[x]
[x]
ঢাকা, সোমবার, ৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৫, ১৯ নভেম্বর ২০১৮
bangla news

সেন্টমার্টিনকে বাঁচাতেই রাত্রিযাপন-যাতায়াতে কড়াকড়ি

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৮-১০-২৭ ৯:২৫:১৭ পিএম
কক্সবাজারে এক কর্মশালায় মন্ত্রী আনিসুল ইসলাম মাহমুদ/ছবি: বাংলানিউজ

কক্সবাজারে এক কর্মশালায় মন্ত্রী আনিসুল ইসলাম মাহমুদ/ছবি: বাংলানিউজ

কক্সবাজার: পরিবেশ, বন ও জলবায়ু পরিবর্তন বিষয়ক মন্ত্রী আনিসুল ইসলাম মাহমুদ বলেছেন, সেন্টমার্টিন দ্বীপের পরিবেশ-প্রতিবেশ ও জীববৈচিত্র্য রক্ষায় সরকারের পক্ষ থেকে নানা উদ্যোগ নেওয়া হচ্ছে। এ লক্ষ্যে আগামী বছরের ১ মার্চ থেকে সেন্টমার্টিনে রাত্রিযাপন নিষিদ্ধ এবং পর্যটকদের যাতায়াত সীমিত করার চিন্তা-ভাবনা করছে সরকার।

সোমবার (২৭ অক্টোবর) বিকেল সাড়ে তিনটার দিকে ‘সেন্টমার্টিন দ্বীপের বিরল প্রতিবেশ ও এবং জীববৈচিত্র্য সুরক্ষার’ পরামর্শ বিষয়ক এক কর্মশালায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব বলেন।

কক্সবাজার হিল টাউন সার্কিট হাউসের সন্মেলন কক্ষে প্রতিবেশগত ব্যবস্থাপনার মাধ্যমে সেন্টমার্টিন দ্বীপের জীববৈচিত্র্যের উন্নয়ন, ব্যবস্থাপনা ও সংরক্ষণ শীর্ষক প্রকল্পের উদ্যোগে এ কর্মশালা অনুষ্ঠিত হয়।

এ সময় মন্ত্রী আরো বলেন, দেশের একমাত্র প্রবালদ্বীপ সেন্টমার্টিনে বর্তমানে অনিয়ন্ত্রিত পর্যটন ব্যবস্থার কারণে হুমকির মুখে পড়েছে দ্বীপটি। তাই দ্বীপটি রক্ষায় সরকার পরিবেশবান্ধব নানা কর্মসূচি গ্রহণ করছে।

এ সময় মন্ত্রী পর্যটন ব্যবসায়ীদের উদ্দেশ্যে প্রশ্ন ছুঁড়ে দিয়ে বলেন, সরকার কেন এ সিদ্বান্ত নিতে যাচ্ছে? প্রবাল বেষ্ঠিত দেশের একমাত্র দ্বীপটিকে বাঁচানোর জন্য। এ দ্বীপের পরিবেশ-জীববৈচিত্র্য রক্ষার জন্য। মার্চের আগ পর্যন্ত মাঝখানে আরো কয়েক মাস সময় আছে। পরিবেশ অধিদফতর আপনাদের মনিটর করবে, আপনারা কিভাবে পর্যটন ব্যবসা চালাচ্ছেন।

পরিবেশ, বন ও জলবায়ু পরিবর্তন মন্ত্রণালয়ের সচিব আব্দুল্লাহ আল মোহসীন চৌধুরীর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত কর্মশালায় অন্যান্যদের মধ্যে সংসদ সদস্য মোহাম্মদ ইলিয়াছ, কক্সবাজার উন্নয়ন কর্তৃপক্ষের চেয়ারম্যান লে.কর্নেল (অব.) ফোরকান আহমেদ, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক মো. মাহিদুর রহমান, জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও পৌর মেয়র মুজিবুর রহমান প্রমুখ।

বাংলাদেশ সময়: ২১১৯ ঘণ্টা, অক্টোবর ২৭, ২০১৮
এসএইচ

        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
cache