ঢাকা, শনিবার, ৯ কার্তিক ১৪২৭, ২৪ অক্টোবর ২০২০, ০৬ রবিউল আউয়াল ১৪৪২

খেলা

তামিমদের জয়ে বিফলে মুশফিকের সেঞ্চুরি

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, স্পোর্টস | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২৩২৫ ঘণ্টা, অক্টোবর ১৫, ২০২০
তামিমদের জয়ে বিফলে মুশফিকের সেঞ্চুরি খেলা শেষে বিদায় নিচ্ছেন ক্রিকেটারা। ছবি: শোয়েব মিথুন

বিসিবি প্রেসিডেন্টস কাপের তৃতীয় ম্যাচে জয় পেয়েছে তামিম একাদশ। নাজমুল একাদশকে ৪২ রানে হারিয়ে টুর্নামেন্টে নিজেদের প্রথম জয় তুলে নেয় তামিমের দল।



রাজধানীর মিরপুর শেরে-বাংলা স্টেডিয়ামে আগে ব্যাট করে শেখ মেহেদি হাসানের অর্ধশতকে নির্ধারিত ৫০ ওভারে ৯ উইকেটে ২২১ রান করে তামিম একাদশ। জবাবে ব্যাট করতে নেমে মুশফিকুর রহিমের সেঞ্চুরির পরও ১৭৯ রানে অলআউট হয় নাজমুল একাদশ।

২২২ রানের টার্গেটে ব্যাট করতে নেমে সাইফ হাসান ব্যক্তিগত ৭ রান করে আউট হন। দলীয় ১৪ রানে নাজমুল হোসেন শান্ত (১) বিদায় নেন। সৌম্য সরকার তার স্বাভাবিক ব্যাটিংটা করতে পারেননি। টেস্ট মেজাজে ৪৭ বলে ৯ রান করে তিনিও প্যাভিলিয়নের পথ ধরেন। ৩০ রানে ৩ উইকেট হারায় নাজমুল একাদশ। এরপর  আফিফ হোসেন (১৫) ও তৌহিদ হৃদয় (৪) আউট হলে ৭৪ রানে ৫ উইকেট হারিয়ে চাপে পড়ে যায় নাজমুল একাদশ। তবে একপ্রান্ত আগলে ঠিকই দলের জয়ের আশা বাঁচিয়ে রাখেন মুশফিকুর রহিম। তুলে নেন অর্ধ শতক। তবে রানের রেটটা ধীরে ধীরে বাড়তে থাকে। ষষ্ঠ উইকেটে জুটিতে ইরফান শুক্কুরকে সঙ্গে নিয়ে ৫৯ রান যোগ করেন।

ইরফান ২৪ রান করে রান দলীয় ১৩৩ রানের মাথায় আউটের শিকার হন। এরপর নাঈম হাসান (০) ও রিশাদ আহমেদ (০) দ্রুত বিদায় নিলে ১৩৪ রানে ৮ উইকেট হারিয়ে ম্যাচ থেকে প্রায় ছিটকে যায় নাজমুল একাদশ।

তবে একপাশে থেকে মুশফিক দলের জয়ের আশা বাঁচিয়ে রাখেন। তাসকিনকে সঙ্গে নিয়ে একাই লড়াই চালিয়ে যান মুশফিক। দারুণ এক সেঞ্চুরি তুলে নেন মিস্টার ডিপেন্ডেবল। তবে শেষ পর্যন্ত ১০৩ রান করে মোস্তাফিজের বলে মুশফিক আউট শেষ হয়ে যায় নাজমুল একাদশের জয়ের আশা।

৪৫.৪ ওভারে ১৭৯ রানে অলআউট হয় নাজমুল একাদশ। তামিম একাদশের মোস্তাফিজুর রহমান ৩টি, শরিফুল ইসলাম ৪টি, মোহাম্মদ সাইফউদ্দিন ২টি উইকেট।

এর আগে টস হেরে ব্যাট করতে নেমে দলীয় ১৪ রানে সাজঘরে ফেরত যান তানজীদ হাসান তামিম। এরপর নাজমুল একাদশের নিয়ন্ত্রিত বোলিংয়ের সামনে নিয়মিত বিরতিতে উইকেট হারাতে থাকে তামিম একাদশ। এনামুল হক বিজয় (১২), মোহাম্মদ মিঠুন (৪), তামিম ইকবাল (৩১) রানে আউট হলে ৬৫ রানে ৪ উইকেট হারায় তামিমের দল। পঞ্চম উইকেট জুটিতে শাহাদাত হোসেন দিপু ও মোসাদ্দেক হোসেন ৪০ রানের জুটি গড়ে ভালো স্কোর গড়তে চেষ্টা করেন। কিন্তু এরপর মোসাদ্দেক (১২), দিপু (৩১), আকবর আলী (২) ও মোহাম্মদ সাইফউদ্দিন (৩) দ্রুত বিদায় নিলে ১২৫ রানে ৮ উইকেট হারায় তামিম একাদশ।  

৪৩.৩ ওভারে ৮ উইকেটে ১৫৪ রান তোলার পর বৃষ্টির কারণে খেলা বন্ধ হয়ে যায়। প্রায় ঘণ্টা খানেক বন্ধ থাকার পর আবার খেলা শুরু হয়। অষ্টম উইকেটে শেখ মেহেদি হাসান ও তাইজুল ইসলামের ৫০ রানের জুটি লড়াকু পুঁজি গড়তে সহায়তা করে দলকে।  

দারুণ এক অর্ধ শতক তুলে নেন মেহেদী। তার ঝড়ো ব্যাটিংয়ে শেষ পর্যন্ত তামিম একাদশ ৯ উইকেটে ২২১ রান করে। ইনিংসের শেষ ওভারে মেহেদি ৫৮ বলে ৮২ রানের ইনিংস খেলে আউট হলে ৯৫ রানের নবম উইকেট জুটি ভাঙে। নাজমুল একাদশের আল আমিন হোসেন ৩টি, নাঈম হাসান ও রিশাদ আহমেদ ২টি এবং মুকিদুল ইসলাম মুগ্ধ ১টি উইকেট নেন।

বাংলাদেশ সময়: ২৩১১ ঘণ্টা, অক্টোবর ১৫, ২০২০
আরএআর/এএটি

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa