ঢাকা, শুক্রবার, ১২ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯, ২৭ মে ২০২২, ২৫ শাওয়াল ১৪৪৩

খেলা

বঙ্গবন্ধুর জন্মদিনে ১’শ পাউন্ড কেক কাটবেন রানার জাহাঙ্গীর

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৫৫৮ ঘণ্টা, জানুয়ারি ২৫, ২০২২
বঙ্গবন্ধুর জন্মদিনে ১’শ পাউন্ড কেক কাটবেন রানার জাহাঙ্গীর ছবি: শাকিল আহমেদ

ঢাকা: আগামী ১৭ মার্চ এক হাজার রানার নিয়ে ১শ পাউন্ডের কেক কেটে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মদিন উদযাপন করার বিষয়ে প্রধানমন্ত্রীর সহযোগীতা কামনা করেন রসায়নবিদ ও আল্ট্রা ম্যারাথন রানার মোহাম্মদ জাহাঙ্গীর আলম সরকার।

মঙ্গলবার (২৫ জানুয়ারি) বেলা সাড়ে ১১ টার দিকে রাজধানীর সেগুনবাগিচায় ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটির (ডিআরইউ) সাগর-রুনি মিলনায়তনে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনের মাধ্যমে এই সহযোগিতা কামনা করেন তিনি।

তিনি বলেন, ২০২১ সালের ১৭ ডিসেম্বর বেক্সিমকো-বঙ্গবন্ধু বিজয় হাফ ম্যারাথন-২০২১ ও বঙ্গবন্ধুর জন্মদিনে ২০২১ সালের ১৭ মার্চ বাসাইল সখিপুর হাফ ম্যারাথন-২০২১ দুটি অনুষ্ঠান সফলভাবে শেষ হয়। ওই দুটি অনুষ্ঠান বাবদ আমার ব্যক্তিগত প্রচুর অর্থ ব্যয় হয়। দুটি অনুষ্ঠান সফলভাবে শেষ করতে গিয়ে আমি প্রচুর ঋণগ্রস্থ হয়ে যাই।

তিনি বলেন, অনুষ্ঠানের আয়-ব্যয়ের খতিয়ান তুলে ধরে সংবাদ সম্মেলনের মাধ্যমে মানবতার নেত্রী ও গনতন্ত্রের মানসকন্যা মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর দৃষ্টি আকর্ষন করতে চাই। যাতে প্রধানমন্ত্রীর ঐচ্ছিক ত্রান তহবিল থেকে সহযোগীতা চাই। সেই সঙ্গে আগামী ১৭ই মার্চ-২০২২ জাতির পিতা বঙ্গবন্ধুর জন্মদিন উপলক্ষে বঙ্গবন্ধু হাফ ম্যারাথন-২০২২ (ভার্চুয়াল) সারা পৃথিবী ব্যাপি এই ম্যারাথন করতে চাই।

তিনি বলেন, আমার ডাকে ১ হাজার রানার আসবে।  আমি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ও ঢাকা কলেজ নিয়ে এই হাফ ম্যারাথন করে জাতির পিতার বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মদিন উদযাপন করতে চাই।

তিনি অভিযোগ করে বলেন, এই ম্যারাথন বানচাল করতে অনেকেই আমাকে নানা হুমকি দিয়ে আসছে। কিন্তু আমি বলতে চাই এসব হুমকিতে আমি ভয় পাই না। কারা হুমকি দিচ্ছে সে বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি বলেন, আমি কারও নাম এখনই বলতে চাই না। তবে ইতোপূর্বে সরকারের উপরস্থ কর্মকর্তা ও পুলিশ প্রশাসন আমাকে যথেষ্ট সহযোগীতা করেছে।

সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ইতিপূর্বের ম্যারাথনে আমার দুই লাখ টাকা প্রাইজমানি বাকি আছে। আমি এই টাকা দিতে পারিনি। এছাড়া সারা বাংলাদেশে আমার যে রানিং কমিউনিটি আছে তারা মনে করছে যে আমি সব টাকা খেয়ে ফেলেছি, কিন্তু আসলে তা নয়। আমি এক জায়গা থেকে মাত্র ৪ লাখ টাকা আনতে পেরেছিলাম।

তিনি বলেন, গত ম্যারাথনে তিনদিন ৭৫ জন রানারের খাওয়া দাওয়া বাবদ বিল বাকি আছে। আমি ওই টাকাও এখনও দিতে পারিনি। এই অবস্থায় আমি সবকিছুর সমাধান চেয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সহযোগীতার চাইছি।

বাংলাদেশ সময়: ১৫৫৮ ঘণ্টা, জানুয়ারি ২৫, ২০২২
এসজেএ/আরইউ

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa