bangla news

স্মিথের জবাবে রোহিতের সেঞ্চুরি, সিরিজ জিতল ভারত

স্পোর্টস ডেস্ক | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০২০-০১-১৯ ১০:০২:৩৭ পিএম
রোহিত আর কোহলির জুটিতেই জয় পেয়েছে ভারত/ছবি-সংগৃহীত

রোহিত আর কোহলির জুটিতেই জয় পেয়েছে ভারত/ছবি-সংগৃহীত

তিন বছর পর ওয়ানডে ক্রিকেটে সেঞ্চুরির স্বাদ পেয়েছিলেন স্টিভেন স্মিথ। শুধু তাই না, ওয়ানডেতে ৪ হাজার রানের মাইলফলকও ছুঁয়েছিলেন তিনি। কিন্তু অজি ব্যাটসম্যানের এমন স্বপ্নিল রাত শেষ পর্যন্ত বিষাদে ছেয়ে গেছে। আর এর কারণ রোহিত শর্মা। দুর্দান্ত এক সেঞ্চুরি হাঁকিয়েছেন ভারতীয় ওপেনার আর তাতে ভর করে সিরিজ জিতে নিয়েছে ভারত।

রোববার (১৯ জানুয়ারি) ব্যাঙ্গালুরুতে প্রথমে ব্যাট করতে নেমে ৯ উইকেট হারিয়ে ২৮৬ রান সংগ্রহ করে অস্ট্রেলিয়া। জবাবে ৩ উইকেট হারিয়ে এবং ১৫ বল হাতে রেখে লক্ষ্যে পৌঁছে যায় স্বাগতিক দল। ফলে ৩ ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজ ২-১ ব্যবধানে জিতে নিল কোহলিবাহিনী।

লক্ষ্য তাড়া করতে নামার আগেই ধাক্কা খেয়েছিল ভারত। কারণ ফিল্ডিংয়ের সময় পাওয়া চোটে ছিটকে গেছেন শিখর ধাওয়ান। ফলে এই বাঁহাতি ওপেনারকে ছাড়াই ব্যাটিংয়ে নামে ভারত। তবে তার অভাব বুঝতে দেননি  রোহিত ও লোকেশ রাহুল। দুজনে ৬৯ রানের জুটি গড়ার পর অবশ্য বিদায় নেন রাহুল (১৯)। 

রাহুলের বিদায়েও ভারতীয় ইনিংসে কোনো চাপ প্রয়োগ করতে পারেনি অস্ট্রেলিয়া। বরং বিরাট কোহলি আর রোহিত মিলে ক্রমেই অজিদের হাত থেকে ম্যাচ বের করে নিয়ে যান। এর মাঝে নিজের ২৯তম ওয়ানডে সেঞ্চুরি তুলে নেন রোহিত। 

তাছাড়া ইনিংসের শুরুতে মাত্র ৪ রান করার পর সৌরভ গাঙ্গুলীকে ছাড়িয়ে দ্রুততম সময়ে ৯ হাজার রান করার তালিকায় তৃতীয় স্থানও দখল করেন রোহিত, যেখানে শীর্ষে আছেন বর্তমান অধিনায়ক কোহলি। 

৯ হাজার রান করতে রোহিতের লেগেছে ২১৭ ইনিংস। গাঙ্গুলীর ২২৮, শচীন টেন্ডুলকারের ২৩৫ আর ব্রায়ান লারার লেগেছে ২৩৯ ইনিংস। কোহলির এই মাইলফলক ছুঁয়েছেন মাত্র ১৯৪ ইনিংসে। তালিকার দ্বিতীয় স্থানে থাকা এবি ডি ভিলিয়ার্স একই কীর্তি ছুঁতে ২০৫ ইনিংস খেলেছেন।

আর সবমিলিয়ে সপ্তম ভারতীয় হিসেবে নয় হাজারি ক্লাবে নাম লেখালেন রোহিত। তা আগে এই তালিকায় যুক্ত হয়েছেন মোহাম্মদ আজহারউদ্দিন, টেন্ডুলকার, গাঙ্গুলী, রাহুল দ্রাবিড়, মহেন্দ্র সিং ধোনি এবং কোহলি।

একটা কীর্তি গড়েছেন কোহলিও। ভারতীয় অধিনায়কদের মধ্যে সব ফরম্যাট মিলিয়ে সর্বোচ্চ রানের মালিক এখন এই বিশ্বসেরা ব্যাটসম্যান। ১৯৯ ইনিংসে তার রান ১১ হাজার ২০৮। দ্বিতীয় স্থানে থাকা ধোনির রান ৩৩০ ইনিংসে ১১ হাজার ২০৭। ৮ হাজার ৯৫ আন নিয়ে তৃতীয় স্থানে আছেন আজহারউদ্দিন। আর ২১৭ ইনিংসে ৭ হাজার ৬৪৩ রান নিয়ে চতুর্থ স্থানে গাঙ্গুলী।

মূলত রোহিত আর কোহলির ১৩৭ রানের জুটিতেই জয়ের পথ খুঁজে পায় ভারত। দলকে ২০৬ রানে রেখে রোহিত যখন বিদায় নেন তার নামের পাশে লেখা ১২৮ বলে ১১৯ রানের ইনিংস, যা ৮টি চার ও ৬টি ছক্কায় সাজানো।

রোহিত যাওয়ার পর ব্যাটে ঝড় তুলতে থাকেন কোহলি আর শ্রেয়াস আইয়ার। ৯১ বলে ৮৯ রানের ঝড় তুলে কোহলি যখন বিদায় নেন ভারত তখন জয় থেকে নিঃশ্বাস দূরত্বে। এদিকে অধিনায়কের বিদায়ের পর বাকি বেশ অনায়াসে পাড়ি দেন শ্রেয়াস। শেষ পর্যন্ত ৩৫ বলে ৪৪ রান করে অপরাজিত থাকেন তিনি।

বল হাতে অজিদের হয়ে ১ উইকেট করে তুলে নিয়েছেন জশ হ্যাজেলউড, অ্যাস্টন আগার ও অ্যাডাম জাম্পা।

এর আগে টসে জিতে ব্যাট করতে নেমে মোটেই সুবিধা করতে পারেনি অস্ট্রেলিয়া। দলীয় ১৮ রানেই বিদায় নেন ওপেনার ডেভিড ওয়ার্নার। অধিনায়ক ফিঞ্চও টিকতে পারেননি (১৯)। তবে স্মিথ আর লাবুশানে মিলে বড় সংগ্রহের আশা জাগিয়ে রাখেন।

১৩২ বলে ১৩১ রান করে মোহাম্মদ শামির বলে বিদায় নেন স্মিথ। ৫৪ রানের ইনিংস আসে লাবুশানের ব্যাট থেকে। এছাড়া অস্ট্রেলিয়া ইনিংসে বলার মতো রান এসেছে শুধু অ্যালেক্স ক্যারির (৩৫) ব্যাট থেকে।

বল হাতে ভারতের মোহাম্মদ শামি একাই নিয়েছেন ৪ উইকেট। জোড়া উইকেট তুলে নিয়েছেন রবীন্দ্র জাদেজা। আর ১টি করে উইকেট ঝুলিতে পুরেছেন নবদ্বীপ সাইনি এবং কুলদীপ যাদব।

ম্যাচ সেরা নির্বাচিত হয়েছেন রোহিত শর্মা। আর সিরিজ সেরা নির্বাচিত হয়েছেন বিরাট কোহলি।

বাংলাদেশ সময়: ২২০২ ঘণ্টা, জানুয়ারি ১৯, ২০২০
এমএইচএম

        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
cache_14 2020-01-19 22:02:37