[x]
[x]
ঢাকা, শনিবার, ৫ কার্তিক ১৪২৫, ২০ অক্টোবর ২০১৮
bangla news

টার্গেট ছুঁতে মাত্র ১১ বল লাগল নেপালের!

স্পোর্টস ডেস্ক | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৮-১০-১২ ৫:৫৪:৫৮ পিএম
চীনের ইনিংস গুঁড়িয়ে দেওয়ার নায়ক নেপালের স্পিনার সন্দ্বীপকে ঘিরে সতীর্থদের উল্লাস-ছবি: সংগৃহীত

চীনের ইনিংস গুঁড়িয়ে দেওয়ার নায়ক নেপালের স্পিনার সন্দ্বীপকে ঘিরে সতীর্থদের উল্লাস-ছবি: সংগৃহীত

আইসিসি বিশ্ব টি-টোয়েন্টির এশিয়া অঞ্চলের বাছাইপর্বে অদ্ভুত কিছু স্কোর কার্ড দেখা যাচ্ছে। সর্বশেষ এই তালিকায় যুক্ত হয়েছে নেপাল-চীন ম্যাচ।

মালয়েশিয়ার কুয়ালালামপুরের অনুষ্ঠিত এই ম্যাচে ১৩ ওভারে মাত্র ২৬ রানে অল আউট হয়ে যায় চীন। পরিস্থিতি আরও খারাপ করে দিয়ে সামান্য এই টার্গেট ছুঁতে মাত্র ১১ বল খেলে নেপাল, তাও কোনো উইকেট না হারিয়ে। 

আগামী ২০২০ টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের আঞ্চলিক বাছাইপর্বে এই নিয়ে টানা পাঁচ ম্যাচে পরাজিত হলো চীন। অপরদিকে এই বিশাল জয়সহ টানা পাঁচ জয়ে পয়েন্ট টেবিলে যৌথভাবে শীর্ষ স্থান সংহত হলো নেপালের।

একতরফা এই ম্যাচে টস জিতে ফিল্ডিং বেছে নেয় নেপাল। সিদ্ধান্ত দারুণ কার্যকর প্রতীয়মান হয় যখন দ্বিতীয় ওভারের শেষ বলে প্রথম উইকেট হারায় সাবেক পাক ক্রিকেটার রশিদ খানের শিষ্যরা। 

৬ ওভার শেষে চীনের রান ছিল ১ উইকেটে ২১ রান। আইসিসির সহযোগী দলটির ওপেনার হং জিয়ান ইয়ান একাই করেছেন ১১ রান। কিন্তু পাওয়ার প্লে শেষ হওয়া মাত্র যেন উইকেট পড়ার মিছিল শুরু হলো। 

স্কোর বোর্ডে আর কোনো রান যোগ না হতেই পরের পাঁচ উইকেট হারিয়ে বসে দলটি। ফলে ২১/১ থেকে ৯ ওভার শেষে চীনের স্কোর বোর্ডের চেহারা দাঁড়ায় ২১/৬।  

এরপর মিডল অর্ডার ব্যাটসম্যান দেংঝি মা ৫ রান করলে চীনের রান দাঁড়ায় ২৬-এ। তবে তারপর আবার সেই ব্যাটিং ধস। দলের রান ওই ২৬-এ রেখেই বিদায় নেন বাকি তিন ব্যাটসম্যান।

এই ভয়নক ব্যাটিং ধসের ম্যাচে চীনের সাত ব্যাটসম্যান কোনো রানই করতে পারেন নি। আইপিএলের দল দিল্লী ডেয়ারডেভিলসের স্পিনার সন্দ্বীপ লামিচানে ৪ ওভারে ৪ রান খরচ করে ৩ উইকেট পেয়েছেন। ১৮ বছর বয়সী এই নেপালি স্পিনার এপর্যন্ত পাঁচ ম্যাচ খেলে ২.৫ গড়ে ২০ উইকেট পেয়ে বোলারদের তালিকায় শীর্ষে আছেন।

জবাব দিতে নেমে বিনোদ ভান্ডারি ও প্রদীপ সঙ্গ আইরি কোনো উইকেট পড়তে না দিয়ে জয় তুলে নেন। ভান্ডারি একাই ৩ চার আর ১ ছক্কায় মাত্র ৮ বল খেলে ২৪ রান করে মাত্র ১.৫ ওভারে ম্যাচ শেষ করে দেন।

এই ম্যাচ হেরে যাওয়ায় ২০২০ সালের টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে খেলার আশা কার্যত শেষ হয়ে গেছে চীনের।

প্রসঙ্গত, এক সপ্তাহ আগেই থাইল্যান্ডের কাছে ১০ উইকেটে হেরেছিল চীন। ওই ম্যাচে পুরো ২০ ওভার খেলে সর্বনিম্ন রানের রেকর্ড গড়েছিল দলটি। ৯ উইকেট হারিয়ে তুলেছিল মাত্র ৩৫ রান। সর্বোচ্চ ৮ রান এসেছিল ওয়াং ইয়ার ব্যাট থেকে। সবমিলিয়ে চীনের ইনিংসে চার এসেছিল মাত্র দু’টি। থাইল্যান্ড ২.৪ ওভারে ১০ উইকেটে জয়ের জন্য প্রয়োজনীয় রান তুলে নেয়। 

এর আগে ২০০৮ সালে ২০ ওভার খেলে গায়ানার বিপক্ষে ৬২ রান করেছিল বারমুডা। তাদের রেকর্ড অনেক বড় ব্যবধানেই ভেঙেছে চীন।

বাংলাদেশ সময়: ১৭৫০ ঘণ্টা, অক্টোবর ১২, ২০১৮
এমএইচএম

ক্লিক করুন, আরো পড়ুন :   ক্রিকেট
        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
db