ঢাকা, শনিবার, ৭ কার্তিক ১৪২৮, ২৩ অক্টোবর ২০২১, ১৫ রবিউল আউয়াল ১৪৪৩

টেনিস

করোনা: এক বছর পেছালো টোকিও অলিম্পিক

স্পোর্টস ডেস্ক | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৮৪৬ ঘণ্টা, মার্চ ২৪, ২০২০
করোনা: এক বছর পেছালো টোকিও অলিম্পিক এক বছর পেছালো টোকিও অলিম্পিক

অবশেষে বৈশ্বিক মহামারি করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ ঠেকাতে টোকিও-২০২০ অলিম্পিক গেমস এক বছর পিছিয়ে নিতে সম্মত হয়েছেন আয়োজকরা। 

টোকিও অলিম্পিক হওয়ার কথা ছিল এ বছরের ২৪ জুলাই।  তবে মঙ্গলবার (২৪ মার্চ) জাপানের প্রধানমন্ত্রী শিনজো আবে জানিয়েছেন, আন্তর্জাতিক অলিম্পিক কমিটি রাজি হয়েছে টোকিও অলিম্পিক এক বছর পিছিয়ে দেওয়ার।

 

শিনজো আবে বলেন, ‘টোকিও অলিম্পিক পেছানোর ব্যাপারে আমি আন্তর্জাতিক অলিম্পিক কমিটির (আইওসি) প্রেসিডেন্ট টমাস বাখকে প্রস্তাব দিয়েছিলাম। তিনি ১০০% সম্মত হয়েছেন এ ব্যাপারে। ’

এক বছর স্থগিত হলেও অবশ্য টোকিও-২০২০ নামেই আগামী বছর অলিম্পিক আয়োজন করবে জাপান।  

১২৪ বছরের গৌরবান্বিত ইতিহাসে বাইরের ঘটনাবলীর জন্য এ নিয়ে চতুর্থবারের মতো স্থগিত হলো অলিম্পিক গেমস। প্রথমবার স্থগিত হয়েছিল ১৯১৬ সালে। সেবারের অলিম্পিকের আয়োজক ছিল বার্লিন ও জার্মান সাম্রাজ্য। তবে প্রথম বিশ্বযুদ্ধের কারণে তা স্থগিত করা হয়।  

অন্যদিকে দ্বিতীয়বারের মতো অলিম্পিক স্থগিত হতে যাচ্ছে জাপানে। এর আগে টোকিও-১৯৪০ অলিম্পিকও বাতিল করতে হয় দেশটিকে। পরেরবার লন্ডন-১৯৪৪ অলিম্পিক স্থগিত দ্বিতীয় বিশ্ব যুদ্ধের কারণে।

তৎকালীন সোভিয়েন ইউনিয়ন আফগানিস্তানে আক্রমণ করার ফলে মস্কো-১৯৮০ অলিম্পিক বয়কট করেছিল যুক্তরাষ্ট্র, চীন, জাপান-সহ আরও অনেক দেশ।  

কোভিড-১৯ নিয়ে আতঙ্কিত পুরো বিশ্ব। একে একে স্থগিত হয়ে গেছে বিশ্বের বড় বড় ক্রীড়া ইভেন্টগুলোও। তবে নিভু নিভু জ্বলছিল টোকিও অলিম্পিকের আশা। অবশ্য বিশ্বের সবচেয়ে বড় এই ক্রীড়াযজ্ঞ স্থগিত হওয়ার ইঙ্গিত পাওয়া যাচ্ছিল আগে থেকেই।  বাকি ছিল কেবল আনুষ্ঠানিক ঘোষণা। কারণ কয়েকটি দেশ নিজেদের নাম প্রত্যাহার করে নিয়েছিল আগে।  

এর আগে সোমবার (মার্চ ২৩) টোকিও অলিম্পিক সংগঠক কমিটির প্রেসিডেন্ট ইয়োশিরো মোরি সাংবাদ সম্মেলনে এ বিষয় নিয়ে কথা বলেন। তিনি বলেন, ‘আমরা এখনও অলিম্পিক পিছিয়ে দেওয়ার ব্যাপারে কোনো সিদ্ধান্ত গ্রহণ করিনি। তবে অলিম্পিক যে পিছিয়ে দেওয়া হবে না, সেটাও নিশ্চিত নয়। করোনা ভাইরাসের আক্রমণে পৃথিবীর যা অবস্থা, তার পরে অলিম্পিক নির্ধারিত সময় হবেই, এটা বলার মতো বোকা আমি নই। পিছিয়ে গেলেও অলিম্পিক কোনো ভাবেই বাতিল করা হবে না। ’

অলিম্পিকের সময়সূচি যদি না পেছাতো তবে বড় ধরনের আর্থিক ক্ষতির মুখে পড়তো আয়োজক দেশ জাপান। এজন্যই অলিম্পিক পিছিয়ে নেওয়ার সিদ্ধান্তের জন্য অতিরিক্ত সময় নেয় জাপান এবং আন্তর্জাতিক অলিম্পিক কমিটি।

জাপানের প্রধানমন্ত্রী শিনজো আবেও এক সংসদ সম্মলনে বলেন, ‘এই পরিস্থিতিতে পূর্ণাঙ্গ অলিম্পিক যদি করা সম্ভব না হয়, তা হলে গেমস পিছিয়ে দেওয়ার কথা ভাবা যেতে পারে। করোনা ভাইরাস সংক্রমণের কারণে বিশ্ব এখন অলিম্পিকের জন্য প্রস্তুত নয়। ’

বাংলাদেশ সময়: ১৮৪৬ ঘণ্টা, মার্চ ২৪, ২০২০
ইউবি 

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa