bangla news

লন্ডনে বিমানের গালা ডিনার, খরচ ৩০ লাখ

93 |
আপডেট: ২০১৪-০১-১৮ ১১:২৮:১৩ পিএম

আড়ম্বরপূর্ণ অনুষ্ঠান বটে। ৪০০ জন অতিথি। শুধু ডিনারেই খরচ ২০ লাখ টাকার বেশি। এর বাইরে খরচ হয়েছে আরও প্রায় ১০ লাখ টাকা। অনুষ্ঠানকে উপভোগ্য করতে দেশ থেকে লন্ডনে উড়িয়ে নেওয়া হয় নামী-দামী...

ঢাকা: আড়ম্বরপূর্ণ অনুষ্ঠান বটে। ৪০০ জন অতিথি। শুধু ডিনারেই খরচ ২০ লাখ টাকার বেশি। এর বাইরে খরচ হয়েছে আরও প্রায় ১০ লাখ টাকা। অনুষ্ঠানকে উপভোগ্য করতে দেশ থেকে লন্ডনে উড়িয়ে নেওয়া হয় নামী-দামী এক কণ্ঠশিল্পীকে।

খরচের হিসেবটি হলো লোকসানে থাকা বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের একটি অনুষ্ঠানের ব্যয়ের চিত্র। ২০ ডিসেম্বর লন্ডনের ওয়েস্টহামে একটি কনফারেন্স হলে আয়োজন করা হয় বিমানের এ জমকালো অনুষ্ঠান।

অথচ বিদায়ী অর্থবছরেও বিমান ২১৪ কোটি টাকা লোকসান দিয়েছে। আগের অর্থ বছরে লোকসান হয়েছে ৬০০ কোটি টাকা।

তবে বিমানের ব্যবস্থাপনা কর্তৃপক্ষ লোকসানি প্রতিষ্ঠানের খরচের বিষয়ে সাশ্রয়ী হতে একটি নির্দেশনাও দিয়েছিল। আর এতো কিছুর পর সাশ্রয়ী হওয়ার নমুনা এমন!  

কর্তৃপক্ষের ভাষ্য, অনুষ্ঠানটি বিমানের জন্য ইতিবাচক, যা বিমানের জন্য উপকারী হবে। এতে জনসংযোগের ক্ষেত্রেও বিমানের বিশাল ইতিবাচক ভাবমূর্তি তৈরি করবে।

তবে আড়ম্বরপূর্ণ এই অনুষ্ঠান সম্পর্কে বিমানেরই এক কর্মকর্তা বাংলানিউজকে বলেন, যার ফ্লাইট শিডিউলই ঠিক থাকে না। তার আবার ভাবমূর্তি। ভাবমূর্তি তৈরি করতে হলে এভাবে জাঁকজমকপূর্ণ ডিনার কিংবা অনুষ্ঠানের প্রয়োজন নেই। যাত্রীদের ঘণ্টার পর ঘণ্টা বিমানবন্দরে বসিয়ে না রেখে সময়মতো উড্ডয়ন করাতে পারলেই বিমানের সুনাম রক্ষা করা যাবে।

বিমানের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা কেভিন স্টিল অনেকটা চুপিসারেই এ অনুষ্ঠানে যোগ দেন।

বিমানের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারাও এ সম্পর্কে কিছুই জানতেন না। আর অনুষ্ঠান সেরে লন্ডনে নিজ বাড়ি থেকে বেড়িয়ে আসেন বিদেশি এ প্রধান নির্বাহী।  

রাষ্ট্রীয় পতাকাবাহী এয়ারলাইন্সের ইনফ্লাইট সার্ভিসে টমি মিয়ার রেসিপি যুক্ত হওয়ার অনুষ্ঠান উপলক্ষেই আয়োজন করা হয়েছিল এ অনুষ্ঠানের। প্রশ্ন উঠেছে-লন্ডনে বাংলাদেশি শেফ টমি মিয়ার রেসিপি নিয়ে এতোবড় জমকালো অনুষ্ঠান আয়োজনের প্রয়োজনীয়তা কতটুকু? রেসিপি টমি মিয়ার, আর এ নিয়ে বিমানের প্রচারের প্রয়োজন কেন পড়লো।  

বিমানের প্রধান নির্বাহী কেভিন স্টিল বাংলানিউজকে এ সম্পর্কে বলেন, শুধু টমি মিয়ার রেসিপি নয়, বিমানের ফ্রিকোয়েন্ট ফ্লায়ার উপলক্ষেও অনুষ্ঠান আয়োজনের অন্যতম কারণ।  

অনুষ্ঠানে ৪ শতাধিক অতিথিকে ডিনার শেষে আনন্দ দিতে বাংলাদেশ থেকে দেশের খ্যাতনামা এক শিল্পীকে লন্ডনে নিয়ে যাওয়া হয়। তাকে এজন্য ৫ হাজার ডলার অর্থ দিতে হয়। ওই শিল্পীর পাশাপাশি স্থানীয় কয়েকজন শিল্পী ও একজন যাদুশিল্পীকেও আনা হয়, আয়োজন করা হয় ৠাফেল ড্র’র।

আড়ম্বরপূর্ণ ডিনারের পাশাপাশি অতিথিদের দেওয়া হয় গুডি ব্যাগ। এতে বিমানের গিফট আইটেমও ছিল।

বাংলাদেশ সময়: ১০২৪ ঘণ্টা, জানুয়ারি ১৯, ২০১৪     
সম্পাদনা: জনি সাহা, নিউজরুম এডিটর/এনএস

        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
db 2014-01-18 23:28:13