[x]
[x]
ঢাকা, শনিবার, ৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৫, ১৭ নভেম্বর ২০১৮
bangla news

এই প্রথম এনসিএলে ফিটনেস টেস্ট

স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৮-০৯-১২ ৮:০২:৩৫ পিএম
ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

ঢাকা: বিগত বছরগুলোতে দেশের ঘরোয়া ক্রিকেটে এমন ঘটনা দেখা যায়নি। পাঠকরা ভাবনায় পড়ে গেলেন? না, ভাবনার কিছু নেই। কেননা ঘটনাটি এদেশের ক্রিকেটের উন্নয়নে বেশ আশাব্যাঞ্জক।

কী সেটা? অক্টোবর থেকে জাতীয় ক্রিকেট লিগ (এনসিএল) দিয়ে শুরু হচ্ছে ২০১৮-১৯ মৌসুমের ঘরোয়া ক্রিকেট। সেই টুর্নামেন্টকে প্রতিদ্বন্দ্বিতাপূর্ণ করে তুলতে ক্রিকেটারদের ফিটনেস পরীক্ষা নিচ্ছে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি)।

অংশগ্রহনকারী ৮ বিভাগের ক্রিকেটার অংশগ্রহনে গেল ৮ সেপ্টেম্বর থেকে এই টেস্ট শুরু হয়েছে যা চলবে ১৬ তারিখ পর্যন্ত।

বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের দেয়া তথ্যানুযায়ী, জাতীয় লিগে অংশগ্রহনকারী ক্রিকেটারদের ফিটনেসের ওপর তারা গুরুত্বারোপ করেছে এবং যাদের নুন্যতম ফিটনেস থাকবে না তারা আসন্ন এই টুর্নামেন্টে অংশ নিতে পারবেন না এবং তারা সিদ্ধান্ত নিয়েছে প্রথম শ্রেণির ক্রিকেটে অংশ নেয়া ৭৮ ক্রিকেটার ফিটনেস নিয়মিত যাচাই বাছাই করতে বছরে তিনটি ফিটনেস ক্যাম্প আয়োজন করা হবে।

এনসিল সামনে রেখে ১৫ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত চলমান প্রথম ফিটনেস ক্যাম্পে যাদের নুন্যতম ফিটনেসও থাকবে না  তাদের পুনরায় বাংলাদেশ ক্রিকেট লিগের (বিসিএল) আগে ফিটনেস পরীক্ষায় অংশ নিতে হবে।

লক্ষ্য একটিই, প্রথম শ্রেণির ক্রিকেটারদের ফিটনেসও জাতীয় দলের ক্রিকেটারদের অনুরূপ হতে হবে।

এক পর্যবেক্ষণে দেখা গেছে দেশের অধিকাংশ ক্রিকেটারই এনসিএলকে ইনজুরির পুনর্বাসনের টুর্নামেন্ট হিসেবে দেখে থাকেন যাতে করে তারা ওই মৌসুমের ঢাকা প্রিমিয়ার লিগের আগেই পুরোপুরি ফিট হয়ে ওঠেন।

বলা বাহুল্য টেস্ট মর্যাদার ১৮ বছর পেরিয়ে গেলেও সাদা পোশাকে বাংলাদেশ জাতীয় ক্রিকেট দলকে ততটা উজ্জ্বল দেখা যায়নি যতটা তারা রঙিন পোশাকে।

বাংলাদেশ সময়: ১৯৫৮ ঘণ্টা, ১২ সেপ্টেম্বর, ২০১৮
এইচএল/এমএমএস

        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
db