ঢাকা, মঙ্গলবার, ২২ অগ্রহায়ণ ১৪২৯, ০৬ ডিসেম্বর ২০২২, ১১ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪৪

পর্যটন

পর্যটনের কাঙ্ক্ষিত বিকাশে অংশীজনদের সম্পৃক্ত করা হবে

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট  | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২১১১ ঘণ্টা, জুলাই ১৯, ২০২০
পর্যটনের কাঙ্ক্ষিত বিকাশে অংশীজনদের সম্পৃক্ত করা হবে

ঢাকা: পর্যটনের কাঙ্ক্ষিত বিকাশ করতে হলে অংশীজনদের নিবিড়ভাবে সম্পৃক্ত করতে হবে বলে মন্তব্য করেছেন বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন প্রতিমন্ত্রী মো. মাহবুব আলী।  

রোববার (১৯ জুলাই) বাংলাদেশ ট্যুরিজম বোর্ডের উদ্যোগে জয়পুরহাট জেলায় অনলাইন কর্মশালায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে একথা বলেন তিনি।

 

প্রতিমন্ত্রী বলেন, নানাবিধ উন্নয়ন কর্মকাণ্ডে পর্যটনের কথা বিবেচনায় রাখলে দেশে নতুন নতুন পর্যটন আকর্ষণ ও গন্তব্য তৈরি করা সম্ভব হবে। ফলে বিকশিত হবে পর্যটন খাত। পর্যটন একটি জনমুখী শিল্প। দেশের প্রান্তিক জনগণকে পর্যটন সম্পর্কে সচেতন করে তুলতে পর্যটনের স্থানীয় সব অংশীজনের গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালনের সুযোগ রয়েছে।  

‘আমাদের দেশের নানা প্রান্তে পর্যটন আকর্ষণ ছড়িয়ে-ছিটিয়ে রয়েছে। পর্যটন মহাপরিকল্পনা প্রণয়ন এবং বাংলাদেশ ট্যুরিজম বোর্ড আয়োজিত  ধারাবাহিকভাবে দেশের ৬৪ জেলার জনপ্রতিনিধি, সরকারি কর্মচারী, গণমাধ্যমকর্মী ও পর্যটন অংশীজনের সঙ্গে আলাপ-আলোচনার মাধ্যমে আমাদের পর্যটন আকর্ষণগুলোর সম্ভাবনা যাচাই করা হচ্ছে। ’

মাহবুব আলী আরো বলেন, পর্যটন আকর্ষণগুলোকে জনপ্রিয় পর্যটন গন্তব্যে পরিণত করার জন্য দেশের আনাচে-কানাচে ছড়িয়ে-ছিটিয়ে থাকা পর্যটন আকর্ষণগুলো চিহ্নিত করে ব্র্যান্ডিংয়ের মাধ্যমে সারা বিশ্বের কাছে তুলে ধরার কার্যক্রম নেওয়া হবে।

বাংলাদেশ ট্যুরিজম বোর্ডের পরিচালক আবু তাহের মোহাম্মদ জাবেরের সঞ্চালনায় ও জয়পুরহাট জেলার জেলা প্রশাসক মো. শরীফুল ইসলামের সভাপতিত্বে কর্মশালায় আরও বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ ট্যুরিজম বোর্ডের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা জাবেদ আহমেদ, জয়পুরহাট জেলার বিভিন্ন পর্যায়ের জনপ্রতিনিধি, গণমাধ্যমকর্মী, বিভিন্ন পর্যায়ের সরকারি কর্মকর্তা ও পর্যটনের সঙ্গে সম্পৃক্ত বিভিন্ন সেক্টরের অংশীজন।

বাংলাদেশ সময়: ২১০৮ ঘণ্টা, জুলাই ১৯, ২০২০
টিএম/এএ

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa