ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ১৪ আষাঢ় ১৪২৬, ২৭ জুন ২০১৯
bangla news

আফ্রিদি-ডসনের বোলিং তোপে ১২৪ রানে থামলো রাজশাহী

স্পোর্টস ডেস্ক | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৯-০১-১১ ৮:৪৬:৩২ পিএম
দুর্দান্ত বোলিং করেছেন কুমিল্লার বোলাররা-ছবি: শোয়েব মিথুন/বাংলানিউজ

দুর্দান্ত বোলিং করেছেন কুমিল্লার বোলাররা-ছবি: শোয়েব মিথুন/বাংলানিউজ

শহীদ আফ্রিদি ও লিয়াম ডসনের বোলিং তোপে নির্ধারিত ৭ বল বাকি থাকতেই ১২৪ রানে থেমেছে রাজশাহী কিংসের ইনিংস।

শুক্রবার (১১ জানুয়ারি) মিরপুর শের-ই-বাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে বিপিএলের ১০ম ম্যাচে টসে জিতে ফিল্ডিং বেছে নেয় কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্স।

ব্যাটিংয়ে নেমে দলীয় ২০ রানেই ২ উইকেট হারিয়ে বসে রাজশাহী। ৭ বলে মাত্র ৩ রান করে সাইফউদ্দিনের বলে লেগ বিফোরের ফাঁদে পড়ে বিদায় নেন রাজশাহীর ওপেনার মুমিনুল। পরের বলেই সৌম্যকে (০) বোল্ড করেন সাইফ। দ্রুত ২ উইকেট হারিয়ে চাপে পড়ে যাওয়া দলের হাল ধরেন অধিনায়ক মিরাজ ও পাকিস্তানী অলরাউন্ডার হাফিজ। দুজনে মিলে ৩৩ রানের জুটি গড়েন।

দলীয় ৫৩ রানে ডসনের বলে বোল্ড হয়ে ফেরেন হাফিজ (১৬)। পরের ওভারে বিদায় নেন মিরাজও (৩০)। এবার উইকেট শিকারি আফ্রিদি। অধিনায়ক মিরাজকে লেগ বিফোরের ফাঁদে ফেলে বিদায় করেন সাবেক পাকিস্তানী অধিনায়ক। দলের রান ওই ৫৩ থাকতেই আফ্রিদির দ্বিতীয় শিকারে পরিণত হয়ে ফেরেন ইভান্সও (০)। 

স্রোতের বিপরীতে দাঁড়িয়ে মাঝে ২৬ বলে ৩ চারে ২৭ রানের ইনিংস খেলেন জাকির। দলের অস্টম উইকেট হিসেবে জাকির যখন বিদায় নেন দলের রান তখন ৯৩, মাঝে ফজলে মাহমুদ আর কায়েস আহমেদ ক্রিজে টিকতে ব্যর্থ হয়ে উইকেট বিলিয়ে দলের সর্বনাশ ডেকে আনেন।

শেষদিকে ধৈর্যের প্রতিমূর্তি হয়ে দলকে শতরানের গণ্ডি পার করেন লঙ্কান তারকা উদানা। শেষ পর্যন্ত তার ব্যাট থেকে আসে ৩০ বলে ৩২ রান। ৫ চার ও ১ ছক্কা হাঁকানো উদানাকে মেহেদি হাসানের ক্যাচ বানিয়ে ফেরান আবু হায়দার রনি। রাজশাহীর সংগ্রহ দাঁড়ায় ১২৪ রান।

বল হাতে দারুণ সফল আফ্রিদি। ৪ ওভারে মাত্র ১০ রান খরচ করে তুলে নিয়েছেন ৩ উইকেট। ৩ ওভারে ২৫ রান খরচে ২ উইকেট ঝুলিতে পুরেছেন ২ উইকেট। ৪ ওভারে ১৭ রান খরচে ২ উইকেট নিয়েছেন ডসন। আর বাকি ২ উইকেট গেছে আবু হায়দার রনির দখলে।

পয়েন্ট টেবিলে দুই দলই সমান পয়েন্ট নিয়ে অবস্থান করছে। তবে রান রেটে ব্যবধান রয়ে গেছে। আজকের ম্যাচ যে দলই জিতবে সে দলই তৃতীয় স্থানে চলে আসবে। 

কুমিল্লার নতুন অধিনায়ক ও সাবেক অজি দলপতি কনুইয়ের ইনজুরির কারণে সাময়িক বিরতি নিয়ে দেশে ফিরে গেছেন। তার অনুপস্থিতিতে দলের অধিনায়কত্বের ভার পড়েছে ইমরুল কায়েসের কাঁধে। তবে স্মিথের নেতৃত্ব নিশ্চিতভাবেই মিস করবে আগের ম্যাচে মাত্র ৬৩ রানে অলআউট হওয়া কুমিল্লা। তার বদলে দলে সুযোগ পেয়েছেন লিয়াম ডসন। 

অন্যদিকে আগের ম্যাচে খুলনার বিপক্ষে জয় পাওয়ায় কিছুটা স্বস্তি নিয়েই মাঠে নেমেছে রাজশাহী কিংস।

কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্সের একাদশ:
তামিম ইকবাল, এভিন লুইস, ইমরুল কায়েস (অধিনায়ক), শোয়েব মালিক, আনামুল হক (উইকেটরক্ষক), শহীদ আফ্রিদি, লিয়াম ডসন, মোহাম্মদ সাইফউদ্দিন, মেহেদি হাসান, আবু হায়দার রনি, মোহাম্মদ শহীদ।

রাজশাহী কিংসের একাদশ:
মোহাম্মদ হাফিজ, মুমিনুল হক, মেহেদি হাসান মিরাজ (অধিনায়ক), সৌম্য সরকার, লৌরি ইভান্স, জাকির হাসান (উইকেটরক্ষক), ফজলে মাহমুদ, ইসুরু উদানা, কায়েস আহমেদ, আরাফাত সানি, মোস্তাফিজুর রহমান।

বাংলাদেশ সময়: ২০২৫ ঘণ্টা, জানুয়ারি ১১, ২০১৯
এমএইচএম

        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
cache_14 2019-01-11 20:46:32