ঢাকা, সোমবার, ১১ চৈত্র ১৪২৫, ২৫ মার্চ ২০১৯
bangla news

প্রয়োজনে আবারও ওপেন করবেন মিরাজ

স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৮-১০-১৭ ৪:২৯:০৭ পিএম
মেহেদি হাসান মিরাজ-ছবি: বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

মেহেদি হাসান মিরাজ-ছবি: বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

ঢাকা: এশিয়া কাপের গ্রুপ পর্ব থেকে শুরু করে সুপার ফোরে পাকিস্তানের বিপক্ষে অঘোষিত সেমিফাইনাল পর্যন্ত ওপেনিং অর্ডারে ভাল একটি শুরু পায়নি বাংলাদেশ। বাঁহাতের কবজির চোটে তামিম ইকবাল প্রথম ম্যাচেই ছিটকে যাওয়ায় তিন ম্যাচে দুই তরুণ লিটন দাস ও নাজমুল হোসেন শান্ত’র ব্যাট থেকে ওপেনিংয়ে সর্বোচ্চ এসেছে ১৬ রান।

টুর্নামেন্টের মাঝ পথে দেশ থেকে সৌম্য সরকারকে দুবাইয়ে উড়িয়ে নিয়েও লাভ হয়নি। পাকিস্তানের সঙ্গে ওপেনিংয়ে নেমে দলীয় ৫ রানের মাথায় তার ইনিংসের সলিল সমাধি ঘটে।

কিন্তু ভারতের বিপক্ষে ফাইনালের মহারণে সবাইকে চমকে দিয়ে লিটন দাসের সঙ্গে লোয়ার অর্ডার মেহেদি হাসান মিরাজকে ওপেনিংয়ে পাঠালেন টাইগার দলপতি মাশরাফি বিন মুর্তজা। তাতে কাজও হলো বিস্তর। 

দুর্ধর্ষ ব্যাটিংয়ে দলকে পাইয়ে দিলেন ১২০ রানের সংগ্রহ। যদিও পরে যারা এসেছেন তারা মিরাজ-লিটনের রান বন্যার ধারাবাহিকতাটি ধরে রাখতে পারেননি। তবে মাশরাফি কিন্তু তার পরীক্ষায় সফল এবং মিরাজও অধিনায়কের আস্থার প্রতিদান দিয়েছেন। ঠিক একইভাবে আগামীতেও দলের প্রয়োজনে যদি ওপেন করতে হয় তাহলে ‘না’ বলবেন না লাল সবুজের এই অফস্পিনিং অলরাউন্ডার।

‘ফাইনাল ম্যাচ ওপেন করেছি, আমিও ভাবিনি আমি ফাইনালে ওপেন করবো। মাশরাফি ভাই ম্যাচের আগের দিন রাতে বলেছেন, সবাই যারা সিনিয়র আছে সবাই অনেক সাপোর্ট দিয়েছেন। এই জন্য অনেক আত্মবিশ্বাস পেয়েছি। এটা থেকে আমি শিক্ষা নিয়েছি, যে কোনো মুহূর্তে আমাকে দলের প্রয়োজনে যে কোনো জায়গায় নামতে হতে পারে। আমার মানসিকতা থাকবে, যে কোনো সময় এমন কিছু হতে পারে।’

‘আমি সবসময় চ্যালেঞ্জ নিতে পছন্দ করি। কঠিন অবস্থার চ্যালেঞ্জ আমি উপভোগ করি। আর পেছন থেকে যখন টিম ম্যানেজমেন্ট সাপোর্ট দেয়, আমাদের সিনিয়র প্লেয়ায়রা, সবাই যখন ব্যাক আপ করে, তখন নিজের আত্মবিশ্বাসটা অনেক বেড়ে যায়। ফাইনালের আগের রাতে যখন আমাকে বলা হয় ওপেন করতে হবে, তখন মাশরাফি ভাই, রিয়াদ ভাই বললো, “করতে পারবি, সমস্যা নাই”। তখন নিজের প্রতি আত্মবিশ্বাসটা বাড়ল।’

বুধবার (১৭ অক্টোবর) মিরপুর শের-ই-বাংলা স্টেডিয়ামে তিনি একথা বলেন।

বিশ্বকাপ ট্রফি বাংলাদেশে এসেছে, আগামী বিশ্বকাপে আপনার প্রথম বিশ্বকাপ, বাংলাদেশের সম্ভাবনা কেমন? সংবাদ মাধ্যমের করা এমন প্রশ্নে তরুণ মিরাজের জবাব হলো, ‘সবার স্বপ্ন থাকে বিশ্বকাপ খেলার। যদি সুস্থ থাকি, তাহলে সুযোগ পেলে অবশ্যই ভাল খেলার চেষ্টা করব। বিশ্বকাপের মঞ্চে ভাল খেলার স্বপ্ন তো সবার থাকে। অবশ্যই দলের সবাই চাইবে ভাল করতে। সবাই তো ভাল করার জন্যই অনুশীলন করছে। অনেকে খেলবে, অনেকে খেলবে না। সবাই চেষ্টা করছে।’

বাংলাদেশ সময়: ১৬২৪ ঘণ্টা, ১৭ অক্টোবর, ২০১৮
এইচএল/এমএমএস

ক্লিক করুন, আরো পড়ুন :   ক্রিকেট
        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
db