ঢাকা, মঙ্গলবার, ২৭ শ্রাবণ ১৪২৭, ১১ আগস্ট ২০২০, ২০ জিলহজ ১৪৪১

ফুটবল

নেইমারের জায়গা নিতে চাই না: এমবাপ্পে

স্পোর্টস ডেস্ক | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৬৫৮ ঘণ্টা, ডিসেম্বর ২৪, ২০১৯
নেইমারের জায়গা নিতে চাই না: এমবাপ্পে এমবাপ্পে ও নেইমার/ছবি: সংগৃহীত

পিএসজিতে নেইমারকে প্রতিদ্বন্দ্বী ভাবেন কিলিয়ান এমবাপ্পে। এমন অভিযোগ প্রায়ই শোনা যায়। তবে এই অভিযোগ তুড়ি মেরে উড়িয়ে দিলেন ফরাসি ফরোয়ার্ড। তার মতে, পিএসজিতে তার আগমনের আগে থেকেই নেইমার সুপারস্টার। ফলে ব্রাজিলিয়ান ফরোয়ার্ডকে প্রতিদ্বন্দ্বী ভাবার কিছু নেই। 

ফরাসি ক্লাব ফুটবলের সবচেয়ে জনপ্রিয় ও কার্যকর জুটি নেইমার ও এমবাপ্পে। ২০১৭ সালে বার্সা থেকে নেইমারকে ট্রান্সফার ফি’র বিশ্বরেকর্ড গড়ে প্যারিসে আনার পর থেকে দুজনে মিলে গড়ে তুলেছেন বিশ্বের অন্যতম ভয়ঙ্কর আক্রমণভাগ।

মাঠের বাইরেও দুজনের সম্পর্ক দারুণ।

নেইমার ও এমবাপ্পের সম্পর্ক ভালো হলেও তাদের দুজনের মধ্যে কে সেরা, এই নিয়ে আলোচনা চলে নিয়মিতই। আবার দুজনের সম্পর্ক ভেঙে গেলে কি হবে, এ নিয়েও অনেক পিএসজি ভক্ত শঙ্কা প্রকাশ করেন। কিন্তু মাঠে দুজনে ঠিকই সেরা পারফরম্যান্স দিয়ে যাচ্ছেন। যদিও গত দুই মৌসুমে নেইমারকে অনেকটাই ছাপিয়ে গেছেন এমবাপ্পে।

সম্প্রতি ‘ফ্রান্স ফুটবল’র সঙ্গে এক সাক্ষাৎকারে নেইমারের সঙ্গে সম্পর্ক নিয়ে এমবাপ্পে বলেন, ‘আমি যখন (পিএসজিতে) আসি, কোনো বিতর্ক ছিল না। সে (নেইমার) ছিল সুপারস্টার। সে বিশ্বকাপে হেরে গেল আর আমি জিতে গেলাম। এরপর থেকেই অনেকে আমাদের দুজনের মধ্যে প্রতিদ্বন্দ্বিতার গন্ধ খুঁজতে শুরু করে। আমি ওসব পড়ে অবাক হতাম, ফলে যখন সে ছুটি কাটিয়ে ফিরলো, আমি দেখা করতে গেলাম। ’

এমবাপ্পে বলতে থাকেন, “আমি তাকে বললাম ‘তুমি বিশ্বকাপে ভালো করতে পারো নি... এবং এটা আমাদের জন্য ভালো হয়েছে। এখানে কোনো চিন্তা নেই, আমি তোমার জায়গা দখল করব না। আমি ব্যালন ডি’অর জেতার জন্য চেষ্টা করব, কারণ তুমি এবার এটা জিততে পারবে না। কিন্তু আমি তোমাকে নিশ্চিত করতে চাই আমি তোমার জায়গা চাই না। তুমি এটা রেখে দিতে পারো। আমি এখানে তোমাকে সহায়তা করতে এসেছি’। ”

ফ্রান্সের বর্ষসেরা ফুটবলার আরও বলেন, ‘মানুষ মনে করে, কিলিয়ান (এমবাপ্পে) বদলে গেছে। কিন্তু এটা সত্য নয়। সে দলের জন্য যেটা ভালো সেটাই করার চেষ্টা করে। মাত্র ১৭ কিংবা ১৮ বছর বয়সে, যখন নিজের জন্য খুব কমই ভাবার সুযোগ পাবেন, কারণ আপনাকে তখনও অনেক কিছু প্রমাণ করতে হবে। আপনাকে চাহিদা অনুযায়ী সেরা খেলোয়াড়কে বলের যোগান দিতে হবে। এখন তারা (সতীর্থরা) আমাকে বল দেয় এবং আমি এখন আরও বেশি সুযোগ নিতে পারি, কারণ আমি এটা করার চেষ্টা করেছি। ’

বাংলাদেশ সময়: ১১৫৭ ঘণ্টা, ডিসেম্বর ২৪, ২০১৯
এমএইচএম

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa