[x]
[x]
ঢাকা, রবিবার, ৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৫, ১৮ নভেম্বর ২০১৮
bangla news

'প্রতিটি ম্যাচই জেতার জন্য নামবো'

স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৮-০৯-১৩ ৬:৫৩:৫২ পিএম
বাংলাদেশ নারী ক্রিকেট দল-ছবি: বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

বাংলাদেশ নারী ক্রিকেট দল-ছবি: বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

ঢাকা: নারী ক্রি‌কেটে দীঘর্দিন একটি আক্ষেপ বয়ে বেড়িয়েছে বাংলাদেশ। সেটি হলো  দলের নিদারুণ প্রয়োজনের সময়ও বাউন্ডারি না আসা। কিন্তু সাম্প্রতিক সময়ে দেখা গেছে টিম টাই‌গ্রেস খোলস ছেড়ে বেরিয়ে এসেছে। ইনিংসের শুরু থেকেই বাইশ গজে বুক চিতিয়ে লড়ছেন ওপেনাররা। যা বড় সংগ্রহে রাখছে দারুণ ভুমিকা।

অক্টোবরের ১ তারিখ থেকে কক্সবাজার শেখ কামাল আন্তর্জাতিক স্টেডিয়ামে গড়াচ্ছে স্বাগতিক বাংলাদেশ ও সফরকারী পাকিস্তান নারী ক্রি‌কেট দলের মধ্যকার টি-টোয়েন্টি সিরিজ। এখানেও বাংলাদেশ সেই একই ম‌ন্ত্রে আগাবে। 

বৃহস্পতিবার (১৩ সেপ্টেম্বর) মিরপুরে সংবাদ মাধ্যমের মুখোমুখি হয়ে সেকথাই জানালেন নারী দ‌লের ইনচার্জ নাজমুল আ‌বেদীন ফা‌হিম। জানিয়েছেন আরও অনেক কিছুই। পাঠকদের উদ্দেশে তা তুলে ধরা হলো।

পাক সিরিজে কেমন সম্ভাবনা দেখছেন?

আমরা যত ম্যাচ খেলব, তত ম্যাচ জিতে যাব; বিষয়টা তা না। এমন ভাবা ঠিক না।  কেননা পাকিস্তান কতোটা শক্তিশালী দল সেটা ওদের ফলাফলই প্রমাণ করে। তবে সাম্প্রতিক সময়ে আমরা ভাল খেলছি। নিয়মিতই ভাল খেলছি, তাই আমরা আমাদের সমান সমান পর্যায়ে রাখছি। সাম্প্রতিক পারফর্মেন্সে আমরা খুশি। আপাতত আমরা প্রতিটি ম্যাচই জেতার জন্য নামবো। যদি ভাল খেলি তাহলে কেন জিতব না?

নারী ক্রিকেট দ‌লের ইনচার্জ নাজমুল আ‌বেদীন ফা‌হিম-ছবি: সংগৃহীতদলের ভালো দিক কোনটা?

আমাদের দলের ভালো দিকটা হচ্ছে বোলিং। বিশেষ করে স্পিনারদের কম্বিনেশন। আমাদের দলে লেগ স্পিনার আছে, রাইট আর্ম অফ স্পিনার আছে। এরা প্রত্যেকেই ভাল বল করে। গত তিন মাসে এরা যথেষ্ট অভিজ্ঞতা অর্জন করেছে। এছাড়া আমাদের পেস বোলাররা উন্নতি করেছে। তো সব মিলিয়ে আমি বলব বোলিংটা আমাদের বড় শক্তি। এছাড়া ব্যাটসম্যানরা কাজ করেছে ব্যাটিং নিয়ে। ব্যাটসম্যানরা ধারাবাহিক তা আমি বলব না। মোটামুটি একটা রান দাড়া করানো যায় এখন। এছাড়া ফিল্ডিংয়ে সম্প্রতি উন্নতি হয়েছে। এছাড়া আরেকটি দিকে উন্নতি হয়েছে, তা হচ্ছে ফিটনেস। রানিং বিটুইন দ্যা উইকেটে আমরা এখন সবল। আগে যেখানে দুই রানের জায়গায় এক রান হতো সেটা এখন আর হবে না। অতিরিক্ত ৫-৭ বা ১০ রান আমরা পাবো ফিটনেস দিয়েই।

দলের পরিকল্পনা কেমন হবে?

আমাদের দলের দুই ওপেনারই হার্ডহিটার। তাদের হিট করার ক্ষমতা খুব ভালো। এটা আমাদের ম্যাচে এগিয়ে নিয়ে যায়। এখনো আমাদের দলের স্ট্রাটেজি একই রকম থাকবে, আমরা চেষ্টা করব শুরু থেকেই আগ্রাসী ক্রিকেট খেলতে। 

এটা করতে না পারলে আমাদের জন্য কঠিন হবে বড় দলের সঙ্গে জেতা। মেয়েরা যেরকম পারফর্ম করে আসছে তাতে আশা করছি যে সামনেও ভালো পারফর্ম করবে। 

অধিনায়ক সালমা খাতুনের পারফর্মেন্স কেমন?

ও বোলিং ওপেন করছে আমরা চার ওভার করে প্রতি ম্যাচেই বল করছে। সে আমাদের ওপেনার বোলার। আবার অধিনায়ক হলে যে ব্যাটিং উপরে করবে এমনটা না, ব্যাটিং ভাল করলেই উপরে উঠে আসবে। ও সম্প্রতি ভালো ব্যাটিং করেছে কিন্তু আমরা ওর পারফরম্যান্স সেভাবে দেখতে পাইনি। আর যেহেতু মিডল অর্ডার ভালো করছে তাই তাকে সাত বা আটে নামানো। দলের পরিকল্পনাই এটা। 

ভেন্যু কক্সবাজার কেন?

আমাদের প্রথম পছন্দ ছিল কক্সবাজারে খেলা। কেননা ওয়েস্ট ইন্ডিজে আমাদের সেই ধরণের পরিবেশে খেলতে হবে। এছাড়া সেখানে হোটেল থেকে মাঠ অনেক কাছে, যাওয়া সহজ। আবহাওয়া তো আমাদের হাতে নেই। তবে আশা করছি সেখানকার গ্রাউন্ড স্টাফদের সহযোগিতা পাব।

বাংলাদেশ সময়: ১৮৪৫ ঘণ্টা, সেপ্টেম্বর ১৩, ২০১৮
এইচএল/এমএইচএম

ক্লিক করুন, আরো পড়ুন :   ক্রিকেট নারী ক্রিকেট দল
        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
cache