ঢাকা, শনিবার, ৪ আশ্বিন ১৪২৭, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২০, ০০ সফর ১৪৪২

পর্যটন

ঈদুল আজহায়ও পর্যটক শূন্য ছিল রাঙামাটি

মঈন উদ্দীন বাপ্পী, ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট  | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১২১১ ঘণ্টা, আগস্ট ৩, ২০২০
ঈদুল আজহায়ও পর্যটক শূন্য ছিল রাঙামাটি ঝুলন্ত সেতু। ছবি: বাংলানিউজ

রাঙামাটি: মহামারি করোনার সংক্রমণ রুখতে ঈদুল ফিতরে রাঙামাটি জেলা প্রশাসন জেলার সব পর্যটন স্পগুলো বন্ধ রেখেছিল। অনেকে আশা করেছিলেন ঈদুল আজহায় জেলার পর্যটন স্পগুলো খোলা হবে।

কিন্ত করোনার সংক্রমণ দেশ থেকে কমে না যাওয়ায় পর্যটন স্পগুলো এখনো বন্ধ রাখা হয়েছে।

প্রতি বছর ঈদ ও পূজায় রাঙামাটির ঝুলন্ত সেতু, পুলিশ পলওয়েল পার্ক, সুবলং ঝর্ণাসহ অসংখ্য পর্যটন স্পটগুলোতে পর্যটকদের ভিড় লেগেই থাকে। করোনার কারণে বন্ধ থাকায় এইবার পর্যটক শূন্য ছিল রাঙামাটি।

সরেজমিনে ঘুরে দেখা গেছে,  রাঙামাটির সিম্বল খ্যাত পর্যটন কমপ্লেক্স এর ঝুলন্ত সেতুটি দেখার জন্য প্রতি বছর হাজার-হাজার পর্যটকের সমাগম ঘটলেও এইবার সেতুটি ফাঁকা ছিল। কোনো পর্যটকের পদচারণা ছিল না সেতুটিতে। সেতুর মূল ফটকে তালা ঝুলছে। বন্ধ আছে হোটেল-মোটেল। পর্যটক না থাকায় পার্শ্ববর্তী টেক্সটাইল মার্কেটও বন্ধ রাখা হয়েছে।

রাঙামাটি পর্যটন করপোরেশনের ম্যানেজার সৃজন বিকাশ বড়ুয়া বাংলানিউজকে বলেন, পাহাড়ি জেলা রাঙামাটিতে সারা বছর পর্যটক থাকে। কিন্তু পহেলা বৈশাখ, ঈদুল ফিতর, ঈদুল আজহাসহ নানা দিবসে পর্যটকদের উপচেপড়া ভিড় লেগে থাকে। কিন্তু করোনার কারণে আমরা প্রায় পাঁচ মাসের মতো ব্যবসা করতে পারিনি।

তিনি আরও বলেন, যদি পরিস্থিতি স্বাভাবিক হয় এবং প্রশাসনের পক্ষ থেকে স্পটগুলো খোলার অনুমতি দেয় তাহলে খুলে দেওয়া হবে।

রাঙামাটি বোট মালিক সমিতির সভাপতি রমজান আলী বাংলানিউজকে বলেন, করোনার কারণে চলতি বছরের ফেব্রুয়ারি মাস থেকে রাঙামাটিতে পর্যটক আসা বন্ধ রয়েছে। এইবার ঈদুল আজহায়ও পর্যটক আসেনি। যে কারণে আমাদের দিন ভাল যাচ্ছে না। বেকার সময় পার করছি। প্রশাসনের অনুমতি পেলে পর্যটন স্পটগুলো খুলে দেওয়া হবে। আর পর্যটক আসা শুরু হলে আমাদের ব্যবসা আবারো আগের মতো চাঙা হবে বলে আশা রাখি।

রাঙামাটি হোটেল মালিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক মঈন উদ্দীন সেলিম বাংলানিউজকে বলেন, প্রতি বছর রাঙামাটিতে পর্যটকের সমাগম থাকলেও এ বছর আমরা ব্যতিক্রম কাটালাম। এখন একটাই প্রত্যাশা- করোনা বিদায় হোক। দেশের অর্থনীতির চাকা ঘুরুক। আমাদের ব্যবসা আগের মতো চাঙা হোক।

রাঙামাটি জেলা প্রশাসক (ডিসি) একে এম মামুনুর রশীদ বাংলানিউজকে বলেন, করোনার সংক্রমণ রুখতে এতদিন রাঙামাটিতে পর্যটন স্পটগুলো বন্ধ রাখা হয়েছিল। আশাকরি খুব শিগগিরই রাঙামাটির পর্যটন স্পটগুলো খোলার অনুমতি দেওয়া হবে।

জেলা প্রশাসক আরও বলেন, করোনার কারণে পুরো জেলা শহরে যান চলাচল বন্ধ ছিল। এখন শুধু হোটেল-মোটেল এবং পর্যটন স্পটগুলো বন্ধ আছে।

করোনার সংক্রমণ এড়াতে গত ১৮ মার্চ থেকে রাঙামাটিতে সব পর্যটক ভ্রমণে নিষেধাজ্ঞা এবং পর্যটন স্পটগুলো বন্ধ রাখার ঘোষণা দেয় জেলা প্রশাসন।

বাংলাদেশ সময়: ১২০৬ ঘণ্টা, আগস্ট ০৩, ২০২০
আরএ

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa