ঢাকা, মঙ্গলবার, ৬ আশ্বিন ১৪২৭, ২২ সেপ্টেম্বর ২০২০, ০৩ সফর ১৪৪২

ক্রিকেট

বিরতির সময় ঘরেই নিজেকে ফিট রেখেছেন স্মিথ

স্পোর্টস ডেস্ক | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৪৩৬ ঘণ্টা, জুন ১, ২০২০
বিরতির সময় ঘরেই নিজেকে ফিট রেখেছেন স্মিথ স্টিভেন স্মিথ

করোনা ভাইরাস আতঙ্ককে পেছনে ফেলে অনুশীলনে ফিরেছে অস্ট্রেলিয়া জাতীয় ক্রিকেট দল। জাতীয় দলের শীর্ষ ক্রিকেটারদের নিয়ে শুরু হয়েছে অনুশীলন ক্যাম্প। সোমবার (০১ জুন) অস্ট্রেলিয়ার সিডনি অলিম্পিক পার্কে এই ক্যাম্পে যোগ দিয়েছেন স্টিভেন স্মিথ। এসময় তিনি জানিয়েছেন, দুই মাসের এই বিরতিতে তিনি ভালোভাবেই নিজেকে ফিট রেখেছেন এবং মাঠে ফিরতে তার কোনো সমস্যা হবে না।

স্মিথ ছাড়াও ডেভিড ওর্য়ার্নার এবং মিচেল স্টার্কও ঘরোয়া ক্রিকেট শুরু হওয়ার আগে প্রাক-মৌসুম ক্যাম্পে যোগ দেওয়ার জন্য রিপোর্ট করেছেন। ‘ক্লোজড ডোর’ বা দরজা বন্ধ রেখেই অনুশীলন শুরু হয়েছে অজিদের।

কম করোনা ভাইরাস সংক্রমিত দেশগুলোর মধ্যে অস্ট্রেলিয়া অন্যতম। এখন পর্যন্ত দেশটির ৭ হাজার মানুষ করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন আর মারা গেছেন ১০৩ জন।  

অস্ট্রেলিয়ার সংবাদমাধ্যম সিডনি মর্নিং হেরাল্ডে স্মিথ বলেছেন, ‘সম্ভবত আমি এই বছরের সেরা সময়ে আছি। বাসায় অনেক রানিং ও জিম করেছি। এই দুই মাসে আমি কঠোর পরিশ্রম করেছি। ’

আন্তর্জাতিক মৌসুমের জন্য এই সপ্তাহে ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া (সিএ) তাদের সূচি চূড়ান্ত করেছে যেটা আগামী ০৯ আগস্ট থেকে শুরু হবে। স্মিথ জানিয়েছেন, লকডাউনের কারণে বিরতির এই গত দুই মাস ব্যাট হাতে নিতে পারেননি। যার কারণে শারীরিক ও মানসিকভাবে নিজেকে প্রস্তুত করতে বাধ্য করেছি। ’ 

স্মিথ বলেন, ‘সত্যিই আমি ব্যাট হাতে নিতে পারিনি। বাসায় নিজে কিছু ড্রিল করেছি, এরচেয়ে বেশি কিছু না। তাই আমি ব্যাটিং অনুশীলন বন্ধ করে রেখেছিলাম। যার কারণে মানসিকভাবে নিজেকে প্রস্তুত রাখার দিকে বেশি মনযোগী হতে বাধ্য হয়েছি। ’

ইংল্যান্ড ও শ্রীলঙ্কার জাতীয় ক্রিকেট দলও সোমবার জীবাণুমুক্ত পরিবেশে অনুশীলনে ফিরেছে। স্মিথ ২০১৯ সালের কঠিন সময় পার করার জন্য এটাকে স্বাগত জানিয়েছেন।

তিনি বলেন, ‘এটা একটু ভিন্নভাবে বিবেচনা করা হবে। তবে আমি নিশ্চিত যে, বিশ্বকাপ ও অ্যাশেজের আগে এই জিনিসটা ভালো হবে নিজেদের উজ্জীবিত রাখার জন্য। ’ 

চলমান স্বাস্থ্য সংকটের কারণে ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়ার (সিএ) আর্থিক ব্যবস্থার ওপর ব্যাপক প্রভাব পড়েছে। যার কারণে তারা প্রায় ২০০ কর্মীকে ছাটাই করেছে। আগামী অক্টোবর-নভেম্বরে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের অনিশ্চয়তার কারণে এই আর্থিক সংকট দূর করার জন্য অস্ট্রেলিয়াকে আগামী ডিসেম্বরে ভারতের বিপক্ষে সিরিজের দিকে তাকিয়ে থাকতে হবে।

বাংলাদেশ সময়: ১৪৩৫  ঘণ্টা, জুন ০১, ২০২০
আরএআর/ইউবি

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa