bangla news

আবারো বিদেশি এমডি’র খোঁজে বিমান!

141 |
আপডেট: ২০১৪-০৪-১৭ ২:০৮:০০ এএম

কেভিন স্টিলের পদত্যাগের পর আবারো বিদেশি ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) খুঁজছে বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্স।

ঢাকা: কেভিন স্টিলের পদত্যাগের পর আবারো বিদেশি ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) খুঁজছে বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্স।
 
ব্যবস্থাপনা পরিচালক পদে প্রার্থী চেয়ে সম্প্রতি বিজ্ঞাপন দিয়েছে রাষ্ট্রীয় পতাকাবাহী এয়ারলাইন্স। এ বিজ্ঞাপনে ব্যবস্থাপনা পরিচালক পদে যেসব যোগ্যতা চাওয়া হয়েছে তাতে বাংলাদেশি কোনো নাগরিক এ পদে যোগ্য হবেন না, তা বিজ্ঞাপন দেখলে যে কেউ বুঝতে পারবেন।

বিমান সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে। 

সূত্র জানায়, কেভিন স্টিল বৃহস্পতিবারই বিমানে শেষ দিন অতিবাহিত করছেন। এরপর তিনি নিজ দেশ ইংল্যান্ডে পরিবারের কাছে চলে যাবেন। ব্যবস্থাপনা পরিচালক পদে বিদেশি পদে কর্মকর্তা পেতে কেভিন বিমানকে সহায়তা করবেন বলেও জানা গেছে।

বিমান সূত্র জানায়, পদত্যাগের পর কেভিনকে আরো কয়েক মাস দায়িত্ব চালিয়ে যেতে বলা হয়েছিল। কেভিন খণ্ডকালীনভাবে কিছুটা সহযোগিতা করতে রাজি হলেও তার স্ত্রী ১৭ এপ্রিলের পর আর একদিনও কেভিনকে বিমানে দেখতে চাননি। এ কারণে বৃহস্পতিবারই তিনি বিদায় নিচ্ছেন।     

কেভিন স্টিল গত ২৩ মার্চ বাংলানিউজের কাছে তার পদত্যাগের কথা স্বীকার করেন। এরপরই গণমাধ্যমগুলো তার পদত্যাগের নেপথ্যের ঘটনা নিয়ে একের পর এক সংবাদ প্রকাশ করতে থাকে। আনুষ্ঠানিকভাবে তার পদত্যাগের পেছনে স্বাস্থ্যগত কারণ দেখালেও মূলত বিমানের চেয়ারম্যান জামাল উদ্দিন আহমদের সঙ্গে স্বার্থসংশ্লিষ্ট বিষয়ে বনিবনা না হওয়াতে তিনি পদত্যাগে বাধ্য হন। 

এদিকে নতুন নিয়োগের বিজ্ঞাপনে ব্যবস্থাপনা পরিচালক পদে বিমান চলাচল খাতে ২০ বছরের অভিজ্ঞতা চাওয়া হয়েছে। এর মধ্যে কোনো এয়ারলাইন্সের সিনিয়র ম্যানেজমেন্ট পদে ১০ বছরের অভিজ্ঞতা থাকতে হবে।

বিমানের এমপ্লয়মেন্ট ম্যানেজারের মাধ্যমে প্রকাশিত ওই বিজ্ঞাপনে বলা হয়েছে, প্রার্থীর বয়স ৪৫ থেকে ৬০ বছরের মধ্যে হতে হবে। তবে যোগ্য প্রার্থীদের ক্ষেত্রে এ শর্ত শিথিলযোগ্য। এয়ারলাইন মার্কেটিং, কোড শেয়ারস, নিউ অনলাইন ডিস্ট্রিবিউশন টেকনোলজি, রেভিনিউ ম্যানেজমেন্ট পদ্ধতি, লেবার ল’ সম্পর্কে প্রার্থীর সম্যক ধারণা থাকতে হবে। এর বাইরে বিভিন্ন প্রকল্পে কাজ করার প্রমাণ থাকতে হবে। সক্ষমতা  থাকতে হবে অন্য এয়ারলাইন্সের সঙ্গে দর কষাকষির বিষয়ে। এছাড়া এয়ারলাইন সার্ভিস প্রোভাইডারস, আর্থিক প্রতিষ্ঠান, উড়োজাহাজ লেজর, লেগুলেটর এবং সর্বোপরি উপমহাদেশের পরিবেশে কাজ করার চ্যালেঞ্জ নেওয়ার ক্ষমতাও চাওয়া হয়েছে বিজ্ঞাপনে। আগামী ১৬ মের মধ্যে বিমানের এমপ্লয়মেন্ট ম্যানেজারের কাছে জীবনবৃত্তান্ত ও আবেদনপত্র জমা দিতে বলা হয়েছে বিজ্ঞাপনে।

বিমানের মহাব্যবস্থাপক পদমর্যাদার এক কর্মকর্তা বাংলানিউজকে জানান, যে যোগত্য চাওয়া হয়েছে তাতে বাংলাদেশি কেউ এ পদের যোগ্য হবেন না। বিমানের পরিচালক পর্যায়ের এক কর্মকর্তা বাংলানিউজকে বলেন, বিদেশি এমডি নিতেই এভাবে বিজ্ঞাপন দেওয়া হয়েছে।

এর আগে কেভিনকে বিমানের নিয়োগের আগেও একই ধরনের যোগ্যতা চাওয়া হয়েছিল। ওই সময় ৪২ জনের সংক্ষিপ্ত তালিকা থেকে সাক্ষাৎকারের জন্য ডাকা হয়েছিল মাত্র কয়েকজনকে।

কেভিন স্টিল ২০১২ সালের ১৮ মার্চ বিমানে যোগদান করেন। দুই বছরের জন্য তাকে নিয়োগ দেওয়া হয়েছিল। কিন্তু এক বছরের মাথায় তাকে বিদায় নিতে হয়। কেভিন বিমানকে দুই বছরের মধ্যে লাভজনক প্রতিষ্ঠানে পরিণত করার অঙ্গীকার করেছিলেন। আর এর এক বছরের মধ্যে বিমান ২১৪ কোটি টাকা লোকসান দেয়। 

বাংলাদেশ সময়: ১২০৫ ঘণ্টা, এপ্রিল ১৭, ২০১৪ 

        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
db 2014-04-17 02:08:00