[x]
[x]
ঢাকা, মঙ্গলবার, ৭ কার্তিক ১৪২৫, ২৩ অক্টোবর ২০১৮
bangla news

এক পায়ে ১০ কিলোমিটার দৌড়!

স্পোর্টস ডেস্ক | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৮-১০-১১ ২:৫৭:১২ পিএম
ম্যারাথন শেষে একচোট নেচে নিচ্ছেন জাভেদ-ছবি: সংগৃহীত

ম্যারাথন শেষে একচোট নেচে নিচ্ছেন জাভেদ-ছবি: সংগৃহীত

এক পা নিয়ে ১০ কিলোমিটার দৌড়ে তাক লাগিয়ে দিয়েছেন ভারতের এক তরুণ। তার সঙ্গে দৌড়েছেন আরও তিনজন, যাদের সবাই দুই পায়ের অধিকারী। তাদের সঙ্গে পাল্লা দিয়ে ১০ কিলোমিটার ম্যারাথন শেষ করে আনন্দে একচোট নেচে দেখিয়েছেন তিনি। সেই নাচের ভিডিও এখন সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যমে ঘুরে বেড়াচ্ছে।

তার দৌড় আর নাচের ভিডিও দেখে প্রশংসায় ভরিয়ে দিচ্ছেন নেটিজেনরা। সামান্য অভাব অনেক সময় আত্মবিশ্বাস নাড়িয়ে দেয়। কোনো কাজে অংশ নিতে গেলে ভয়ে আচ্ছন্ন হয়ে যায় অনেকে। তবে এই যুবক সেই ভয়কে জয় করে রীতিমতো চমকে দিয়েছেন। শারীরিক প্রতিবন্ধকতাকে জয় করে দেখিয়ে দিলেন মনের জোরই সব।

ভারতের কেন্দ্রীয় সরকারের স্বচ্ছ ভারত অভিযান নিয়ে প্রচারণার অংশ হিসেবে পুনেতে ওই ম্যারাথনের আয়োজন করা হয়। শুধু ১০ কিলোমিটার নয়, ২১ কিলোমিটার ও ৬ কিলোমিটার ম্যারাথনেরও আয়োজন করেছিলেন আয়োজকেরা। ম্যারাথন শেষে ওই তরুণ যখন নেচে ওঠেন তা দেখে উপস্থিত সবার তাক লেগে যায়। দারুণ শারীরিক ভারসাম্য দেখিয়ে তিনি বহু মানুষের শ্রদ্ধা আদায় করে নিয়েছেন।

ভারতের মহারাষ্ট্রের বুলধানা জেলার ওই তরুণের নাম জাভেদ রমজান চৌধুরী। পেশায় তিনি একজন হুইল চেয়ার বাস্কেটবল খেলোয়াড়। নিজ পেশায় তিনি বেশ সফল। নিজ রাজ্যের হয়ে বাস্কেটবলে প্রতিনিধিত্ব করে বেশ কয়েকবার টুর্নামেন্ট সেরার খেতাব জিতেছেন তিনি। এছাড়া তিনি একজন সাতারু ও অ্যাডভেঞ্চার অ্যাথলেটও।

ম্যারাথন শেষে ২৪ বছর বয়সী জাভেদ ভারতীয় এক সংবাদ মাধ্যমকে বলেন, ‘যেসব কাজ আমি করতে পারব না বলে মানুষ মনে করে আমি সেসব কাজই করি। আমি হার থেকে শিখি। আমি বাইক স্ট্যান্টও করি।’

২০১৫ সালে বাইক দুর্ঘটনায় নিজের পা হারানো জাভেদ তার পরিবারের প্রথম গ্র্যাজুয়েট। খেলাধুলা ছাড়াও তিনি সিভিল সার্ভিসের জন্য প্রস্তুতি নিচ্ছেন।

নাচের ভিডিও দেখুন এখানে- 

বাংলাদেশ সময়: ১৪৪৮ ঘণ্টা, অক্টোবর ১১, ২০১৮
এমএইচএম/এমএমএস

        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
cache