bangla news

প্রশাসন সময় বেঁধে দেওয়ায় ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে আমচাষি

বাংলানিউজ টিম | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৮-০৬-০২ ২:১১:২৯ এএম
আমচাষি জিল্লুর রহমান-ছবি: ডি এইচ বাদল ও আরিফ জাহান

আমচাষি জিল্লুর রহমান-ছবি: ডি এইচ বাদল ও আরিফ জাহান

রাজশাহী চেম্বার ভবন থেকে: রাজশাহী, চাঁপাইনবাবগঞ্জে আম ভাঙার ক্ষেত্রে জেলা প্রশাসনের বেঁধে দেওয়া সময়সীমার কারণে চাষি ও ব্যবসায়ীরা ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছেন বলে মন্তব্য করেছেন আমচাষি জিল্লুর রহমান।

বাংলানিউজ আয়োজিত ‘আমের দেশে নতুন বেশে’ শীর্ষক বিশেষ আলোচনা সভায় শনিবার (২ জুন) অংশ নিয়ে তিনি এ মন্তব্য করেন।

তিনি বলেন, বাপ-দাদার আমল থেকে দেখে যেভাবে শিখেছি-মুকুল যখন আসে কীটনাশক দিয়ে স্প্রে করলেই আম হয়ে যেত ২০ বছর আগে। তার আগে স্প্রে করার পদ্ধতি ছিল না। যখন ছোট ছিলামতখন স্প্রে করা হতো না। প্রকৃতিগতভাবেই হতো। এখন স্প্রে না করলে আম হয় না।

‘এখন চাষি ও ব্যবসায়ীরা রফতানি সমস্যার সম্মুখীন হন। এবার ২০ মে গোপালভোগ, লক্ষণভোগ ৬ জুন, ল্যাংড়া আম ১৫ জুন ভাঙার সময় ছিল প্রশাসন থেকে। কিন্তু আম পাকলে বিবেক দ্বারা ভাঙবেন। এটাই হওয়া উচিত। সময় বেঁধে দেওয়া হলেও ০২ জুন পর্যন্ত লক্ষণভোগ কিন্তু খাচ্ছে না। সময়সীমা বেঁধে দেওয়ার কারণেই আম বেচাকেনা হচ্ছে না। এসময় তিনি আম ভাঙার বিষয়টি উন্মুক্ত করে দিয়ে যারা অধিক লাভের আশায় অগ্রিম ভাঙবে তাদের শাস্তির দাবি জানান জিল্লুর।

আম পেকে গেছে গাছে। কিন্তু ভোক্তারা তো চাচ্ছে না।

সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত রয়েছেন রাজশাহীর জেলা প্রশাসক এসএম আব্দুল কাদের।

সভাপতিত্ব করছেন নিউজটোয়েন্টিফোর টেলিভিশনের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা ও বাংলাদেশ প্রতিদিন পত্রিকার সম্পাদক নঈম নিজাম।

বাংলানিউজের কনসালট্যান্ট এডিটর জুয়েল মাজহারের পরিচালনায় বিশেষজ্ঞ আলোচনায় মূল্যবান মতামত রাখছেন আম গবেষক ও সংশ্লিষ্টরা।

এছাড়া উপস্থিত আছেন- রাজশাহীর অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট সুব্রত পাল, আম চাষি ও ব্যবসায়ী ইসমাঈল খান শামীম, আম চাষি ও ব্যবসায়ী খন্দকার মনিরুজ্জামান মিনার, রাজশাহী অ্যাগ্রো ফুড প্রডিউসার সোসাইটির আহ্বায়ক মো. আনোয়ারুল হক, আম গবেষক ও লেখক মো. মাহাবুব সিদ্দিকী, আম চাষি ও ব্যবসায়ী (বাঘা) মো. জিল্লুর রহমান, চাঁপাইনবাবগঞ্জ আম গবেষণা কেন্দ্রের ঊর্ধ্বতন বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তা শরফ উদ্দিন, চাঁপাইনবাবগঞ্জ কৃষি সম্প্রসারণ অধিদফতরের উপ-পরিচালক মঞ্জুরুল হুদা।

বাংলাদেশ সময়: ১২১০ ঘণ্টা, জুন ০২, ২০১৮
এসসিডি/এমবিএইচ/ইইউডি/এসএম/এমআই/ জেডএস/এএ-

ক্লিক করুন, আরো পড়ুন :   আম
        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
cache_14 2018-06-02 02:11:29