bangla news

শুরুটা ভালো হলো না বসুন্ধরা কিংসের

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৯-১০-২২ ৯:৫৩:২৩ পিএম
ছবি: উজ্জ্বল ধর

ছবি: উজ্জ্বল ধর

সমর্থকরা তাদের প্রিয় দল বসুন্ধরা কিংসকে উৎসাহ দিতে লাল জার্সি পরে বাদ্য বাজিয়ে মাঠে এসেছিল। বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগ (বিপিএল) চ্যাম্পিয়নদের ম্যাচ দেখার জন্য চট্টগ্রামের এম এ স্টেডিয়াম ভরে গিয়েছিল দর্শকে। কিন্তু সমর্থকদের আনন্দের উপলক্ষ্য এনে দিতে পারেনি অস্কার ব্রুজোনের শিষ্যরা।

শেখ কামাল আন্তর্জাতিক ক্লাব কাপের অন্যতম ফেবারিট কিংসদের অভিযানটা ভালো হয়নি। মঙ্গলবার (২২ অক্টোবর) দেনিয়েল কলিন্দ্রেস-বিপলু আহমেদরা ৩-১ গোলে হেরে গেছে ‘বি’ গ্রুপের আরেক দল ভারতের শ্রী গোকুলাম কেরালা এফসি’র বিপক্ষে।

ম্যাচের শুরুতে লাগামটা ছিল বসুন্ধরা কিংসের হাতে। একের পর এক আক্রমণ শানালেও কেরালার রক্ষণ দেয়াল ভাঙতে পারছিলেন না কলিন্দ্রেস-জালালরা। ৭ম মিনিটে বিপলু ভয় ধরিয়ে দেন কেরালাকে। এর পরের মিনিটে জালালও সুযোগ পান গোলের। ১৩তম মিনিটে মোহাম্মদ ইব্রাহিমের ক্রস থেকে দলকে এগিয়ে দিতে পারতেন কোস্টারিকান ফরোয়ার্ড কলিন্দ্রেস। কিন্তু কেরালার রক্ষণ বাধা হয়ে দাঁড়ায় এবারও।

২৩তম মিনিটে বাঁ প্রান্ত দিয়ে ধরে ওয়ান টু ওয়াস পাস খেলে কেরালার ডি-বক্সে ঢুকে পড়েন কলিন্দ্রেস-জালাল। তবে এবারও সুযোগ ফসকে যায় তাদের। ২৫ মিনিটে উল্টো গোল হজম করে বসে বসুন্ধরা। কেরালাকে এগিয়ে দেন হেনরি কিসেক্কা। সমতায় ফিরতে আক্রমণে ধার বাড়ায় ব্রুজোনের দল। কিন্তু ভাগ্য কোনোভাবে সহায় হয়নি তাদের। ২৭তম মিনিটে আরেকবার কলিন্দ্রেস-জালাল জুটির আক্রমণ নস্যাৎ করে দেয় প্রতিপক্ষের রক্ষণভাগ।

৩০তম মিনিটে দ্বিতীয়বার পিছিয়ে পড়ে বসু্‌ন্ধরা। ফ্রি-কিক থেকে বাঁকানো শটে অনবদ্য গোল করেন ‍মিডফিল্ডার নাথানিয়েল জুড গার্সিয়া। দুই গোলে পিছিয়ে পড়েও হতাশ হয়নি ব্রুজোনের দল। আক্রমণের ধারা বজায় রাখলেও দুর্ভাগ্যবশত কেরালার রক্ষণদেয়াল বাধা হয়ে দাঁড়ায় তাদের সামনে। ৪৩ মিনিটে কলিন্দ্রেসের ক্রস থেকে দারুণ সাইডভলি নিয়েও প্রতিপক্ষের গোলপোষ্ট ছিন্ন করতে পারেননি লেবানিজ ফরোয়ার্ড জালাল।

বিরতির পর বসুন্ধরার সমতায় ফেরার চেষ্টার আত্মবিশ্বাসে আরেকবার আঘাত হানেন হেনরি কিসেক্কা। ৪৬ মিনিটে জোড়া গোল পূরণ করেন তিনি। কেরালা লিড নেয় ৩-০ ব্যবধানে।

৫৭ মিনিটে বিপলুর পবিবর্তে মাঠে নামেন মতিন মিয়া। এরপর সমতায় ফিরতে মরিয়া হয়ে আক্রমণ চালায় কিংসরা। ৭৪ মিনিটে প্রথম গোলের দেখা পায় ব্রুজোনের দল। বদলি ফরোয়ার্ড কিংসলে এলিটার শট কেরালার গোলপোস্টে লেগে ফিরে আসে। ফিরতি বলে শট নেন মতিন মিয়া। এর দুই মিনিট পরেই কিংসলের আরেকটি শট লাগে প্রতিপক্ষের গোলপোস্টে। 

গোলপোস্টের পাশাপাশি কিংসদের সামনে বড় প্রতিপক্ষ দাঁড়ান কেরালার গোলরক্ষক ওবাইও চোনো কাদাবাথ।  ৮৮ মিনিটে মতিন মিয়ার শট গ্লাভসবন্দী করেন ওবাইও। ৯০ মিনিটে আরেকটি শট গোলপোস্টের উপর দিয়ে বাইরে পাঠিয়ে দেন তিনি। শেষ পর্যন্ত তিন পয়েন্ট ছেড়ে দিয়ে মাঠ ছাড়ে বসুন্ধরা কিংসরা।

বাংলাদেশ সময়: ২০৫২ ঘণ্টা, অক্টোবর ২২, ২০১৯
এমএইচএম

ক্লিক করুন, আরো পড়ুন :   ফুটবল
        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
db 2019-10-22 21:53:23