bangla news

যুব বিশ্বকাপজয়ী শাহীন আলমকে বরণ করল কুড়িগ্রামবাসী

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০২০-০২-১৪ ৯:৫৮:০৫ পিএম
ছবি: বাংলানিউজ

ছবি: বাংলানিউজ

কুড়িগ্রাম: ফাল্গুনের প্রথম দিনে নিজ জেলার মানুষের ভালোবাসার ফুলের মালা গলায় দিয়ে বীরের বেশে জন্মভূমি কুড়িগ্রামে ফিরলেন অনূর্ধ্ব-১৯ বিশ্বকাপজয়ী ক্রিকেটার শাহীন আলম।

দক্ষিণ আফ্রিকার পচেফস্ট্রমে গত ৯ ফেব্রুয়ারি যুব বিশ্বকাপের ফাইনালে ভারতকে ৩ উইকেটে হারিয়ে প্রথমবারের মতো বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন হয়েছে বাংলাদেশ অনূর্ধ্ব-১৯ দল। এই দলের সদস্য শাহীন আলম এখন কুড়িগ্রামবাসীর চোখের মণি।

শুক্রবার (১৪ ফেব্রুয়ারি) দুপুরে ঢাকা থেকে কুড়িগ্রামে এসে পৌঁছান শাহীন। এসময় হাজারো ক্রিকেট ভক্ত ও সমর্থক তাকে ফুলের মালা দিয়ে বরণ করে নেয়।

কুড়িগ্রামের কলেজ মোড়ে অবস্থিত স্বাধীনতার বিজয় স্তম্ভে ফুল দিয়ে বীর মুক্তিযোদ্ধাদের প্রতি শ্রদ্ধা জ্ঞাপন করেন শাহীন আলম। পরে কুড়িগ্রাম জেলা ক্রীড়া সংস্থাসহ জেলার বিভিন্ন সংগঠনের পক্ষ থেকে তাকে সংবর্ধনা দেয়া হয়।

এরপর শাহীনকে বহনকারী গাড়ি শহর প্রদক্ষিণ করে। এসময় রাস্তার দু’পাশে দাঁড়িয়ে অসংখ্য মানুষ হাত নেড়ে তাকে শুভেচ্ছা জানায়। সবার ভালোবাসায় সিক্ত হয়ে উলিপুর উপজেলার যমুনা পাইক পাড়া গ্রামের নিজ বাড়িতে হাজির হন। নিজ গ্রামে পৌঁছানোর পর গ্রামবাসীরা তাদের কৃতি সন্তানকে একনজর দেখতে ভিড় জমায়। 

.সবার ভালোবাসা পেয়ে আপ্লুত শাহীন বলেন, বিশ্বকাপজয়ী ক্রিকেট দলের সদস্য হয়ে নিজেকে গর্বিত মনে করছি। আমরা বিশ্বকাপ জয় করে বাংলাদেশে আসার পর প্রধানমন্ত্রীসহ দেশের মানুষ আমাদেরকে যে সংবর্ধনা দিয়েছে এটা ভোলার মতো নয়। এলাকাবাসীসহ দেশের মানুষের কাছে দোয়া চাই আগামীতে যেন আরো ভালো কিছু করতে পারি।

এসময় উপস্থিত ছিলেন জালাল উদ্দিন লাইজু, মানবিক কুড়িগ্রামের সভাপতি ফিরোজ আহমেদ, ক্রীড়া সংগঠক মামুনুর রশিদসহ আরও অনেকে।

ক্রিকেটার শাহীন যমুনা পাইকপাড়া গ্রামের দিনমজুর শাহাদত হোসেনের ছেলে। তিন ভাইবোনের মধ্যে শাহীন সবার ছোট। মা সাতিনা বেগম একজন গৃহিনী। মাত্র দুই শতক জমির উপর তাদের বাড়ি। তবে এখন সব ছাপিয়ে এই পরিবার অনেক বড় স্বপ্ন দেখছে শাহীনকে ঘিরে।

বাংলাদেশ সময়: ২১৫৭ ঘণ্টা, ফেব্রুয়ারি ১৪, ২০২০
এমএইচএম

ক্লিক করুন, আরো পড়ুন :   ক্রিকেট
        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
cache_14 2020-02-14 21:58:05