ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ২৯ শ্রাবণ ১৪২৭, ১৩ আগস্ট ২০২০, ২২ জিলহজ ১৪৪১

ফুটবল

শীর্ষে উঠেও অস্বস্তিতে রিয়াল মাদ্রিদ

স্পোর্টস ডেস্ক | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ০১৪৮ ঘণ্টা, ডিসেম্বর ৮, ২০১৯
শীর্ষে উঠেও অস্বস্তিতে রিয়াল মাদ্রিদ গোলের পর বেনজেমার চেনা উদযাপন: ছবি-সংগৃহীত

রাতে মাঠে নামবে বার্সেলোনা। তবে তার আগে দারুণ এক জয় নিয়ে কাতালানদের টপকে লা লিগার শীর্ষস্থানে ওঠেছে রিয়াল মাদ্রিদ। অবশ্য লস ব্লাঙ্কোসরা কতক্ষণ সেই অবস্থান ধরে রাখতে পারবে তা নির্ভর করছে বার্সার উপর। লিওনেল মেসিরা জিতলে দু’দলের পয়েন্ট হবে সমান ৩৪। সেক্ষেত্রে গোল ব্যবধানে এগিয়ে থাকা দলই থাকবে তালিকার শীর্ষে।

এসব হিসেব-নিকেষ নিয়ে অবশ্য এখনই ভাবতে বসছেন না কোচ জিনেদিন জিদান। আপাতত জিজুর এখন শিষ্যদের সঙ্গে জয় উদযাপনের সময়।

ঘরের মাঠ সান্তিয়াগো বার্নাব্যুতে ১০ জনের দল হয়েও এস্পানিওলের বিপক্ষে ২-০ জয় নিয়ে মাঠ ছাড়তে পারাটা যে আনন্দের!

শনিবার (০৭ ডিসেম্বর) তলানির দল এস্পানিওলের বিপক্ষে মাঠে নামার আগে স্বস্তিতে ছিল না মাদ্রিদ শিবির। কারণ দলের বড় তারকাদের প্রায় একাংশের জায়গা হয়েছে বেঞ্চে। চোটের কারণে একাদশে ছিলেন না ইডেন হ্যাজার্ড, লুকা মদরিচ, ইস্কোর মতো তারকারা। তবে তাতেও জয় আটকায়নি রিয়ালের।  

ম্যাচের শুরু থেকে আধিপত্য বিস্তার করে আক্রমণ চালাতে থাকে করিম বেনজেমা, রদ্রিগো ও ভিনিসিয়াস জুনিয়ররা। তবে কোনো আক্রমণভাগের খেলোয়াড়রা নয়; রিয়ালকে প্রথম গোল এনে দেন ডিফেন্ডার রাফায়েল ভারানে। ৩৭ মিনিটে স্বদেশি সতীর্থ বেনজেমার পাস থেকে বল পেয়ে দলকে এগিয়ে দেন এই ফরাসি তারকা।  

ভারানের গোল উদযাপন: ছবি-সংগৃহীত এক গোলের ব্যবধান নিয়ে বিরতি যাওয়া রিয়াল দ্বিতীয় গোলের দেখা পায় ৭৯ মিনিটে। তরুণ উরুগুইয়ান ডিফেন্ডার ফেডে ভালভার্দের পাস থেকে ব্যবধান দ্বিগুণ করেন বেনজেমা।

এর ৪ মিনিট পরেই দশজনের দল হয়ে পড়ে রিয়াল। এস্পানিওলের গোমেজকে গোড়ালিতে আঘাত করে লাল কার্ড দেখে মাঠ ছাড়েন ডিফেন্ডার ফার্লান্দ মেন্দি। অবশ্য সুযোগটি কাজে লাগাতে পারেনি লা লিগার ১৯ নম্বরের দলটি। বাকি সময়টা রক্ষণ পাহারা দিয়ে জয় নিয়ে মাঠ ছাড়ে জিদানের শিষ্যরা।  

বাংলাদেশ সময়: ২০৪৭ ঘণ্টা, ডিসেম্বর ০৭, ২০১৯
ইউবি 

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa