ঢাকা, শনিবার, ৮ ভাদ্র ১৪২৬, ২৪ আগস্ট ২০১৯
bangla news

১ ইউরোর ডি জং, বার্সা কিনছে ৯০ মিলিয়ন ইউরোয়!

স্পোর্টস ডেস্ক | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৯-০৪-১৮ ৪:২৩:৪৪ পিএম
ফ্রাঙ্ক ডি জং-ছবি: সংগৃহীত

ফ্রাঙ্ক ডি জং-ছবি: সংগৃহীত

শিরোনাম দেখে অনেকে হয়ত মজা ভেবে নিতে পারেন। কিন্তু এটাই সত্যি। ‘বিস্ময় বালক’ ফ্রাঙ্ক ডি জংকে ঠিক ১ ইউরো দিয়েই কিনেছিল ডাচ চ্যাম্পিয়ন আয়াক্স। ঠিক চার বছর পর তাকেই ৯০ মিলিয়ন ইউরোর বিনিময়ে কিনে নিচ্ছে কাতালান জায়ান্ট বার্সেলোনা। এটাকে বলা হচ্ছে ‘যুগের সেরা লাভজনক সওদা’।

চলতি বছরের ১ জুলাই বার্সেলোনায় পাড়ি জমাচ্ছেন ডি জং। কাতালানদের হয়ে তার চুক্তির মেয়াদ আগামী ২০২৩/২৪ মৌসুম তথা পাঁচ মৌসুম। আয়াক্স তারকাকে দলে নিয়ে বার্সার প্রাথমিক খরচ প্রায় ৯০ মিলিয়ন ইউরো। 

ডাচ জায়ান্টরা ফুটবলার তৈরির কারখানা হিসেবে পরিচিত। কম মূল্যে খেলোয়াড় কিনে তার প্রতিভা বিকশিত করতে সহায়তা করে আবার আকাশ ছোঁয়া মূল্যে বিক্রি করতে উস্তাদ তারা। 

কিন্তু ডি জংয়ের ক্ষেত্রে যা হয়েছে তা রীতিমত ইতিহাস। ২০১৫ সালে উইলেম টু থেকে মাত্র ১ ইউরোয় আয়াক্সে আসেন আমস্টারডামের এই তরুণ। বদলে কয়েকজন খেলোয়াড় পাল্টা হিসেবে ধারে খেলতে যান।

তবে আয়াক্সের সঙ্গে চুক্তিতে একটা শর্ত ছিল। আর তা হলো তাকে বিক্রি করতে হলে আগের ক্লাবকে মোট দামের ১০ শতাংশ পরিশোধ করতে হবে। কিন্তু তবুও চুক্তিতে মূল্যটা ছিল ১ ইউরো।

৩৩০ মিলিয়ন ইউরোর জুভেন্টাসকে দুই লেগেই হারিয়ে সেমিফাইনালে পা রাখা আয়াক্সের মোট বাজেটই ৯২ মিলিয়ন ইউরোর কাছাকাছি। ভাবা যায়?

অল্প বয়সেই ফুটবল বিশ্বকে নিজের প্রতিভায় বুঁদ করে রেখেছেন ডি জং। চ্যাম্পিয়নস লিগের চলতি আসরের নক-আউট পর্বে রিয়াল মাদ্রিদ আর জুভেন্টাসকে বিদায় করার পেছনে আয়াক্সের মিডফিল্ডে তার ভূমিকা ছিল অসাধারণ।

বয়স যাই হোক না কেন, এখনই বার্সেলোনার মতো বিশ্বসেরা ক্লাবের হয়ে খেলার যোগ্যতা হাসিল করে ফেলেছেন ডি জং। আগামী ১ জুনে চ্যাম্পিয়নস লিগের ফাইনাল জিতে শিরোপা উৎসব করেই হয়ত মেসিদের সঙ্গী হতে চান তিনি। 

বাংলাদেশ সময়: ১৬২২ ঘণ্টা, এপ্রিল ১৮, ২০১৯
এমএইচএম

ক্লিক করুন, আরো পড়ুন :   ফুটবল
        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
cache_14 2019-04-18 16:23:44