bangla news
নাটোর থেকে ‍আসিফ ও শুভ্রনীল

ভরদুপুরে কাকভোর!

|
আপডেট: ২০১৬-০১-২০ ৫:২৩:০০ এএম
ছবি: বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

ছবি: বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

সূর্যের দেখা নেই দুপুর আড়াইটা পর্যন্ত। টানা প্রায় ২৪ ঘণ্টা থেমে থেমে চলছে বৃষ্টি। বাজার মোড়ের অধিকাংশ দোকান খোলেনি। তবে রয়েছে মানুষের জটলা। কাজে বের হতে পারেননি কমর্জীবীরা। তাই সকালে চায়ের দোকানের আড্ডার রেশ দুপুরেও।

বাগাতিপাড়া (নাটোর) থেকে: সূর্যের দেখা নেই দুপুর আড়াইটা পর্যন্ত। টানা প্রায় ২৪ ঘণ্টা থেমে থেমে চলছে বৃষ্টি। বাজার মোড়ের অধিকাংশ দোকান খোলেনি। তবে রয়েছে মানুষের জটলা। কাজে বের হতে পারেননি কমর্জীবীরা। তাই সকালে চায়ের দোকানের আড্ডার রেশ দুপুরেও।

ভ্যানগাড়িতে চলেছি প্রায় ১৮ কিলোমিটার। দু’ধারের মাঠজুড়ে ঘন কুয়াশা। পাখিদেরও আড়মোড়া ভাঙেনি ঠিকঠাক। এখন বৃষ্টি নেই। তবে শীত হাড় কনকনে। 

এই ভরদুপুরে শীতের পোশাক তো আছেই। সঙ্গে কম্বল মুড়ি দিয়েও বের হতে বাধ্য হচ্ছেন কেউ কেউ।

দীর্ঘ রাস্তায় ভরদুপুরেও লোকজনের দেখা মিলছে কদাচিত। যে দু’একজন আছেন তারাও শীতে জবুথবু। চায়ের দোকানে ধোঁয়া ওড়া চা দেখে বোঝার জো নেই এটা দুপুর। 

পথে কৃষিজীবী আশকান বললেন, ‘কে যাবি আইজ কাজে, লেপের তলি ঢুকতি সারলি বাঁচি’।

বৃষ্টির পর শীতের তীব্রতা বাড়তে থাকায় গৃহপালিত পশুদেরও এখনই পরানো হয়েছে শীতের পোশাক।

বাংলাদেশ সময় : ১৬২৪ ঘণ্টা, জানুয়ারি ২০, ২০১৬
এএ/এএসআর

** ডুবো রাস্তায় চৌচির হালতি
** হঠাৎ বৃষ্টিতে শীতের দাপট

        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
db 2016-01-20 05:23:00