bangla news

করোনা: বেতনের ৭০ শতাংশ কম নিচ্ছেন মেসিরা

স্পোর্টস ডেস্ক | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০২০-০৩-৩০ ৭:০৩:০৪ পিএম
লিওনেল মেসি-ছবি: সংগৃহীত

লিওনেল মেসি-ছবি: সংগৃহীত

করোনা ভাইরাসের প্রাদুর্ভাবের কারণে আপাতত স্থগিত স্পেনের সবধরনের ফুটবল। এ কারণে স্বাভাবিকভাবেই বিশাল অঙ্কের আর্থিক ক্ষতির মুখে পড়েছে বার্সেলোনা। এই ক্ষতি পুষিয়ে নিতে খেলোয়াড়দের বেতন থেকে ৭০ শতাংশ কেটে রাখার প্রস্তাব দিয়েছিল বার্সেলোনা।

শুরুতে না হলেও অবশেষে ক্লাবের প্রস্তাবে রাজি হয়েছেন মেসি ও তার সতীর্থরা। বার্সা অধিনায়ক নিজেই এই সিদ্ধান্তের কথা জানিয়েছেন। ক্লাবের কর্মকর্তা ও কর্মচারীদের বেতন নিশ্চিত করতেই ক্লাবের প্রস্তাব মেনে নেওয়ার কথা জানিয়েছেন তিনি।

করোনা ভাইরাসের কারণে সৃষ্ট পরিস্থিতিতে পুরো স্পেন এখন লকডাউন করা হয়েছে। ফলে আয় বন্ধ হয়ে গেছে সব ক্লাবের। এ অবস্থায় বিপুল পরিমাণ অর্থ গচ্চা দিতে হচ্ছে বার্সাকে। এক রিপোর্টে দাবি করা হয়েছে, এভাবে চলতে থাকলে চলতি মৌসুমে প্রায় ১০০ মিলিয়ন ইউরোর আর্থিক লোকসান হবে কাতালান জায়ান্টদের।

ক্ষতি পোষাতে শুরু থেকেই খেলোয়াড়দের বেতন কাটার সিদ্ধান্ত নেয় বার্সা কর্তৃপক্ষ। এছাড়া ক্লাবের অন্যান্য খরচও কমিয়ে আনার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। কিন্তু ক্লাবের এই প্রস্তাবে তখন 'না' করে বসেন মেসিরা। তবে দেরিতে হলেও ক্লাবের প্রস্তাব মেনে নিয়েছেন তারা।

ক্লাবের সিদ্ধান্ত মেনে নেওয়ার বিষয়ে ইনস্টাগ্রামে মেসি লিখেছেন, 'রাষ্ট্রীয় জরুরি অবস্থার মধ্যে বার্সার মূল দলের বেতন সংক্রান্ত অনেক আলোচনাই হয়েছে। অন্য কিছু ঘটার আগে আমরা এটা নিশ্চিত করতে চাই যে, আমরা শুরু থেকেই বেতন কাটার ব্যাপারে সম্মত ছিলাম। কারণ আমরা জানি যে এটা একটা ভিন্ন পরিস্থিতি এবং ক্লাবের এই জরুরি মুহূর্তে আমরাই শুরুতে এগিয়ে এসেছি।'

বার্সার আর্জেন্টাইন অধিনায়ক আরও লেখেন, 'এমনকি যখন প্রয়োজন মনে করেছি আমরা অনেক সময় এই দায়িত্ব নিজেদের কাঁধেও তুলে নিয়েছি। শুধু তাই না, সমঝোতা করতে কিছুটা দেরি হয়েছে কারণ এই কঠিন সময়ে আমরা ক্লাব এবং এর কর্মচারীদের সাহায্য করার উপায় খুঁজছিলাম। আমাদের পক্ষ থেকে, এখন ঘোষণা দেওয়ার সময় হয়েছে যে, আমরা আমাদের বেতনের ৭০ শতাংশ ছাড় দিতে রাজি আছি যাতে ক্লাবের কর্মচারীরা ১০০ শতাংশ আয় করতে পারে।'

'আমরা শুভকামনা না জানিয়ে সরে যেতে চাই না। বার্সা সমর্থকরা যে কঠিন সময়ের মধ্য দিয়ে যাচ্ছে এবং যারা এই কঠিন সময় শেষ হওয়ার জন্য অপেক্ষায় আছেন তারা যেন ধৈর্য ধারণ করার শক্তি পায় সেই কামনা জানাচ্ছি। আমরা শিগগিরই এই কঠিন সময় পার করতে যাচ্ছি এবং আমরা এটা একসঙ্গেই করব,' শেষ করেন মেসি।

স্পেনে করোনা ভাইরাসে এখন পর্যন্ত ৮৫ হাজারের বেশি মানুষ আক্রান্ত হয়েছে। যেখানে প্রাণঘাতী কোভিড-১৯ রোগে ৭ হাজারের বেশি মৃত্যুর ঘটনা ঘটেছে।

বাংলাদেশ সময়: ১৯০২ ঘণ্টা, মার্চ ৩০, ২০২০
এমএইচএম/এমএমএস

ক্লিক করুন, আরো পড়ুন :   ফুটবল বার্সেলোনা মেসি করোনা ভাইরাস
        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
cache_14 2020-03-30 19:03:04