ঢাকা, রবিবার, ১২ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৬, ২৬ মে ২০১৯
bangla news

পহেলা বৈশাখে শাহ মেরিন রিসোর্টের বিশেষ আয়োজন

বিজনেস ডেস্ক | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৯-০৪-০৯ ৯:২৫:৩০ পিএম
শাহ মেরিন রিসোর্ট

শাহ মেরিন রিসোর্ট

ঢাকা: বাঙালির ঘরে ঘরে কড়া নাড়ছে নতুন বছরের আমেজ। বাংলা ১৪২৬-কে বরণ করে নিতে প্রস্তুত বাংলা ভাষাভাষীরা। নববর্ষের আনন্দকে আরও বাড়িয়ে দিতে অতিথিদের জন্য বিশেষ আয়োজনের ব্যবস্থা করেছে ঢাকার অদূরেই অবস্থিত শাহ মেরিন রিসোর্ট।
 

আগামী রোববার (১৪ এপ্রিল) বর্ষবরণ উদযাপনের অংশ হিসেবে অতিথিদের জন্য বিভিন্ন আয়োজন রেখেছে শাহ মেরিন রিসোর্ট। গাবতলীর আমিনবাজার থেকে মাত্র ১৩ কিলোমিটার দূরে ধলেশ্বরী নদীর কোলে গড়ে ওঠা এই রিসোর্টে দিনের শুরুতেই থাকছে পান্তা-ইলিশের আয়োজন। এরপর দুপুরের খাবারে থাকছে দেশীয় খাবারের নানা পদ। আর সন্ধ্যায় থাকছে বার-বি-কিউ। 

এছাড়াও দিনভর বিভিন্ন আয়োজনের মধ্য দিয়ে পালন করা হবে বাঙালি ঐতিহ্য ও সংস্কৃতির অবিচ্ছেদ্য অংশ পহেলা বৈশাখকে।
 
১২ ও ১৩ এপ্রিল শুক্র ও শনিবার সাপ্তাহিক ছুটি এবং রোববার পহেলা বৈশাখ হওয়ায় টানা তিনদিনের ছুটি পেতে যাচ্ছে রাজধানীবাসী। আর তাই আসছে বাংলা বছরের প্রথম দিনে রিসোর্টে অন্যান্য সময়ের তুলনায় বেশি অতিথির সমাগম হবে বলে আশা রিসোর্ট কর্তৃপক্ষের।

রিসোর্ট কর্তৃপক্ষ সূত্রে জানা যায়, এই সময়ে অতিথি, দর্শনার্থী এবং গ্রাহকদের আকৃষ্ট করতে বিশেষ প্যাকেজ রাখা হয়েছে রিসোর্টের পক্ষ থেকে। সকাল ৯টা থেকে সন্ধ্যা ৭টা পর্যন্ত ‘ডে-লং স্টে’ প্যাকেজে প্রতিজন অতিথি সকালের পান্তা ইলিশের সঙ্গে পাবেন দুপুরের খাবার এবং সন্ধ্যার বার-বি-কিউ। দুপুরের খাবারে বাঙালি পদের পাশাপাশি থাকছে পোলাও ও মাংসের বিশেষ ডিশ। একই সঙ্গে টুইন শেয়ার এসি ডিলাক্স রুমও পাবেন অতিথিরা। রিসোর্ট কর্তৃপক্ষ এই প্যাকেজের মূল্য নির্ধারণ করেছেন দুই হাজার ৫৫০ টাকা। এছাড়াও রিসোর্টে আসা অতিথিরা সারাদিন পাবেন সুইমিংপুলে আনলিমিটেড সাঁতারের সুবিধা।
 
আয়োজন সম্পর্কে শাহ মেরিন রিসোর্টের ব্যবস্থাপনা পরিচালক শাহ মোমিন বলেন, রাজধানীবাসীর জন্য বিনোদনের পর্যাপ্ত জায়গা না থাকায় খানিক অবসরেই শহরবাসীরা ঢাকার আশেপাশে ঘুরতে যেতে পছন্দ করেন। কিন্তু ভেন্যু শহর থেকে বেশি দূরে হলে আবার মহাসড়কে যানজটের একটা চিন্তা থাকে। সেই দিক থেকে শাহ মেরিন রিসোর্ট রাজধানীর ঢাকার খুব কাছে অবস্থিত। মনোরম পরিবেশে প্রকৃতির মাঝে সাজিয়ে তোলা হয়েছে আমাদের এই রিসোর্ট। তাই রাজধানীবাসীর বিবেচনায় রেখে পহেলা বৈশাখে আমরা এই বিশেষ আয়োজন ও প্যাকেজের ব্যবস্থা করেছি।
 
শাহ মোমিন আরও বলেন, আমার মনে হয়, ঢাকার এতো কাছে এবং সহজ যোগাযোগ ব্যবস্থা সম্পন্ন রিসোর্ট খুব একটা নেই। আমাদের যাত্রা শুরুর পর থেকেই আমরা অতিথিদের কাছ থেকে দারুণ সাড়া পাচ্ছি।

বাংলাদেশ সময়: ২১২৪ ঘণ্টা, এপ্রিল ০৯, ২০১৯
জেডএস

        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

পর্যটন বিভাগের সর্বোচ্চ পঠিত

Alexa
cache_14 2019-04-09 21:25:30