি ‘ত্রিপুরা ও রবীন্দ্রনাথ’ শীর্ষক আলোচনা সভা, অঙ্কন প্রতিযোগিতা, বৃক্ষরোপণসহ নানা আয়োজন থাকছে।  

ত্রিপুরা সরকারের বিভিন্ন দফতরের কার্যক্রমের প্রদর্শনীর মাধ্যমে তুলে ধরা হবে বলে জানান মন্ত্রী।  

গোবিন্দ মাণিক্যের রাজপ্রাসাদ ও ভ‍ুবনেশ্বরী মন্দিরের মধ্যে রাজ্য সরকার তৈরি করছে রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের মূর্তি। সেইসঙ্গে সংস্কৃতি চর্চার জন্য প্রাসাদ প্রাঙ্গণে তৈরি করা হয়েছে মুক্তমঞ্চ। গোমতী নদী ও তার আশপাশের সৌন্দর্য যাতে দেশ-বিদেশের পর্যটকরা উপভোগ করতে পারেন তার জন্য এখানে নির্মাণ করা হয়েছে ওয়াচ টাওয়ার।

বাংলাদেশ সময়: ১৩৫৭ ঘণ্টা, এপ্রিল ৩০, ২০১৭ 
এসসিএন/আরআর/এমজেএফ

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa