bangla news

দর্শনার্থীদের ভিড় কমেনি ভোলার তুলাতলী বিনোদনকেন্দ্রে

ছোটন সাহা, ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৯-০৬-১৩ ৫:৩০:১৩ এএম
দর্শনার্থীদের ভিড় ভোলার তুলাতলী বিনোদনকেন্দ্রে। ছবি: বাংলানিউজ

দর্শনার্থীদের ভিড় ভোলার তুলাতলী বিনোদনকেন্দ্রে। ছবি: বাংলানিউজ

ভোলা: ঈদের ছুটি শেষ হলেও যেন দর্শনার্থীদের ভিড় কমেনি ভোলার বিনোদনকেন্দ্র তুলাতলীতে। বিনোদন প্রেমীরা পরিবার-পরিজন নিয়ে ছুটে আসছেন মেঘনার তুলাতলী বাধেঁর শাহবাজপুর পর্যটন কেন্দ্রে।

নির্মল বাতাস আর প্রকৃতির অপরূপ সৌন্দর্য দেখতে ভ্রমণ পিপাসুদের আগ্রহের যেন শেষ নেই। শিশু কিশোরাও মেতে উঠছেন তুলাতলীর বিভিন্ন রাইডসে। তরুণ-তরুণীসহ বিভিন্ন শ্রেণিপেশার মানুষের পদচারণায় এখনো মুখরিত মেঘনা পাড়ের এ তুলাতলী।

ভোলা শহর থেকে তিন কিলোমিটার দূরে মেঘনার কোল ঘেঁষা এ তুলাতলী বাঁধ গড়ে উঠেছে অন্যতম এক দর্শনীয় স্থানে। ঈদের ছুটিতে জমজমাট হয়ে উঠেছে এ তুলাতলী বিনোদন কেন্দ্র। ছুটি শেষ হলেও ভাটা পড়েনি দর্শনার্থীদের। তুলাতলীতে এখনো পরিবার পরিজন নিয়ে ঘুরতে আসছেন মানুষ। গত দুইদিন ধরে সকাল থেকে সন্ধ্যা পর্যন্ত তুলাতলী বাঁধে মানুষের উচছে পড়া ভিড় লক্ষ্য করা গেছে। বাঁধের উভয় পাড়ে ঘুরে বেড়াচ্ছেন তারা। কেউ বা খোলা মাঠে জমিয়ে আড্ডা দিচ্ছেন আবার কেউ হেঁটে বেড়াচ্ছেন। সিসি ব্লকে সেলফি তোলাসহ মেঘনার উত্তাল ঢেউ উপভোগ করছেন কেউ কেউ। প্রিয়জন ও পরিবারের সদস্যদের নিয়ে বেঞ্চ, ছাউনী ও কুঁড়ে ঘরে সময় কাটাচ্ছেন অনেকে।

তুলাতলী বাঁধে ঘুরতে আসা দর্শনার্থী শাওন ও রিয়া বলেন, তুলাতলী বাঁধের মনোমুগ্ধকর পরিবেশ সত্যিই অনেক ভালো লাগছে, প্রকৃতির অপার সৌন্দর্য দেখতে তাই ছুটে এসেছি। এখানে এলে মন জুড়িয়ে যায়।

ঈদ উপলক্ষে ঘুরতে আসা দর্শনার্থীদের জন্য বাহারি রং ও বাহারি স্থাপনায় সাজানো হয়েছে তুলাতলী বাঁধ এলাকা। এখানে বসেই সূর্যাস্ত দেখা যায়। পাশাপাশি নানা প্রজাতির বাহারি বৃক্ষরাজী আর কাশবন দেখে মুগ্ধ হন দর্শনার্থীরা।

 এছাড়াও ঘোড়া, বিদেশি টার্কি পাখি, হাঁসসহ বিভিন্ন ধরনের প্রাণী দেখার ব্যবস্থা রয়েছে তুলাতলীতে। শিশুদের জন্য রয়েছে নাগর দোলা। সব মিলিয়ে নান্দনিক সৌন্দর্যের এক বাহারি দর্শনীয় স্থান তুলাতলীর শাহবাজপুর পর্যটন কেন্দ্র।

ছুটির দিন ছাড়াও প্রতিদিন বিকেলে দর্শনার্থীরা ছুটে আসেন তুলাতলীতে। এছাড়াও ঈদসহ বিভিন্ন উৎসবে ভিড় জমান পর্যটকরা।

বাংলাদেশ সময়: ০৫২৯ ঘণ্টা, জুন ১৩, ২০১৯
আরআইএস/

        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

পর্যটন বিভাগের সর্বোচ্চ পঠিত

Alexa
cache_14 2019-06-13 05:30:13