ঢাকা, রবিবার, ১০ শ্রাবণ ১৪২৮, ২৫ জুলাই ২০২১, ১৪ জিলহজ ১৪৪২

ফুটবল

অক্টোবরে নিরপেক্ষ ভেন্যুতে শুরু বসুন্ধরা কিংসের এএফসি মিশন

| বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৯৫৯ ঘণ্টা, জুন ৬, ২০২০
অক্টোবরে নিরপেক্ষ ভেন্যুতে শুরু বসুন্ধরা কিংসের এএফসি মিশন .

করোনা মহামারির কারণে বাংলাদেশের সব ধরনের ফুটবল তিন মাসেরও বেশি সময় স্থগিত রয়েছে। প্রিমিয়ার লিগ তো বাতিলই হয়ে গেল। তবে আগামী অক্টোবর থেকে শুরু হবে স্থগিত হওয়া এএফসি কাপের খেলা। বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগের বর্তমান চ্যাম্পিয়ন বসুন্ধরা কিংসের মিশনও শুরু হবে সে সময়। তবে ম্যাচগুলো হবে নিরপেক্ষ ভেন্যুতে।

এশিয়ান ফুটবল কনফেডারেশন (এএফসি) দক্ষিণ এশিয়ান অঞ্চলের চারটি দলের প্রতিনিধি নিয়ে টুর্নামেন্টের ভেন্যু, খেলোয়াড়দের চুক্তি ও শিডিউল নিয়ে আলোচনার পর এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। জুনের মধ্যেই ভেন্যু চূড়ান্ত করে এএফসি তা জানিয়ে দেবে।

বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশনের (বাফুফে) সাধারণ সম্পাদক আবু নাঈম সোহাগ বলেন, ‘এএফসির সভায় তিন-চার ক্লাবই একটা বিষয়ে একমত হয়েছে যে, এএফসি কাপের বাকি ম্যাচগুলো হোম অ্যান্ড অ্যাওয়ে পদ্ধতিতে বিভিন্ন দেশে গিয়ে খেলা সম্ভব নয়। ম্যাচের সংখ্যা না কমিয়ে এবং ফরম্যাট ঠিক রেখে একটি নিরপেক্ষ ভেন্যুতে খেলা যেতে পারে। বাংলাদেশ থেকে বলা হয়েছে, ভিসা জটিলতা ছাড়াও করোনার কারণে ভারতে যেতে চাচ্ছে না বসুন্ধরা কিংস। সম্ভাব্য ভেন্যু হিসেবে মালয়েশিয়াকে বিবেচনা করা হচ্ছে। আগামী ১৫ দিনের মধ্যে ভেন্যু নিয়ে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত পাওয়া যাবে এএফসির কাছ থেকে। ’

এদিকে বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগে এবারের মৌসুম বাতিল করা হয়েছে। ক্লাবের সঙ্গে ফুটবলারদের চুক্তির মেয়াদও শেষের দিকে। তাই ফুটবলার নিবন্ধনের জন্য নতুন উইনডো খোলার প্রস্তাব দিয়েছেন বসুন্ধরা কিংসের সভাপতি ইমরুল হাসান। এতে ইতিবাচক সাড়াও দিয়েছে এএফসি।

বসুন্ধরা কিংসের সভাপতি বলেন, ‘আমরা আর্জেন্টিনার বার্কোসকে রেখে দেবো। কলিনদ্রেস যদি সেপ্টেম্বর থেকে চুক্তিবদ্ধ হতে রাজই হয় তাহলে তাকেও রেখে নেবো। তবে ভালো বিদেশি পেলে বাদ দেবো আর্জেন্টিনার দেলমন্তে, তাজিকিস্তানের নাজারভ এবং কিরগিজস্তানের বখতিয়ারকে’

বাংলাদেশ সময়: ১৯৫৯ ঘণ্টা, জুন ০৬, ২০২০
আরএআর/এমএইচএম 

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa