[x]
[x]
ঢাকা, শুক্রবার, ৬ আশ্বিন ১৪২৫, ২১ সেপ্টেম্বর ২০১৮
bangla news

অভিষেকেই প্রতিপক্ষ গোলরক্ষকের নাক ভেঙেছেন রোনালদো

স্পোর্টস ডেস্ক | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৮-০৮-২০ ৯:১৪:০২ এএম
রোনালদো-সোরেন্তিনোর সেই সংঘর্ষের মুহূর্ত

রোনালদো-সোরেন্তিনোর সেই সংঘর্ষের মুহূর্ত

ইতালিয়ান সিরি আ'র নতুন মৌসুমে নিজের অভিষেক ম্যাচে গোল না পেলেও খবরের শিরোনাম ঠিকই হয়েছেন ক্রিস্টিয়ানো রোনালদো। তবে তা নেতিবাচক কারণে। অভিষেক ম্যাচের প্রতিপক্ষ চিয়েভোর গোলরক্ষকের নাক ভেঙে আলোচনায় চলে এসেছেন এই পর্তুগিজ তারকা।

চিয়েভো ভেরোনার বিপক্ষে ম্যাচে যখন জুভেন্টাসের ব্যবধান যখন ২-২ গোলের, প্রতিপক্ষের পেনাল্টি বক্সে চিয়েভোর গোলরক্ষক স্তেফানো সোরেন্তিনোর সঙ্গে সংঘর্ষ হয় রোনালদোর। সঙ্গে সঙ্গে মাটিতে লুটিয়ে পড়েন সোরেন্তিনো। মিনিট চারেক প্রাথমিক চিকিৎসা দেওয়ার পরও সুস্থ না হওয়ায় তাকে তুলে নেওয়া হয়। 

মাঠ থেকে তুলে নেওয়ার পর ৩৯ বছর বয়সী গোলরক্ষককে তাৎক্ষনিকভাবে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। রোববার (১৯ আগস্ট) ভাঙা নাক নিয়ে হাসপাতাল ছাড়েন তিনি। হাসপাতাল ছাড়ার সময় তার বাম কাঁধে ব্যান্ডেজ দেখা যায়। 

এই ঘটনার পর নিজের টুইটার একাউন্টে নিজের ছবি পোস্ট করে সোরেন্তিনো মজা করে লিখেছেন, 'সমর্থন, স্নেহ এবং সম্মানপূর্বক বার্তার জন্য আপনাদের ধন্যবাদ। আমরা দারুণ এক গ্রুপ এবং গতকাল প্রায় একটি দারুণ অর্জন পেয়েই গিয়েছিলাম: যখন সিআর সেভেন আমাকে পুরো ধরে ফেলে।'

পরে সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যমে আরেকটি পোস্টে সোরেন্তিনো লিখেছেন, 'আমি ক্রিস্টিয়ানো রোনালদোর কাছ থেকে সমর্থন আর দ্রুত আরোগ্যের বার্তা পেয়েছি। ধন্যবাদ লিজেন্ড।'

তবে সোরেন্তিনোর মতো রোনালদোকে ছেড়ে কথা বলেন নি তার সতীর্থ সারা রুগেরি। রোনালদোকে ধুয়ে দিয়ে তিনি তার সতীর্থকে মাঠে ‘নিদারূণ যন্ত্রণাকাতর’ অবস্থায় ফেলে যাওয়ার অভিযোগ তুলেছেন। 

সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যমে রুগেরি লিখেছেন, 'যদি চ্যাম্পিয়নরা নিজেদের চ্যাম্পিয়ন হিসেবে ভাবতে চায়, তাহলে প্রথমে আগে তাদের মানুষ হতে হবে! আমি দুঃখিত, কিন্তু আমি এই চ্যাম্পিয়নের তারিফ করতে পারছি না।'

'আমি সত্যিকার মানুষের তারিফ করতে পারি, যেমন আমার সতীর্থ যে অজ্ঞান হয়ে মাঠে পড়ে ছিল এবং তোমোভিচ (চিয়েভোর চিকিৎসক) তাকে সাহায্য কররা জন্য সম্ভাব্য সব কিছু চেষ্টা করেছে! ধন্যবাদ তাদের যাদের হৃদয়, মানবতা, মর্যাদা এবং নীতি আছে! লজ্জা তাদের জন্য যারা অপমান করে, সমালোচনা, উদযাপন বা আরও  খারাপ কিছু করে এবং তারপর ছেড়ে চলে যায়।'

রোনালদো এবং জুভেন্টাসের আক্রমণভাগের বেশ কয়েকটি আক্রমণ ঠেকিয়ে দেন সোরেন্তিনো। তবে ফেডেরিকোর শেষ মুহূর্তের গোলে ৩-২ ব্যবধানের পরজয় সঙ্গী হয় তার। রোনালদোর সঙ্গে ওই সংঘর্ষের সময় গোল লাইন প্রযুক্তির কল্যাণে গোল উপহার পায় জুভেন্টাস। তবে কয়েক মিনিট পরেই ভিডিও রেফারির সহায়তায় তা বাতিল হয়ে যায়।

যখন গোলের বাঁশি বাজে পাওলো দিবালা এবং জিওর্জিও চিয়েল্লিনি উদযাপন করা শুরু করেন। কিন্তু ওই সময় আহত সোরেন্তিনোর প্রাথমিক চিকিৎসা চলছিল। তবে ভুল বুঝতে পেরে ক্ষমা চেয়ে নিয়েছেন দিবালা। 'পাওলো আমাকে বার্তা পাঠিয়েছে যে সে পরিস্থিতির গুরুত্ব বুঝতে পারেনি এবং সে এমন এক গোলের জন্য উদাযাপন করছিল, বুঝতেও পারেনি যে সেটি গোল ছিল না।'

বাংলাদেশ সময়: ১৯১২ ঘণ্টা, আগস্ট ২০, ২০১৮
এমএইচএম

ক্লিক করুন, আরো পড়ুন :   ফুটবল
        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa