bangla news

টেস্টের স্বাদ পেল বিশ্বকাপজয়ী যুবারা

স্পোর্টস ডেস্ক | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০২০-০২-১৮ ৬:১০:৫৪ পিএম
ছবি: শোয়েব মিথুন

ছবি: শোয়েব মিথুন

বাংলাদেশের বিপক্ষে সফরের একমাত্র টেস্ট ম্যাচের আগে বিসিবি একাদশের বিপক্ষে বিকেএসপিতে প্রস্তুতি ম্যাচ খেলছে জিম্বাবুয়ে। দলটির মূল দলের প্রায় সবাই এই দলে খেললেও বাংলাদেশ টেস্ট দলে সুযোগ পাওয়া কোনো খেলোয়াড়কে রাখা হয়নি বিসিবি একাদশে।

জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে বিসিবি একাদশে আছেন কিছুদিন অনূর্ধ্ব-১৯ বিশ্বকাপজয়ী দলের ৬ সদস্য। বিশ্বজয়ী দলের অধিনায়ক আকবর আলীর সঙ্গে দলে আছেন পারভেজ হোসেন ইমন, মাহমুদুল হাসান জয়, শরিফুল ইসলাম, শাহাদাত হোসেন ও তানজিদ হাসান তামিম আছেন এই দলে। এর মধ্যে তানজিদ আছেন দ্বাদশ ব্যক্তি হিসেবে। বিশ্বকাপ জেতার পর এই ম্যাচ দিয়ে টেস্টের স্বাদ পেল যুবারা।

.কিন্তু যে দলটি ২২ ফেব্রুয়ারি একমাত্র টেস্টে সফরকারী জিম্বাবুয়ের মুখোমুখি হবে, সেই দলের কেউই খেলছেন না প্রস্তুতি ম্যাচে। অবশ্য একদিন আগেই বাংলাদেশ ক্রিকেট লিগের (বিসিএল) তৃতীয় রাউন্ডের ম্যাচ শেষ হওয়ায় খেলার সুযোগও ছিল না। তবে বিশ্বকাপজয়ী তরুণরা সুযোগটা কাজে লাগিয়ে নতুন অভিজ্ঞতা নিতে পারছেন। কারণ এর আগে সিনিয়র কোনো দলের বিপক্ষে মাঠে নামার সুযোগ হয়নি তাদের।

দিনের প্রথম সেশনে বিনা উইকেটে ৯৫ রান তুলে ফেলেছিল জিম্বাবুয়ে। মাঝে ৫ রানেই ৩ উইকেট তুলে নিয়ে সফরকারীদের ভালোই ধাক্কা দিয়েছিলেন বিসিবি একাদশের অফ স্পিনার শাহাদাত হোসেন। উইকেট দখলে যোগ দিয়েছিলেন আল-আমিন জুনিয়র ও শরিফুল ইসলামও। কিন্তু শেষ পর্যন্ত আর দিনটা স্বাগতিকদের দখলে থাকেনি। 

.সফরের একমাত্র টেস্টের আগে বিসিবি একাদশের সঙ্গে দু’দিনের প্রস্তুতিমূলক ম্যাচ খেলছে জিম্বাবুয়ে। সাভারে বিকেএসপি’র তিন নম্বর মাঠে এই ম্যাচের প্রথমদিনে খেলার শুরুতে স্পষ্ট আধিপত্য ছিল জিম্বাবুয়ের। ১ উইকেট হারানোর আগেই দলটি সংগ্রহ করে ১০৫ রান। ওপেনার প্রিন্স মাসভরে ৪৫ রান করে আল-আমিনের শিকার হলে ভাঙে এই উদ্বোধনী জুটি।

মাসভরে বিদায় নেওয়ার পর মাঠ ছাড়েন কাসুভা। ২০ রান যোগ হতেই অধিনায়ক গ্রেইগ আরভিনকে সুমন খানের ক্যাচ বানিয়ে প্রথম উইকেটের দেখা পান শাহাদাত। ৪ রানের মধ্যে ব্রায়ান মুদজিঙ্গানায়ামাকে ফেরান শরিফুল। এরপর ফের ঘুরে দাঁড়াতে শুরু করা জিম্বাবুয়ের চাকাভা ও মুতুমবোজিকে এলবিডব্লুর ফাঁদে ফেলেন শাহাদাত।

.এদিকে ১৪৬ রান ৫ উইকেট হারানো জিম্বাবুয়ের হাল ধরতে মাঠে ফিরে আসেন কাসুজা। তবে ৫১ রানে অপরাজিত থেকে মাঠ ছাড়া এই ওপেনার ফিরে এসে শেষ পর্যন্ত ৭০ রান করে রান আউট হয়ে ফেরেন। এরপর দলকে ২২৬ রানে রেখে আল-আমিনের শিকার হয়ে বিদায় নেন মারুমা (৩৪)।

টানা আঘাতে জর্জরিত জিম্বাবুয়ে দিনের শেষে ফের ঘুরে দাঁড়ায় কার্ল মুম্বা এবং আইনস্লে এনলভু। দুজনের অবিচ্ছিন্ন ৬৫ রানের জুটিতে ভর করে দিনশেষে ৭ উইকেট হারিয়ে জিম্বাবুয়ের সংগ্রহ ২৯১ রান। ৫৪ রানে অপরাজিত আছেন মুম্বা আর এনলভু অপরাজিত আছেন ২৫ রান নিয়ে।

.বাংলাদেশ সময়: ১৮১০ ঘণ্টা, ফেব্রুয়ারি ১৮, ২০২০
এমএইচএম

ক্লিক করুন, আরো পড়ুন :   ক্রিকেট
        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
cache_14 2020-02-18 18:10:54