ঢাকা, শনিবার, ৯ ভাদ্র ১৪২৬, ২৪ আগস্ট ২০১৯
bangla news

মেসিকে নিষিদ্ধের দাবি লিভারপুল সমর্থকদের!

স্পোর্টস ডেস্ক | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৯-০৫-০৪ ৫:০১:৩৬ পিএম
.

.

চ্যাম্পিয়নস লিগের সেমিফাইনালের দ্বিতীয় লেগে লিভারপুলের মাঠ অ্যানফিল্ডে আতিথ্য নেবে বার্সেলোনা। কিন্তু আগামী সপ্তাহে অনুষ্ঠেয় ওই ম্যাচে বার্সা ফরোয়ার্ড লিওনেল মেসিকে নিষিদ্ধের দাবি জানিয়েছে ‘অল রেডস’দের সমর্থকরা। তাদের দাবি, প্রথম লেগের ম্যাচে লিভারপুলের ফ্যাবিনহোকে ঘুষি মেরেও পার পেয়ে গেছেন বার্সা অধিনায়ক।

বুধবার রাতে (০১ মে) চ্যাম্পিয়নস লিগের শেষ চারের প্রথম লেগে মেসির হাতে বিধ্বস্ত হয়েছে লিভারপুল। ক্যাম্প ন্যুয়ে বার্সেলোনা জিতেছে ৩-০ ব্যবধানে। জোড়া গোল করেছেন মেসি। যার মধ্যে ৩০ গজ দূর থেকে নেওয়া চোখ ধাঁধানো ফ্রি-কিক থেকে গোল করে কাতালানদের হয়ে ক্যারিয়ারের ৬০০তম গোলের মাইলফলক স্পর্শ করেন তিনি।

মেসির ওই জাদুকরি ফ্রি-কিক গোল নিয়েই আপত্তি তুলেছে লিভারপুল সমর্থকরা। বল নিয়ে লিভারপুলের ডি-বক্সের দিকে দৌড়ে যাওয়ার সময় ফ্যাবিনহো বাধা দিলে ওই ফ্রি-কিক আদায় করে নেন মেসি নিজেই। পরে ওই অবিশ্বাস্য ফ্রি-কিক, যা দেখে এমনকি প্রতিপক্ষ কোচ ইয়র্গেন ক্লপ নিজেও বিস্মিত হয়ে যান।

.লিভারপুলের সমর্থকদের একটা অংশের দাবি, ফ্রি-কিক আদায় করে নেওয়ার আগে ফ্যাবিনহোর মুখে ঘুষি মারেন পাঁচবারের ব্যালন ডি’অর জয়ী। এজন্য তাকে নিষিদ্ধ করা উচিত বলে মত তাদের। তাই মেসিকে নিষিদ্ধ করতে উয়েফাকে বাধ্য করতে একটি অনলাইন পিটিশন চালু করেছেন তারা।

পিটিশনে এরইমধ্যে ৬ হাজারেরও বেশি সমর্থক সই করেছেন। পিটিশনের টাইটেলে লেখা হয়েছে: ‘ফ্যাবিনহোর মাথায় আঘাত করায় মেসিকে নিষিদ্ধ করা হোক। মূলত ফ্যাবিনহোকে ঘুষি মারার কারণেই ফ্রি-কিক উপহার পেয়ে তা থেকে গোল করেছেন মেসি। উয়েফার এই বিষয়টা দেখা উচিত।’

এর আগে গত মৌসুমে রিয়াল মাদ্রিদের অধিনায়ক সার্জিও রামোসকে নিষিদ্ধের দাবি তুলেছিল লিভারপুল সমর্থকরা। সেবার চ্যাম্পিয়নস লিগের ফাইনাল ম্যাচে তুমুল ফর্মে থাকা লিভারপুলের মিশরীয় ফরোয়ার্ড মোহামেদ সালাহ’কে কড়া ট্যাকল করেন রিয়াল ডিফেন্ডার। ওই ঘটনায় কাঁধের ইনজুরিতে পড়ে কাঁদতে কাঁদতে মাঠ ছাড়েন সালাহ। শিরোপাও যায় রিয়ালের ঘরে।

বাংলাদেশ সময়: ১৭০১ ঘণ্টা, মে ০৪, ২০১৯
এমএইচএম/এমএমএস

        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
cache_14 2019-05-04 17:01:36