bangla news

অস্ট্রেলিয়ার মাটিতে টানা ১৪ টেস্টে পাকিস্তানের হার

স্পোর্টস ডেস্ক | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৯-১২-০২ ৩:০৯:৪৪ পিএম
লায়নকে মধ্যমণি করে উইকেট উদযাপন করছে অজিরা: ছবি-সংগৃহীত

লায়নকে মধ্যমণি করে উইকেট উদযাপন করছে অজিরা: ছবি-সংগৃহীত

দীর্ঘ ৬ বছর পর ফলোঅনে পড়ে আর উদ্ধার হতে পারলো না পাকিস্তান। অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে টানা দ্বিতীয়বার ইনিংস ব্যবধানে হেরেছে মিসবাহ-উল-হকের শিষ্যরা। এছাড়া অস্ট্রেলিয়ার মাটিতে টানা ১৪ টেস্ট হারলো পাকিস্তান। 

সিরিজের প্রথম টেস্ট ব্রিসবেনে ইনিংস ও ৫ রানে জয়ের পর দ্বিতীয় টেস্ট অ্যাডিলেডে পাকিস্তানকে ইনিংস ও ৪৮ রানে হারালো স্বাগতিক অস্ট্রেলিয়া। প্রথম ইনিংসে ব্যাটসম্যানদের ব্যর্থতায় ৩০২ রানের পর দ্বিতীয় ইনিংসে ২৩৯ রানে গুটিয়ে গেছে আজহার আলীরা। অজিরা ডেভিড ওয়ার্নারের ট্রিপল-সেঞ্চুরিতে প্রথম ইনিংসে ৩ উইকেটে ৫৮৯ রানের পাহাড় গড়ে প্রথম ইনিংস ঘোষণা করে। 

সোমবার (০২ ডিসেম্বর) ইনিংস পরাজয় এড়াতে চতুর্থদিন ‍শুরু করে পাকিস্তান। তৃতীয়দিনের শেষদিকে বৃষ্টির আশীর্বাদে বেঁচে যাওয়া সফরকারীরা ৩ উইকেটে স্কোরবোর্ডে ৩৯ রানে জমা করে দিন শেষ করতে পেরেছিল। তবে চতুর্থদিনে হার এড়াতে পারলো না তারা। দ্বিতীয় সেশনেই ৪৮ রান পিছিয়ে থাকতে গুটিয়ে যায় পাকিস্তান। 

অবশ্য আগেরদিনের দুই অপরাজিত ব্যাটসম্যান ঢাল হয়ে উঠেছিল পাকিস্তানের জন্য। শান মাসুদ ও আসাদ শফিকের ব্যাটে ইনিংস পরাজয় এড়ানোর স্বপ্ন দেখছিল তারা। কিন্তু স্কোরবোর্ডে ১২৩ রান জমা হতেই চতুর্থ উইকেট হারায় পাকিস্তান। দিনের প্রথম উইকেট মাসুদ সাজঘরে ফেরান নাথান লায়ন। পাকিস্তানি ওপেনারের ১২৭ বলে ৬৮ রানের ইনিংসটি সাজানো ছিল ৮ চার ও ১ ছক্কায়।

মাসুদ-শফিকের ১০৩ রানের জুটি ভাঙার পর বিপদে পড়ে পাকিস্তান। দলীয় ১৫৪ রানে ব্যক্তিগত ৫৭ রানে লায়নের দ্বিতীয় শিকার হয়ে সাজঘরে ফেরেন শফিক। এরপর ষষ্ঠ উইকেট মোহাম্মদ রিজওয়ান চেষ্টা করেছিলেন ইফতিখার আহমেদকে নিয়ে বিপর্যয় সামাল দেওয়ার। কিন্তু তার আগেই ভয়ঙ্কর হয়ে ওঠেন লায়ন। 

ইফতিখারকে (২৭) লাবুশানের হাতে ক্যাচ বানান তিনি। এরপর আগেরদিনের সেঞ্চুরিয়ান ইয়াসির শাহকে (১৩) এলবিডব্লউ’র ফাঁদে ফেলে নিজের চতুর্থ উইকেট উদযাপন করেন লায়ন। এর পরপরই শাহীন আফ্রিদিকে (১) আউট করে পাকিস্তানের বিপক্ষে প্রথমবারের মতো টেস্টে পঞ্চম উইকেট নেওয়ার উল্লাসে মেতে ওঠেন লায়ন। 

অ্যাডিলেডে এটি তার চতুর্থবারের পঞ্চম উইকেট শিকার। ঘরের মাটিতে ৬ এবং সব মিলিয়ে ক্যারিয়ারে ১৬তম পঞ্চম উইকেট। শেন ওয়ার্নের পরে অ্যাডিলেডে সর্বোচ্চ উইকেট শিকারের তালিকায় দ্বিতীয় স্থানে আছেন লায়ন। ওয়ার্ন নিয়েছেন ৫৬ উইকেট। লায়নের শিকার ৫০টি। 

এরপর ৯ম উইকেট হিসেবে দলীয় ২৩৫ রানে রিজওয়ানকে বোল্ড করেন জস হ্যাজলউড। শেষ উইকেট হিসেবে মোহাম্মদ আব্বাসকে (১) রান আউট করেন প্যাট কামিন্স। মোহাম্মদ মুসা অপরাজিত ছিলেন ৪ রানে। 

অ্যাডিলেড টেস্টে ক্যারিয়ারে প্রথমবারের মতো অনবদ্য ট্রিপল সেঞ্চুরিতে ৩৩৫ রানের ইনিংস খেলে ম্যাচ সেরা হয়েছেন ওয়ার্নার। দুই টেস্টে অসধারণ পারফরম্যান্সের জন্য প্লেয়ার অব দ্য সিরিজের পুরস্কারও উঠেছে এই অজি ওপেনারের হাতে। 

পাকিস্তানের দুই টেস্ট সিরিজে হোয়াইটওয়াশ করে আইসিসি ওয়ার্ল্ড টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের তালিকার দ্বিতীয় স্থানে উঠে এসেছে অস্ট্রেলিয়া। ৭ ম্যাচে তাদের পয়েন্ট ১৭৬। সমান ম্যাচে এখন পযর্ন্ত অপরাজিত ভারত ৩৬০ পয়েন্ট নিয়ে আছে প্রথম স্থানে। আর দুই ম্যাচে কোনো পয়েন্ট না পাওয়া পাকিস্তান ৯ দলের মধ্যে সপ্তমস্থানে আছে। 

বাংলাদেশ সময়: ১৫০৮ ঘণ্টা, ডিসেম্বর ০২, ২০১৯
ইউবি

ক্লিক করুন, আরো পড়ুন :   ক্রিকেট
        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
cache_14 2019-12-02 15:09:44