bangla news

সেই কেপটাউনে সিরিজ জয়ের উৎসব করলেন স্মিথ-ওয়ার্নার

স্পোর্টস ডেস্ক | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০২০-০২-২৭ ১:৩১:৩১ পিএম
শিরোপা উৎসব করছে অস্ট্রেলিয়ার খেলোয়াড়রা/ছবি: সংগৃহীত

শিরোপা উৎসব করছে অস্ট্রেলিয়ার খেলোয়াড়রা/ছবি: সংগৃহীত

দুই বছর আগে কেপটাউনের যে মাঠে বল টেম্পারিং করে নিষিদ্ধ হতে হয়েছিল, সেই একই মাঠে এবার স্বাগতিক দর্শকদের সামনে প্রোটিয়া বোলারদের কচুকাটা করলেন ডেভিড ওয়ার্নার ও স্টিফেন স্মিথ। বুধবার এই দুজনের ব্যাটে ভর করেই দক্ষিণ আফ্রিকাকে ৯৭ রানে হারিয়ে ২-১ ব্যবধানে সিরিজ জিতে নিয়েছে অস্ট্রেলিয়া।

সর্বশেষ ২০১৮ সালের মার্চে যেবার কেপটাউনের নিউল্যান্ডসে খেলতে গিয়ে ক্যারিয়ারে কালো লাগ লাগিয়ে ফিরেছিলেন ডেভিড ওয়ার্নার ও স্মিথ। বল টেম্পারিংয়ের মতো কাণ্ড ঘটিয়ে অস্ট্রেলিয়া ক্রিকেটের ইতিহাসে সবচেয়ে লজ্জাজনক অধ্যায়ের জন্ম দিয়েছিলেন। সঙ্গী হয়েছিলেন ক্যামেরন বেনক্রফটও। পরে অবশ্য নিষেধাজ্ঞা কাটিয়ে ফিরেছেন সবাই।

সিরিজের তৃতীয় টি-টোয়েন্টিতে প্রথমে ব্যাট করে অস্ট্রেলিয়া ৫ উইকেট হারিয়ে ১৯৩ রান সংগ্রহ করে অস্ট্রেলিয়া। দলের বিশাল সংগ্রহে ব্যাট হাতে ৩৭ বলে ৫৭ রান করেছেন ওয়ার্নার। জবাব দিতে নেমে এর ধারেকাছেও যেতে পারেনি দক্ষিণ আফ্রিকা।

জবাব দিতে নামা দক্ষিণ আফ্রিকার অধিনায়ক কুইন্টন ডিক কককে প্রথম ওভারেই মাত্র ৫ রানে বিদায় করে শুরুটা করেন অজি ফাস্ট বোলার মিচেল স্টার্ক। এরপর তৃতীয় ওভারে সাবেক প্রোটিয়া অধিনায়ক ফাফ ডু প্লেসিকেও (৫) দৃশ্যপট থেকে সরিয়ে দেন এই বাঁহাতি গতি দানব। 

প্রোটিয়াদের শেষ উইকেট (কাগিসো রাবাদা) তুলে নেন স্টার্ক আর তাতেই ১৫.৩ ওভারে ৯৬ রানে শেষ স্বাগতিকদের ইনিংস। এর মাঝে স্পিনার অ্যাশটন আগার (১৬ রানে ৩ উইকেট) ও অ্যাডাম জাম্পা (১০ ওভারে ২ উইকেট) দক্ষিণ আফ্রিকার ব্যটিং লাইনআপকে ধসিয়ে দিতে রাখেন বড় ভূমিকা। 

এর আগে ওয়ার্নার ও অ্যারন ফিঞ্চ ওপেনিং জুটিতেই তুলে ফেলেন ১২০ রান। এর মধ্যে অজি অধিনায়কের ব্যাট থেকে আসে ৩৭ বলে ৫৫ রান। 

দক্ষিণ আফ্রিকার জন্য সময়টা আসলেই খারাপ যাচ্ছে। এর আগে চলতি বছরের শুরুতে ইংল্যান্ডের কাছে ঘরের মাটিতে টি-টোয়েন্টি সিরিজ হারার পর ওয়ানডে সিরিজ ড্র করেছে দলটি। এখন অজিদের বিপক্ষে ওয়ানডে সিরিজকেই পাখির চোখ করতে হবে মার্ক বাউচারের শিষ্যদের।

অন্যদিকে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের আগে এই সিরিজ জয় অজিদের জন্য আত্মবিশ্বাস বাড়ানোর ক্ষেত্রে দারুণ ভূমিকা রাখবে সন্দেহ নেই। তাছাড়া অক্টোবর এবং নভেম্বরে বিশ্বকাপের আসর বসবে অজিদের ঘরেই। 

তবে এই জয়টা বল টেম্পারিংয়ের স্মৃতি হয়ত পুরোপুরি মুছে দিতে পারবে না, তবে ওয়ার্নার ও স্মিথের জন্য কিছুটা স্বস্তি অন্তত দিতে পারবে। অস্ট্রেলিয়া ইনিংসের শেষদিকে ৩০ রানের গুরুত্বপূর্ণ ইনিংস খেলেছেন স্মিথ। শেষ ওভারে ২ ছক্কা মেরেছেন তিনি আর ওই ওভারে এসেছে ২০ রান।

বাংলাদেশ সময়: ১৩৩০ ঘণ্টা, ফেব্রুয়ারি ২৭, ২০২০
এমএইচএম

        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
cache_14 2020-02-27 13:31:31