ঢাকা, শুক্রবার, ৮ ভাদ্র ১৪২৬, ২৩ আগস্ট ২০১৯
bangla news

তিন দিনব্যাপী পর্যটন মেলা শুরু বৃহস্পতিবার

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৯-০৪-১৫ ১:৫৫:৪১ পিএম
সংবাদ সম্মেলনের মাধ্যমে আনুষ্ঠানিকভাবে মেলার আয়োজন সম্পর্কে জানানো হয়

সংবাদ সম্মেলনের মাধ্যমে আনুষ্ঠানিকভাবে মেলার আয়োজন সম্পর্কে জানানো হয়

ঢাকা: ট্যুর অপারেটরস অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ (টোয়াব) এর উদ্যোগে আয়োজিত হতে যাচ্ছে নবম বিমান বাংলাদেশ ট্রাভেল অ্যান্ড ট্যুরিজম ফেয়ার (বিটিটিএফ)। পর্যটন সম্পর্কে সচেতনতা সৃষ্টি এবং এ খাতের টেকসই উন্নয়নের লক্ষ্যে আয়োজিত হবে এ মেলা।

বৃহস্পতিবার (১৮ এপ্রিল) শুরু হয়ে তিন দিনব্যাপী মেলা চলবে শনিবার (২১ এপ্রিল) পর্যন্ত। রাজধানীর শেরে বাংলা নগরে বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে  (বিআইসিসি) মেলার উদ্বোধন করবেন রাষ্ট্রপতি আবদুল হামিদ।
   
সোমবার (১৫ এপ্রিল) রাজধানীর হোটেল ইন্টারকন্টিনেন্টালে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনের মাধ্যমে আনুষ্ঠানিকভাবে মেলার আয়োজন সম্পর্কে জানানো হয়। সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয়, এবারের মেলায় ভারত, নেপাল, ভুটান, কম্বোডিয়া, থাইল্যান্ড, শ্রীলঙ্কা, মালদ্বীপ, ভিয়েতনাম, ফিলিপাইন ও সংযুক্ত আরব আমিরাতের ট্যুর অপারেটররা অংশ নেবেন। পাশাপাশি দেশীয় ও আন্তর্জাতিক ট্যুর অপারেটর, ট্রাভেল এজেন্সি, এয়ারলাইন্স, হোটেল এবং রিসোর্ট অংশ নেবে।

টোয়াব সভাপতি তৌফিক উদ্দিন আহমেদের সভাপতিত্বে সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ ট্যুরিজম বোর্ডের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা ভুবন চন্দ্র বিশ্বাস, বাংলাদেশ পর্যটন কর্পোরেশনের পরিচালক শাহাদাত হোসেন, বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের ব্যবস্থাপক এ এস এম নজরুল ইসলামসহ টোয়াবের পরিচালক এবং পর্যটন খাত সংশ্লিষ্টরা। 

এসময় টোয়াব পরিচালক (ট্রেড অ্যান্ড ফেয়ার) তসলিম আমিন শোভন বলেন, তিন দিনের এই মেলায় ভারত, নেপাল এবং শ্রীলংকার পর্যটন খাত সংশ্লিষ্ট সরকারি বেসরকারি সংস্থা ও অ্যাসোসিয়েশন এবং তাদের প্রতিনিধি অংশ নেবেন। এ বছর মেলার মূল আয়োজনের সঙ্গে ‘সাইড লাইন ইভেন্ট’ হিসেবে থাকবে রাউন্ড টেবিল ডিসকাশন, কান্ট্রি প্রেজেন্টেশন, সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান এবং র‌্যাফেল ড্র। এছাড়াও দু’টি বিশেষ সেমিনারের আয়োজন থাকছে এবার। এগুলো হলো ‘বুদ্ধিস্ট সার্কিট ট্যুরিজম ইন দ্য রিজিয়ন’ এবং ‘১০০০ ইয়ার্স হিস্টোরি অ্যান্ড হেরিটেজ অব ঢাকা’। পাশাপাশি এটুআই এবং টোয়াব যৌথভাবে ‘ইনোভেটিভ ডিজিটাল আইডিয়া অব ট্যুরিজম’ নামের একটি বিশেষ ব্রেইনস্ট্রর্মিং সেশনের আয়োজন করবে।  

এসময় ভুবন চন্দ্র বিশ্বাস বলেন, টোয়াব বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় ট্যুরিজম স্টেক হোল্ডার এবং বিটিটিএফ বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় এবং জনপ্রিয় পর্যটন মেলা। বাংলাদেশের ট্যুরিজম খাতের উন্নয়নে এমন আয়োজন অনেক গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে। এতে করে দেশি-বিদেশি যোগাযোগ বৃদ্ধি পায়। অতীতেও এমন মেলা থেকে প্রচুর সাড়া পাওয়া গেছে যা দেশীয় পর্যটন খাতে গুরুত্বপূর্ণ ইতিবাচক ভূমিকা রেখেছে। 

টোয়াব সভাপতি তৌফিক উদ্দিন বলেন, বৃহৎ এ মেলা ব্যবসায়ী দেশি-বিদেশি পর্যটক এবং পর্যটন শিল্প সংশ্লিষ্ট সবার মধ্যে ব্যাপক উৎসাহ উদ্দীপনা সৃষ্টি করবে। আমরা খুবই সৌভাগ্যবান এবং সম্মানিত যে আমাদের এ মেলা রাষ্ট্রপতির হাতে উদ্বোধন হবে। আমরা আশা করি দেশীয় পর্যটন খাতে গুরুত্বপূর্ণ অবদান রাখতে কাজ করতে পারবো। 

সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয়, বাংলাদেশ ট্রাভেল অ্যান্ড ট্যুরিজম ফেয়ারের নবম এ আসরে দেশি-বিদেশি প্রায় ১৪০টি প্রতিষ্ঠান অংশ নেবে। এদের জন্য থাকছে ৪টি হল, ১৫টি প্যাভিলিয়ন এবং ১৬০টি স্টলসহ মোট ২২০টি স্টল। 

প্রতিদিন সকাল ১০টা থেকে রাত ৯টা পর্যন্ত দর্শনার্থীদের জন্য উন্মুক্ত থাকবে মেলা প্রাঙ্গণ। মেলায় প্রবেশ মূল্য নির্ধারণ করা হয়েছে ৩০ টাকা। তবে শিক্ষার্থীরা বিটিটিএফ ওয়েবসাইটে (www.bttf.toab.org) রেজিস্ট্রেশনের মাধ্যমে আইডি কার্ড প্রদর্শন করে বিনামূল্যে প্রবেশ করতে পারবেন। আর মেলায় কেনাকাটা করে পেমেন্ট পার্টনার বিকাশের মাধ্যমে মূল্য পরিশোধ করলে পাওয়া যাবে ২০ শতাংশ মূল্যছাড়। 

এবারের মেলা টাইটেল স্পন্সর বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্স। মেলার সার্বিক সহযোগিতায় থাকছে বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন মন্ত্রণালয়, বাংলাদেশ পর্যটন কর্পোরেশন, বাংলাদেশ ট্যুরিজম বোর্ড, এফবিসিসিআই ট্যুরিস্ট পুলিশ এবং পাটা বাংলাদেশ চ্যাপ্টার। এছাড়াও কো-স্পন্সর হিসেবে থাকবে বেক্সট্রেড লিমিটেড।

বাংলাদেশ সময়: ১৩৫৩ ঘণ্টা, এপ্রিল ১৫, ২০১৯
এসএইচএস/জেডএস

        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
cache_14 2019-04-15 13:55:41