ঢাকা, সোমবার, ২ কার্তিক ১৪২৮, ১৮ অক্টোবর ২০২১, ১০ রবিউল আউয়াল ১৪৪৩

তারার ফুল

লালে লাল মমতাজ!

বিনোদন ডেস্ক | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৯০৮ ঘণ্টা, আগস্ট ১৭, ২০১৬
লালে লাল মমতাজ! মমতাজ-ছবি:নূর-বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

লাল টুকটুকে শাড়ির সঙ্গে গলায় হার। কপালে লাল টিপ।

ঠোঁট রাঙানো লাল লিপস্টিকে। সব মিলিয়ে লালে লাল মমতাজ! সঙ্গে আছে কানের দুল। হাতে বালা। আঙুলে আংটি।  

ক’দিন আগে এফডিসিতে মমতাজকে এমন ঝলমলে সাজে দেখে দারুণ লেগেছে। এখানে এসে লোকাল বাসে চড়লেন তিনি। মমতাজ শুধু লোকগানের সম্রাজ্ঞীই নন, জাতীয় সংসদের সংসদ সদস্য। বাসে আজকাল তার ওঠা হয় না। গানের প্রতি ভালোবাসা থেকে বহু বছর পর লোকাল বাসে উঠলেন। নিজের গাওয়া গানে ঠোঁট মেলালেন।  

না, বাসের ভেতর কনসার্ট হয়নি। মমতাজের ‘লোকাল বাস’ গানের ভিডিওর চিত্রায়ন দেখা গেলো এখানে। এবারই প্রথম এমন রঙে-ঢঙে কোনো মিউজিক ভিডিওতে হাজির হচ্ছেন তিনি।  

চিত্রনায়ক জসিম ফ্লোরে মেকআপ নিয়ে ঝরণা স্পটের কাছাকাছি রাস্তায় সাজানো যাত্রী ছাউনির সামনে দাঁড়ালেন। এখানে কয়েকবার টেক নেওয়া শেষ হলে মমতাজ তার সাজগোজ আয়নায় একবার দেখে উঠলেন নানা রঙে রাঙানো লোকাল বাসে। আর কেউ নেই সেখানে। সামনে শুধু চিত্রগ্রাহক।  

গানটি আবার বাজানো হলো। নাচতে নাচতে গানটির সঙ্গে ঠোঁট মেলাচ্ছেন মমতাজ। বাস থেকে নামার সময় আলোকচিত্রীদের সামনে দাঁড়ালেন তিনি। হঠাৎ তার মোবাইল বেজে উঠলো। কিছুক্ষণ কথা বলে আবার আয়নায় নজর রাখলেন। কাছে এগিয়ে যেতেই মিউজিক ভিডিওটি প্রসঙ্গে বাংলানিউজকে মমতাজ বললেন, ‘‘এমন আয়োজনে আগে কোনো মিউজিক ভিডিওর কাজ করিনি। বলতে পারেন এবারই প্রথম। ‘ফাইট্টা যায়’, ‘পাংখা’র মতো ‘লোকাল বাস’ ভিডিওটি দর্শকপ্রিয়তা পাবে বলে মনে হচ্ছে। ’’

ততোক্ষণে সন্ধ্যা নেমে গেছে পূব আকাশে। কাজের পর বেলাশেষে বিদায়ের পালা। মমতাজ সবাইকে বিদায় জানিয়ে মেরুন রঙের ল্যান্ড ক্রুজারে চেপে বসলেন। সেদিকে চেয়ে মনে পড়লো, মাটির গানে গানে দুই দশকেরও বেশি সময় পেরিয়ে এসেছেন তিনি। সংগীত জীবনে ৭০০টির বেশি একক অ্যালবাম প্রকাশিত হয়েছে তার। শুধু দেশ নয়, যুক্তরাজ্য, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রসহ বিশ্বের অনেক দেশে তার গায়কী সমাদৃত।  

মমতাজের ‘লোকাল বাস’ গানটার কথা এমন- ‘নিজের ভালো বুঝিস রে তুই, পথে পথে ঘুড়িস রে তুই...বন্ধু তুই লোকাল বাস বন্ধু তুই লোকাল বাস, আদর কইরা ঘরে তোলস ঘাড় ধইরা নামাস’। এটি লিখেছেন গোলাম রাব্বানী। এর সংগীতায়োজন করেছেন খালিদ হাসান মিলুর কনিষ্ঠ পুত্র প্রিতম হাসান। আছে সাফায়েতের র‌্যাপও। ভিডিওটি নির্মাণ করেছেন তানিম রহমান অংশু। লালে লাল মমতাজকে দেখতে আর অল্প ক’দিন সবুর করতে হবে। সবুরে মেওয়া ফলে!

বাংলাদেশ সময়: ১৮৫৮ ঘণ্টা, আগস্ট ১৭, ২০১৬
জেএমএস/জেএইচ

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa