ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ১৯ অগ্রহায়ণ ১৪২৭, ০৩ ডিসেম্বর ২০২০, ১৬ রবিউস সানি ১৪৪২

এভিয়াট্যুর

বিমানবন্দরে নজরদারিতে ‘ট্রলিম্যান সিন্ডিকেট’

ইমরান আলী, স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১১৫০ ঘণ্টা, সেপ্টেম্বর ৩, ২০১৪
বিমানবন্দরে নজরদারিতে ‘ট্রলিম্যান সিন্ডিকেট’ ছবি: ফাইল ফটো

ঢাকা: হযরত শাহজালাল বিমানবন্দরে স্বর্ণ চোরচালানে আবারো সক্রিয় হয়ে উঠেছে ট্রলিম্যানদের একটি সিন্ডিকেট। এই সিন্ডিকেটে কমপক্ষে ১০ ব্যক্তি জড়িত আছেন বলে গোয়েন্দা সূত্রে নিশ্চিত হওয়া গেছে।



অনুসন্ধানে জানা যায়, সম্প্রতি বড় কোনো স্বর্ণের চালান না এলেও তারা ছোট ছোট চালান বিমানবন্দর পার করে গন্তব্যে পৌঁছে দিচ্ছে। তাই এ সিন্ডিকেটের ওপর কড়া নজর রেখেছে  গোয়েন্দা সংস্থা।

গোয়েন্দা সংস্থার সদস্যরা বলছেন, সিন্ডিকেটটি অতীতে গোয়েন্দা নজরদারির কারণে কিছুটা নিষ্ক্রিয় হয়ে ঘাপটি মেরে ছিল। কিন্তু সম্প্রতি নজরদারি কমায় তারা আবারও সক্রিয় হয়ে উঠেছে। তাই আমরা আবার নজরদারি বাড়ানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছি।

সূত্রমতে, বিমান বন্দরের যাত্রীদের লাগেজ নিয়ে আসার জন্য সিভিল এভিয়েশন কর্তৃপক্ষের তত্ত্বাবধানে ৫০ জন ট্রলিম্যান কাজ করেন। যাদের মধ্যে ১০ জনকে নিয়ে একটি শক্তিশালী সিন্ডিকেট গড়ে উঠেছে। যারা দীর্ঘদিন ধরে স্বর্ণ পাচার চক্রকে সহায়তা করে আসছে।

যেভাবে সহায়তা করেন ট্রলিম্যানরা
ফ্লাইট অবতরণ করার পর যাত্রীরা ইমিগ্রেশনের জন্য লাইনে দাঁড়ায়। তখন ট্রলিম্যান চক্রটি ওই লাইনের পাশে ঘোরাফেরা করে। তখন আইন শৃঙ্খলা বাহিনীর দৃষ্টি এড়িয়ে সেখান থেকে ওই ব্যক্তির নিকট থেকে ছোট ব্যাগটি তারা নিয়ে বাইরে বের হয়ে আসে। বাইরে বের হয়ে এ সিন্ডিকেট সদস্যরা কাজ করার ভান করে। পরে স্বর্ণের মালিক বাইরে এসে তাদের অনুসরণ করে সেখানে যায়। আর তখনও টাকা বা অন্য কোনো পণ্যে বিনিময়ে প্যাকেটটি মালিকের কাছে ফেরত দেওয়া হয়।

নাম প্রকাশ না করার শর্তে গোয়েন্দা সংস্থার এক সদস্য বলছেন, আমরা পুরো এই গ্রুপকে হাতেনাতে ধরে আইনের আওতায় আনার অপেক্ষায় রয়েছি।   বিমানবন্দরে স্বর্ণ পাচারে যারা সহায়তা করে তাদের মধ্যে এটি একটি অন্যতম গ্রুপ। অন্যরাও আমাদের পর্যবেক্ষণে রয়েছে।

বাংলাদেশ সময়: ১১৩৩ ঘণ্টা, সেপ্টেম্বর ৩, ২০১৪

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa