bangla news

রান বন্যার ম্যাচে নিউজিল্যান্ডকে হারালো ভারত

স্পোর্টস ডেস্ক | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০২০-০১-২৪ ৪:৪৭:১৯ পিএম
ভারতের উইকেট উদযাপন: ছবি-সংগৃহীত

ভারতের উইকেট উদযাপন: ছবি-সংগৃহীত

টসে হেরে ব্যাটিংয়ে নেমে ৫ ‍উইকেটে ২০৩ রান করেছিল নিউজিল্যান্ড। কিন্তু এত রানের সংগ্রহ সত্ত্বেও জয়ের মুখে দেখেনি কিউইরা। ২০৫ রানের লক্ষ্যে ব্যাট করতে নেমে ৬ বল ও ৬ উইকেট হাতে রেখে জয় তুলে নিয়েছে ভারত। ১৯ ওভারে ৪ উইকেটে ২০৪ রান করে বিরাট কোহলির দল। 

এই জয়ে কিউইদের মাটিতে পাঁচ ম্যাচ টি-টোয়েন্টি সিরিজে ১-০ ব্যবধানে এগিয়ে গেলো টিম ইন্ডিয়া। সেই সঙ্গে রেকর্ড চতুর্থবারের মতো টি-টোয়েন্টিতে দুইশ রান তাড়া করে জিতলো ভারত। দুইবার জিতেছে অস্ট্রেলিয়া।  

বিশাল রান তাড়া করতে নেমে শুরুতেই অবশ্য ওপেনার রোহিত শর্মাকে (৭) হারিয়েছিল ভারত। তবে চাপটাকে জয় করে নেন লোকেশ রাহুল ও বিরাট কোহলি। দুজনের ৯৯ রানের জুটিতে জয়ের দিকে বেশ ভালভাবেই এগিয়ে যাচ্ছিল ভারত। 

তবে দলীয় ১১৫ রানে রাহুল ও ১২১ রানে কোহলিকে আউট করে ম্যাচে ফিরতে চেষ্টা করে কিউইরা। উইকেটরক্ষক রাহুল ২৭ বলে ৪ চার ও ৩ ছ্ক্কায় ৫৬ রান করে আউট হোন ইশ সোধির বলে। অধিনায়াক কোহলিকে (৪৫) মার্টিন গাপটিলের হাতে ক্যাচ বানান ব্লেইর টিকনার। 

এরপর সোধির দ্বিতীয় শিকারে পরিণত হোন শিভম দুবে (১৩)। হঠাৎ আসা চাপটা শক্ত হাতে সামাল দেন শ্রেয়াস আয়ার ও মনীষ পাণ্ডে। দুজনের ৬২ রানের জুটিতে জয়ের বন্দরে পৌঁছে যায় ভারত। ম্যাচ সেরা হওয়া শ্রেয়ার ২৯ বলে ৫ চার ও ৩ ছক্কায় অপরাজিত ছিলেন ৫৮ রান। ১৪ রান করেন পাণ্ডে। 

এর আগে শুক্রবার (২৪ জানুয়ারি) অকল্যান্ডের ইডেন পার্কে ব্যাটিংয়ে নেমে শুরুটা দুর্দান্ত করেছিল কিউইরা। ওপেনিং জুটিতেই স্কোরবোর্ডে ৮০ রান জমা করেন গাপটিল (৩০) ও কলিন মুনরো (৫৯)। দুজনের বিদায়ের পর কিউইদের বড় সংগ্রহের পথে নিয়ে যান অধিনায়ক কেন উইলিয়ামসন (৫১) ও রস টেইলর। মাঝখানে কলিন ডি গ্রান্ডহোম শূন্যরানে ফিরলেও রানের চাকা সচল রাখেন টেইলর। ২৭ বলে ৩ চার  ও ৩ ছ্ক্কায় ৫৪ রানে অপরাজিত ছিলেন তিনি।  

বাংলাদেশ সময়: ১৬৪৬ ঘণ্টা, জানুয়ারি ২৪, ২০২০
ইউবি 

ক্লিক করুন, আরো পড়ুন :   ক্রিকেট
        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
cache_14 2020-01-24 16:47:19