ঢাকা, শুক্রবার, ২৩ শ্রাবণ ১৪২৭, ০৭ আগস্ট ২০২০, ১৬ জিলহজ ১৪৪১

ক্রিকেট

ওয়ার্নারের পর স্টার্কে পিষ্ট হলো পাকিস্তান

স্পোর্টস ডেস্ক | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২৩৫৮ ঘণ্টা, নভেম্বর ৩০, ২০১৯
ওয়ার্নারের পর স্টার্কে পিষ্ট হলো পাকিস্তান ওয়ার্নার-স্টার্ক/ছবি: সংগৃহীত

পাকিস্তান বোলারদের বেদম পিটিয়ে প্রথম ট্রিপল সেঞ্চুরির দেখা পেয়েছেন ডেভিড ওয়ার্নার। ৪০০ রানের ম্যাজিক ফিগারও ছুঁতে পারতেন অনায়াসেই। কিন্তু তার আগেই রেকর্ড দলীয় ৫৮৯ রানে ইনিংস ঘোষণা করে চমকে দেন অজি অধিনায়ক টিম পেইন। পরে বল হাতে পাকিস্তানকে রীতিমত বিধ্বস্ত করেন মিচেল স্টার্ক। 

শনিবার (৩০ নভেম্বর) অ্যাডিলেডে সিরিজের দ্বিতীয় টেস্টের দ্বিতীয় দিনে খেলতে নামে অস্ট্রেলিয়া ও পাকিস্তান। তবে দিবারাত্রির এই টেস্টের আলো পুরো নিজের দিকে নিয়ে যান ওয়ার্নার।

আগের দিন ১৬৬ রানে অপরাজিত থাকার পর দ্বিতীয় দিনও আক্রমণাত্মক ব্যাটিংয়ে সপ্তম অজি ব্যাটসম্যান হিসেবে ট্রিপল সেঞ্চুরির দেখা পান।

৩৮৯ বলে ওয়ার্নার এই মাইলফলক স্পর্শ করেন। প্রথম দিনে ১২৬ রানে অপরাজিত থাকা মার্নাস লাবুশানে অবশ্য এদিন ১৬২ করার করা শহীন শাহ আফ্রিদির বলে আউট হন। তবে যাওয়ার আগে ওয়ার্নারের সঙ্গে ৩৬১ রানের রেকর্ড জুটি গড়েন লাবুশানে। দুজনে মিলে দ্বিতীয় উইকেট জুটিতে যোগ করেন ৩৬১ রান।

এদিকে ট্রিপল সেঞ্চুরিতে ওয়ার্নার আবার স্বদেশী অজি কিংবদন্তি ডন ব্র্যাডম্যানের ৮৭ বছরের পুরোনো একটি রেকর্ড ভাঙলেন। ১৯৩২ সালে দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে এই অ্যাডিলেডে ডন এক ইনিংসে সর্বোচ্চ ২৯৯ রান করেছিলেন।  

শেষ পর্যন্ত ৩৩৫ রানে অপরাজিত থাকেন ওয়ার্নার, যা পাকিস্তানের বিপক্ষে যেকোনো ব্যাটসম্যানদের দ্বিতীয় সর্বোচ্চ স্কোর। এর আগে ১৯৫৮ সালে ক্যারিবীয় কিংবদন্তি স্যার গ্যারি সোবার্স ৩৬৫ রান করেছিলেন, যে রেকর্ড এখনও অটুট।

ওয়ার্নার এক প্রান্তে ঝড় তুললেও স্টিভেন স্মিথ নেমে খুব একটা সুবিধে করতে পারেননি। ৩৬ রান করে আফ্রিদির বলেই বিদায় নেন। তবে তিনিও ওয়ার্নারের সঙ্গে ১২১ রানের বড় জুটি গড়েন। শেষদিকে ম্যাথু ওয়েড ৩৮ রান করলেও তিনিও ওয়ার্নারের সঙ্গে ৯৯ রানের অবিচ্ছন্ন জুটি গড়েন।  

শেষ পর্যন্ত ৩ উইকেট হারিয়ে ৫৮৯ রান তুলে ইনিংস ঘোষণা করে অস্ট্রেলিয়া, যা দিবারাত্রির টেস্টের ইতিহাসে সর্বোচ্চ দলীয় ইনিংস। এর আগে ২০১৬ সালে দুবাইয়ে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে ৩ উইকেট হারিয়ে ৫৭৯ রানে ইনিংস ঘোষণা করে রেকর্ড গড়েছিল পাকিস্তান।

বল হাতে পাকিস্তানের আফ্রিদি ৩ উইকেট তুলে নিয়েছেন।

এদিকে নিজেদের প্রথম ইনিংসে ব্যাট করতে নেমে অজিদের রানের পাহাড়ে চাপা পড়ে পাকিস্তান। দলীয় ৩ রানেই ইমাম-উল-হককে হারায় সফরকারীরা। ইমামকে ওয়ার্নারের ক্যাচ বানিয়ে বিদায় করে উইকেটের খাতা খুলেন স্টার্ক। পাকিস্তানের অধিনায়ক আজহার আলী (৯) বিদায় নেন প্যাট কামিন্সের বলে। আর হ্যাজেলউড তুলে নেন পাকিস্তানি ওপেনার শান মাসুদের (১৯) উইকেট।  

এরপর বাকি সময় স্টার্ক ঝড়ের কবলে পড়ে পাকিস্তান। ৮৯ রান তুলতেই ৬ উইকেট হারানো পাকিস্তান শেষ পর্যন্ত ৪ উইকেট হাতে রেখে ৪৯৩ রানে পিছিয়ে থেকে দিন শেষ করে। বাবর আজম ৪৩ রান নিয়ে অপরাজিত থাকেন। সঙ্গী ইয়াসির আলী অপরাজিত আছেন ৪ রান নিয়ে।

বল হাতে স্টার্ক ১৩ ওভারে ২২ রান খরচে তুলে নিয়েছেন ৪ উইকেট। ১টি করে উইকেট গেছে কামিন্স ও হ্যাজেলউডের দখলে।

বাংলাদেশ সময়: ১৮৫৭ ঘণ্টা, নভেম্বর ৩০, ২০১৯
এমএইচএম

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa