ঢাকা, শুক্রবার, ৯ আশ্বিন ১৪২৭, ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২০, ০৬ সফর ১৪৪২

ক্রিকেট

ব্যাটিং পজিশন পাল্টে যাবে সৌম্য-লিটনদের

স্পোর্টস করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ০০০২ ঘণ্টা, জানুয়ারী ২০, ২০২০
ব্যাটিং পজিশন পাল্টে যাবে সৌম্য-লিটনদের ছবি: বাংলানিউজ

সদ্য সমাপ্ত বঙ্গবন্ধু বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগে (বিপিএল) নজর কেড়েছেন বেশ কয়েকজন দেশি ক্রিকেটার। তাদের মধ্যে কয়েকজন সুযোগ পেয়েছেন পাকিস্তান সফরের দলে। কিন্তু সমস্যাটা এখন অন্য জায়গায়। কারণ, দলে এখন ছয় ব্যাটসম্যানই ওপেনার। ফলে তাদের মধ্যে কে কোথায় খেলবেন তা নিয়ে প্রশ্ন থেকেই যায়। তবে সমস্যার সমাধান দিলেন টাইগার কোচ রাসেল ডমিঙ্গো।

দলের প্রয়োজনে কয়েকজন ব্যাটসম্যানের ব্যাটিং পজিশন পাল্টে যেতে পারে, এমনটাই ইঙ্গিত দিলেন ডমিঙ্গো। বিশেষ করে মিডল অর্ডারে যেহেতু মুশফিকুর রহিমের মতো অভিজ্ঞ ব্যাটসম্যান থাকছেন না।

তার শূন্যতা পূরণ সহজ নয়। আবার দলে এখন ৬ জন ওপেনার আছেন-তামিম ইকবাল, লিটন দাস, মোহাম্মদ নাঈম, নাজমুল হোসেন শান্ত, সৌম্য সরকার এবং আফিফ হোসেন। ফলে দলের ব্যালেন্স রক্ষার জন্য তাদের কয়েকজকে হয়তো পছন্দের জায়গা ছাড়তে হতে পারে।

ডমিঙ্গো বলেন, ‘ভারতের বিপক্ষে তিনে ব্যাট করেছিল সৌম্য, কিন্তু পাকিস্তানে হয়তো তাকে ছয়ে নেমে যাতে হতে পারে। আবার মাহমুদউল্লাহ পাঁচে ব্যাট করতে পারে। আফিফ হয়তো তিন কিংবা চারে নামতে পারে। আসলে সেরা খেলোয়াড়রা যেকোনো পজিশনে খেলতে পারে। ইয়ন মরগানের (ইংলিশ অধিনায়ক) ক্ষেত্রে দেখুন, সে তিন কিংবা ছয়ে নামলেও সফল। আপনি যদি কেন উইলিয়ামসনকে (কিউই অধিনায়ক) তিন কিংবা পাঁচে নামান, সে ঠিকই ভালো করার রাস্তা খুঁজে নেবে। নতুনদের এটা দারুণ সুযোগ নিজেদের মেলে ধরার। ’

‘লিটনের মতো ব্যাটসম্যান যদি এক কিংবা দুই ম্যাচে চারে নামে, সেটা ঠিক আছে। যদি মোহাম্মদ মিঠুন তিনে নামে সেটাও ঠিক আছে। যদি আফিফকে ওপেনিং থেকে ছয়ে নেমে যেতে হয়, তাকে ওই পরিস্থিতি অনুযায়ী খেলতে হবে,’ যোগ করেন ডমিঙ্গো।

তবে তামিম ইকবাল আগের মতোই ব্যাটিং উদ্বোধনের দায়িত্বে থাকবেন কিনা সেটা নিয়ে এখনও সিদ্ধান্ত নেওয়া বাকি বলে জানালেন ডমিঙ্গো, ‘এটা তামিমের সঙ্গে আমার প্রথম সফর। তাকে আরও একটু বুঝতে হবে। আমি জানি বিপিএলে (ঢাকা প্লাটুনের হয়ে) সে একটা জায়গায় ছিল। এখন এটা নিয়ে দলের সঙ্গে কথা বলতে হবে। এখন পর্যন্ত কোনো সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়নি। কে কার সঙ্গে ওপেন করবে তা আলোচনা করে ঠিক করা হবে। ’

দলের অধিনায়ক কে হবেন সেটা অনেকটাই নিশ্চিত। ভারত সফরের মতো পাকিস্তান সফরেও টি-টোয়েন্টি দলের নেতৃত্ব থাকছে মাহমুদউল্লাহ রিয়াদের কাঁধে। তবে শুধু এই সফরেই নয়, চলতি বছরটাই এই দায়িত্বে রিয়াদকে চান ডমিঙ্গো। গত অক্টোবরে সাকিব আল হাসানের নিষেধাজ্ঞার কারণে ভারত সফরের ঠিক একদিন আগে হুট করে দায়িত্ব পান রিয়াদ। তবে পাকিস্তান সফরে পুরোপুরি নিশ্চিত হয়েই যাচ্ছেন এই অলরাউন্ডার।

টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপকে সামনে রেখে দলের অধিনায়ক ঠিকঠাক করার এখনই সময়। এসময় নতুন কাউকে দায়িত্ব দিয়ে কোনো ঝামেলায় পড়তে চাচ্ছেন না ডমিঙ্গো। ফলে এবার দীর্ঘ সময়ের জন্যই রিয়াদকে চান তিনি, ‘আমি চাই সে (রিয়াদ) টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপেও আমাদের নেতৃত্ব দিক। তার প্রতি আমার পূর্ণ সমর্থন আছে। আমি মনে করি, সে ভারত সফরে দারুণ করেছে। তার সঙ্গে কাজ করে আমার ভালোই লেগেছে। সে দারুণ পেশাদার। ড্রেসিং রুমের সবাই তাকে শ্রদ্ধা করে। সে বিশ্বমানের খেলোয়াড়। সে আমার অধিনায়ক। ’

বাংলাদেশ সময়: ১৯০১ ঘণ্টা, জানুয়ারি ১৯, ২০২০
এমএইচএম

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa