bangla news

শেষ আটে মেসিদের প্রতিপক্ষ ম্যানইউ

স্পোর্টস ডেস্ক | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৯-০৩-১৫ ৯:২১:০৭ পিএম
চ্যাম্পিয়নস লিগের ড্র-ছবি: সংগৃহীত

চ্যাম্পিয়নস লিগের ড্র-ছবি: সংগৃহীত

চ্যাম্পিয়নস লিগের শেষ আটের ড্র অনুষ্ঠিত হয়েছে। এবারের কোয়ার্টার ফাইনালে প্রতিপক্ষ হিসেবে ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডকে পেয়েছে বার্সেলোনা। এর আগে ২০০৯ ও ২০১১ সালের আসরেও দুই দল মুখোমুখি হয়েছিল, যেখানে লিওনেল মেসির গোলে জয় পেয়েছিল কাতালানরা।

এদিকে ইউরোপীয় প্রতিযোগিতায় প্রথমবারের মতো কোয়ার্টারে মুখোমুখি হচ্ছে দুই ইংলিশ জায়ান্ট ম্যানচেস্টার সিটি ও টটেনহাম হটস্পার। আর ১৬ বছর পর শেষ আটে পা রাখা আয়াক্সের মোকাবেলা করবে ক্রিস্টিয়ানো রোনালদোর জুভেন্টাস। 

শেষ আটের চতুর্থ ইংলিশ ক্লাব লিভারপুল প্রতিপক্ষ হিসেবে পাচ্ছে পর্তুগিজ ক্লাব পোর্তোকে। গতবার এই পোর্তোকে দুই লেগ মিলিয়ে ৫-০ গোলে হারিয়েছিল ‘অলরেড’রা।

সেমিফাইনালে টটেনহাম বা সিটির সঙ্গে দেখা হবে আয়াক্স কিংবা জুভেন্টাসের। আর ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড কিংবা বার্সেলোনার সাক্ষাৎ হবে লিভারপুল কিংবা পোর্তোর সঙ্গে।

এবারের ড্র দেখতে কিছুটা খালি খালি লাগা স্বাভাবিক। কেননা, ২০০৫-০৬ মৌসুমের পর এই প্রথম শেষ আটে পা রাখতে ব্যর্থ হয়েছে টানা তিনবারের চ্যাম্পিয়ন রিয়াল মাদ্রিদ আর জার্মান জায়ান্ট বায়ার্ন মিউনিখ।

এবার নিয়ে টানা ১২বার শেষ আটে জায়গা করে নিয়েছে বার্সেলোনা। শেষ আটে প্রথমে ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডের আতিথ্য নেবে দলটি। 

একসময়ের ইউরোপীয় ফুটবলের পরাশক্তি আয়াক্স, যাদের কাছে হেরে শেষ ষোলো থেকেই বিদায় নিয়েছে বর্তমান চ্যাম্পিয়ন রিয়াল। ১৯৯৬ সালের ফাইনালে ‘তুরিনের বুড়ি’দের কাছে হেরে গিয়েছিল আয়াক্স। সেবার পেনাল্টি শুট আউটে জয়ের মালা গলায় পরেছিল সিরি আ’র চ্যাম্পিয়নরা।

তবে জুভদের হারিয়ে দেওয়ার ইতিহাসও আছে আয়াক্সের। ১৯৭৩ সালে সেসময়ের ইউরোপিয়ান কাপের ফাইনালে ১-০ গোলে জয় পেয়েছিল ডাচ জায়ান্টরা। তবে আয়াক্সের সঙ্গে সর্বশেষ ১০ সাক্ষাতে অপরাজিত জুভেন্টাস।

বাংলাদেশ সময়: ২১২০ ঘণ্টা, মার্চ ১৫, ২০১৯
এমএইচএম

ক্লিক করুন, আরো পড়ুন :   ফুটবল
        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
db 2019-03-15 21:21:07