ঢাকা, শনিবার, ৫ আশ্বিন ১৪২৬, ২১ সেপ্টেম্বর ২০১৯
bangla news

ব্রাদার্সের শেষদিকের রোমাঞ্চে জয় পেল না মোহামেডান

| বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৯-০৫-২২ ৮:০০:১৯ পিএম
মোহামেডান বনাম ব্রাদার্সের ম্যাচের বল দখলের মুহূর্ত- ছবি: শোয়েব মিথুন

মোহামেডান বনাম ব্রাদার্সের ম্যাচের বল দখলের মুহূর্ত- ছবি: শোয়েব মিথুন

অবিশ্বাস্য এক রূপকথার জন্ম দিল ব্রাদার্স ইউনিয়ন। প্রথমার্ধে মোহামেডানের বিপক্ষে তিন গোলে পিছিয়ে পড়েও দ্বিতীয়ার্ধে দারুণভাবে ঘুরে দাঁড়িয়ে ড্র পেয়েছে নিকোলাস ভিত্রোভিচের শিষ্যরা।

বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামে বুধবার (২২ মে) প্রিমিয়ার লিগের ম্যাচটি শেষ হয় ৩-৩ ব্যবধানে। লিগের প্রথম সাক্ষাতে মোহামেডানকে ১-০ ব্যবধানে হারিয়েছিল ব্রাদার্স। এবার প্রতিশোধ নিতে পূর্ণশক্তির দল নামায় মোহামেডান। এছাড়া গত দুই ম্যাচ জয়ের আত্মবিশ্বাসও ছিল তাদের।

সেই লক্ষ্যে এগিয়ে যায় মোহামেডান। ২৩ মিনিটে সতীর্থ সুলেমান দিয়াবাতের পাস থেকে কোনাকুনি ভল্যিতে ব্রাদার্সের জালে বল জড়িয়ে দেন তকলিস আহেমদ। এরপর দুই মিনিটের ঝড়ে ব্যবধানটা ৩-০ করেন মোহাম্মদ ইউসুফ সিফাত। ৪২ ও ৪৪ মিনিটে জোড়া করেন তিনি।

মোহামেডান ও ব্রাদার্সের ম্যাচের মুহূর্ত-ছবি: শোয়েব মিথুনবিরতির পর ঘুরে দাঁড়াতে চেষ্টা করে ব্রাদার্স। ৬৯ মিনিটে গোলশোধের সুযোগও পেয়ে যায়। প্লেসিং শটে মোহামেডানের জালে বল পাঠান মানাফ রাব্বি। ৮২ মিনিটে ব্যবধানটা আরেকবার ব্যবধান কমান শফিকুল ইসলাম শফি। ৮৮ মিনিটে আবার মঞ্চে হাজির রাব্বি। তার জোড়া গোলের সুবাদে রোমাঞ্চকর ড্র নিয়ে মাঠ ছাড়ে ব্রাদার্স।

অবশ্য চলতি মৌসুমে স্বস্তিতে নেই ব্রাদার্স। ১৪ ম্যাচে ৯ পয়েন্ট নিয়ে তারা আছে তালিকার ১২তম স্থানে। আর ১৫ ম্যাচে ১৩ ‍পয়েন্ট নিয়ে ব্রাদার্সের চেয়ে দুই ধাপ ওপরে মোহামেডান।

বুধবার (১৫ মে) অন্য ম্যাচে ময়মনসিংহের রফিক উদ্দিন ভূঁইয়া স্টেডিয়ামে সাইফ স্পোর্টিং ক্লাবকে ১-১ ব্যবধানে রুখে দিয়েছে আরামবাগ ক্রীড়া সংঘ। ১৫ ম্যাচে ৩০ পয়েন্ট নিয়ে চতুর্থ স্থানে সাইফ। ২০ পয়েন্ট নিয়ে একধাপ নিচে আরামবাগ। 

বাংলাদেশ সময়: ১৯৫৯ ঘন্টা, মে ২২, ২০১৯
ইউবি/এমএমএস

ক্লিক করুন, আরো পড়ুন :   ফুটবল
        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
cache_14 2019-05-22 20:00:19