ঢাকা, শনিবার, ১৬ আশ্বিন ১৪২৯, ০১ অক্টোবর ২০২২, ০৪ রবিউল আউয়াল ১৪৪৪

জাতীয়

এবার ঘুমিয়ে ঘুমিয়ে যাওয়া যাবে বান্দরবান!

কৌশিক দাশ, ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২১৩০ ঘণ্টা, সেপ্টেম্বর ২৩, ২০২২
এবার ঘুমিয়ে ঘুমিয়ে যাওয়া যাবে বান্দরবান!

বান্দরবান: পর্যটন জেলা বান্দরবানে প্রতিদিনই ভ্রমণ করতে যায় অসংখ্য পর্যটক। আর এই পর্যটকদের সেবা দিতে নিয়মিত কাজ করে যাচ্ছে জেলা প্রশাসন, পর্যটন ব্যবসায়ী, হোটেল-মোটেল মালিক সমিতিসহ সংশ্লিষ্টরা।

এবার পর্যটন জেলা বান্দরবানে যাত্রাপথে নতুনমাত্রা যোগ হয়েছে। ঢাকা থেকে সড়কপথে ঘুমিয়ে ঘুমিয়ে আধুনিক বাসে বান্দরবান ভ্রমণের জন্য বিলাসবহুল স্লিপিং কোচ চালু করেছে সেন্টমার্টিন পরিবহন লিমিটেড। গত ১৫ সেপ্টেম্বর থেকে ঢাকা-বান্দরবান সড়কে আধুনিক সুযোগ সুবিধা সম্বলিত বিলাসবহুল দুটি স্লিপিং বাস যাত্রা শুরু করে। আর যাত্রা শুরুর পরপরই এই বাসে ভ্রমণের জন্য প্রতিদিনই ভিড় করছে অসংখ্য পর্যটক।

সেন্টমার্টিন পরিবহন লিমিটেডের বান্দরবান কাউন্টারের ম্যানেজার মো. খলিলুর রহমান বাংলানিউজকে জানান, ইতোপূর্বে প্রতিদিন এসি ও নন এসি মিলে ৮টি বাস ঢাকা-বান্দরবানে সড়কে চলাচল করতো। তবে ১৬ সেপ্টেম্বর রাত থেকে বান্দরবানে যাত্রা শুরু করেছে আমাদের সেন্টমার্টিন স্লিপিং কোচ। আর বাসটি চলাচল শুরুর পর থেকে আমরা প্রচুর সাড়া পাচ্ছি এবং আরামদায়ক এই বাসে চড়ে পর্যটন জেলায় ঘুমিয়ে ঘুমিয়ে যাওয়া-আসার মজা উপভোগ করছেন অসংখ্য পর্যটক।  

তিনি বাংলানিউজকে আরও জানান, এই বাসে সিঙ্গেল ও ডাবল মিলে সর্বমোট ৩০টি বেড রয়েছে এবং প্রতিটি বেডের ভাড়া ১৮০০ টাকা। ঢাকার আরামবাগ থেকে প্রতিদিন রাত সাড়ে ১১টা ও বান্দরবান বাসস্ট্যান্ড থেকে রাত সোয়া ৯টায় উভয়দিক থেকে একটি করে সেন্টমার্টিন স্লিপিং কোচ চলাচল করে এবং মধ্য পথে কুমিল্লায় যাত্রীদের সুবিধার জন্য আধাঘণ্টা যাত্রাবিরতি করে।

সেন্টমার্টিন পরিবহন লিমিটেডের বান্দরবান প্রতিনিধি মফিজুল হক চৌধুরী বাংলানিউজকে বলেন, অশোক লিলেন্ডের এয়ার সাসপেনশান এবং ২২৫ অশ্বশক্তির ক্লাস মোটর কৃর্তক তৈরিকৃত এই স্লিপিং কোচে জার্নি খুবই মজা আর আরামদায়ক।  

তিনি বাংলানিউজকে আরও বলেন, বাংলাদেশের কয়েকটি স্লিপিং সার্ভিসের মধ্যে সেন্টমার্টিন পরিবহন লিমিটেডের নাম অন্যতম। আর এই কোম্পানির ২টি স্লিপিং বাস প্রতিদিন বান্দরবান আসা যাওয়া করছে।  

তিনি বাংলানিউজকে আরও বলেন, বাসে সিঙ্গেল ও ডাবল বেডে ভ্রমণের সুবিধা রয়েছে। সেই সঙ্গে লিডিং লাইন, কমপেটেবল এসি, রুমের নিজস্বতা রক্ষায় আধুনিক পর্দা, জুতা রাখার জন্য নিজ নিজ সিটের পাশে র‌্যাক, মোবাইল চার্জিং সুবিধাসহ নানা ধরনের সুযোগ সুবিধা রাখা হয়েছে। এছাড়া শিগগিরই সেন্টমার্টিন পরিবহন লিমিটেডের ব্যবস্থাপনায় আরও নতুন নতুন আধুনিক বাস আমরা বান্দরবান সড়কে চালু করতে পারবো বলে আশা করছি। এই বাসগুলোতে ভ্রমণ করে যে কেউ সড়কপথে আরামদায়ক ভ্রমণ নিশ্চিত করতে পারবেন বলে আমাদের প্রত্যাশা।

সেন্টমার্টিন পরিবহন লিমিটেডের স্লিপিং বাসে ভ্রমণ করা যাত্রী সাদেক হোসেন চৌধুরী বাংলানিউজকে বলেন, প্রথমবার সেন্টমার্টিন পরিবহন তাদের স্লিপিং (দ্বিতল) বাসে যাত্রী নিয়ে ঢাকা থেকে বান্দরবানে প্রবেশ করলো যার প্রথম যাত্রী হওয়ার সুযোগ হয়েছে আমার, এই বাসে ভ্রমণ করার মজাই আলাদা।

বান্দরবান থেকে ঢাকার পথের স্লিপিং বাসের যাত্রী মো. মানিক মিয়া বাংলানিউজকে বলেন, আমি দেশে ও দেশের বাইরে প্রচুর বাসে ভ্রমণ করেছি এবং ভালো কোম্পনির বাসে ভ্রমণের বেশ কয়েকটি অভিজ্ঞতা রয়েছে। তবে এই স্লিপিং কোচে পাহাড়ি পথে ভ্রমণের মজাই অন্যরকম। পাহাড়ি আকাঁবাকা আর উঁচু নিচু দীর্ঘপথ ধরে যখন এই বাস চলে তখন খুবই অন্যরকম এক অনুভূতি কাজ করে।

ঢাকার বনানীর বাসিন্দা স্লিপিং বাসের যাত্রী ইব্রাহিম বাংলানিউজকে বলেন, পর্যটন জেলা বান্দরবান খুবই সুন্দর। এখানে রয়েছে পাহাড়, নদী আর ঝর্নার অপরূপ রূপ, আর এই বান্দরবান ভ্রমণে নতুন মাত্রা হিসেবে ঢাকা-বান্দরবান সড়কে স্লিপিং বাস চালু হওয়ায় আমরা পরিবার নিয়ে ভ্রমণ করেছি এবং বেশ ভালো লেগেছে।

এদিকে বান্দরবান পার্বত্য জেলা পরিষদের সদস্য ও মাইক্রোবাস, জিপ, কার মালিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক মো. মোজাম্মেল হক বাহাদুর বাংলানিউজকে বলেন, বান্দরবানে বেশ কয়েকটি বাস কোম্পানি তাদের বাস পরিচালনা করছে আর তাদের মধ্যে সেন্টমার্টিন সার্ভিস অন্যতম। বান্দরবানে প্রতিদিনই প্রচুর দেশি-বিদেশি পর্যটকের আগমন ঘটে এবং তারা এসি ভালো বাস সার্র্ভিসের আশা করে আর সেন্টমার্টিন পরিবহন লিমিটেড বান্দরবান-ঢাকা সড়কে বিলাসবহুল স্লিপিং কোচ চালু করায় আমরা আনন্দিত এবং প্রত্যাশা করছি এই সার্ভিসের মাধ্যমে বান্দরবানে আরও পর্যটকের আগমন ঘটবে এবং যাত্রীরা উন্নত সেবা পাবে।

বাংলাদেশ সময়: ২১৩০ ঘণ্টা, সেপ্টেম্বর ২৩, ২০২২
আরএ

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa