ঢাকা, বুধবার, ১৫ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১, ২৯ মে ২০২৪, ২০ জিলকদ ১৪৪৫

ট্রাভেলার্স নোটবুক

সকালের ঝিরিঝিরি বৃষ্টিতে কাঠমান্ডু দর্শন

মানসুরা চামেলী, স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ০৭৫০ ঘণ্টা, মার্চ ১০, ২০১৭
সকালের ঝিরিঝিরি বৃষ্টিতে কাঠমান্ডু দর্শন সকালের কাঠমান্ডু

নেপালের কাঠমান্ডু থেকে: প্রথমবারের মতো দেশের বাইরে, তার ওপর আবার হিমালয়ের দেশ নেপাল! উত্তেজনায় হোটেলের নরম আয়েশি বিছানাতেও ঘুমহীন ছটফটানি। ভোর ছ’টায় বিছানা ছেড়ে জানালা দিয়ে বাইরে তাকাতেই ঝিরিঝিরি বৃষ্টি।

হোটেল ছেড়ে রাস্তায় যেতেই জেঁকে ধরলো শীত। সকালের ঝিরিঝিরি বৃষ্টিতে স্নান করছে রাজধানী কাঠমান্ডু।

আড়মোড়া ভেঙে সবেমাত্র শহর জাগতে শুরু করেছে। ছাতা হাতে, রেইনকোট পরে কর্মস্থলে ছুটছেন নেপালিরা। শীতের তীব্রতায় নিজেদের আগাগোড়া ঢেকেছেন গরম কাপড়ে। আবহাওয়া জানান দিচ্ছে সারাদিন কাঠমান্ডুতে সূর্যের দেখা নাও মিলতে পারে।

হোটেলের সিকিউরিটি গার্ড বিক্রম জানালেন, গতকাল থেকেই কাঠমান্ডুতে ঝিরিঝিরি বৃষ্টি। শীতও কয়েকদিনের তুলনায় বেড়েছে। আজকের তাপমাত্রা ১০/১১ ডিগ্রি সেলসিয়াসে ওঠানামা করছে।

কাঠমান্ডু পাহাড় বেষ্টিত উপত্যকা শহর, তাই শীতের তীব্রতাও বেশি। শহরজুড়ে দালান-কোঠা, রেস্তোরাঁ ও দোকানপাটের নির্মাণ শৈলীতে মধ্যযুগের স্থাপত্যকলার ছোঁয়া। ঝিরিঝিরি বৃষ্টি মাথায় নিয়েই শো-পিস, অলঙ্কার ও শীতের কাপড়ের দোকানগুলো খুলছেন দোকানিরা। বেলা তখন সময় সকাল সাড়ে ৭টা। বাংলাদেশে এই সময়ে দোকান খোলা পাওয়া ভাগ্যের ব্যাপার। নেপালে আসা পযর্টকের সুবিধার জন্য ব্যবসায়ীরা সকাল সকাল দোকান খুলে বসে পড়ছেন।
মেঘের আড়াল থেকে জেগে উঠছে পাহাড়কাঠমান্ডু শহরে সকালের রাস্তায় মোটরবাইক আর স্কুটারের আধিপত্য দেখা গেল। নারী-পুরুষ সমান তালে বাইক-স্কুটার চালিয়ে কর্মস্থলের উদ্দেশে যাচ্ছেন। পাহাড়ি এলাকা হওয়ায় মোটরসাইকেলের ব্যবহার একটু বেশিই।

গন্তব্য পোখড়া। সাড়ে আটটায় কাঠমান্ডু ছেড়ে যেতে গাড়িতে উঠলাম। কাঠমান্ডুর ভাঙাচোরা সড়ক পার হয়ে লোকালয় ছাড়তেই উ‍ঁচু-নিচু, আঁকাবাঁকা পাহাড় বেষ্টিত পথ। তখনও কুয়াশার চাদরে মোড়ানো পাহাড়গুলো।

আঁকাবাঁকা পথের ধারে সবুজ গাছপালায় ঘেরা পাহাড়গুলো যাত্রা পথে চোখ-মনে প্রাশান্তির আবেশ আনে। মেঘলা আকাশের বুক চিরে পাহাড়ের কোলঘেঁষে কখনও গোমড়ামুখো সূর্যের উঁকি কখনও হাস্যোজ্জ্বল সূর্যের লুকোচুরি।
 
বাংলাদেশ সময়: ১৩৩২ ঘণ্টা, মার্চ ১০, ২০১৭
এমসি/এমজেএফ

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।