[x]
[x]
ঢাকা, রবিবার, ৫ ফাল্গুন ১৪২৫, ১৭ ফেব্রুয়ারি ২০১৯
bangla news

বড় জয়েও ছন্দ নেই ব্রাজিলের

| বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১০-০৬-২০ ১২:২৩:৪৩ পিএম

গোল পেলেও ভক্তদের মনের খোড়াক জোগাতে পারছে না ব্রাজিল। লাতিন ফুটবলের ছন্দ ফিরে পায়নি এখনো। এরপরেও লুইস ফ্যাবিয়ানোর জোড়া গোলে আইভরিকোস্টকে ৩-১ এ হারিয়ে বিশ্বকাপের জয়যাত্রা অব্যাহত রেখেছে দুঙ্গার দল।

ঢাকা: গোল পেলেও ভক্তদের মনের খোড়াক জোগাতে পারছে না ব্রাজিল। লাতিন ফুটবলের ছন্দ ফিরে পায়নি এখনো। এরপরেও লুইস ফ্যাবিয়ানোর জোড়া গোলে আইভরিকোস্টকে ৩-১ এ হারিয়ে বিশ্বকাপের জয়যাত্রা অব্যাহত রেখেছে দুঙ্গার দল।

আশা আলো দেখাচ্ছিলো কাকার ছন্দে ফেরা। দুটি গোলের উৎস তিনি। ঝলক দেখার অপেক্ষায় ছিলেন ভক্তরা। অথচ ম্যাচের ৮৬ মিনিটে অখেলোয়াড়ি আচরণের দায়ে দ্বিতীয় হলুদ কার্ড দেখে মাঠ ছাড়েন ব্রাজিলের ‘প্লে মেকার’।

তবে স্ট্রাইকার ফ্যাবিয়ানোর অদম্য হয়ে উঠা স্বস্তি এনে দিয়েছে কোচ দুঙ্গাকে। প্রথম ম্যাচে হতাশা ঝেড়ে ফেলে আইভরিকোস্টের বিপক্ষে নিজের জাত চিনিয়েছেন ‘দ্যা ফিনিশার’। বিশ্বের কোটি কোটি ভক্তদের চোখে প্রশান্তি এঁকে দিয়েছেন দু’পায়ে অসাধারণ দুটি গোল করে।   

অধিনায়ক লুসিও দারুণ ফর্মে আছেন। একাই সামলে নিয়েছেন রক্ষণভাগ। আক্রমণ গড়ে দিতেও তার জুড়ি নেই। যদিও প্রথম ম্যাচের বিস্ময় মাইকনকে স্বরূপে দেখা যায়নি।

শুরুর মিনিটেই দারুণ সুযোগ তৈরি করে ব্রাজিল। রবিনহোর দূরপাল্লার শট ক্রস পিসের সামান্য উপর দিয়ে বেরিয়ে যায়।

আফ্রিকান হাতিদের গুছিয়ে নেওয়ার সুযোগ না দিয়ে ষষ্ঠ মিনিটে রবিনহো ফের ফাটল ধরাণ প্রতিপক্ষের রক্ষণে। শেষমুহূর্তে বলে ছোঁয়া দিতে না পারায় এযাত্রায়ও বেঁচে যায় আইভরিকোস্ট।

মাঝে কিছু সময় পাল্টা-পাল্টি হলেও ২৫ মিনিটে এগিয়ে যায় ব্রাজিল। কাকার বাড়িয়ে দেওয়া বল ছোট বক্সের ওপর থেকে জোরালো শটে নিশানা ভেদ করেন  লুইস ফ্যাবিয়ানো।

পিছিয়ে থাকেনি আফ্রিকান হাতিরা। ৩৯ মিনিটে পরপর দু’বার ঝটিকা আক্রমণে ব্রাজিলের রক্ষণভাগ কাপিয়ে দেয় দিদিয়ের দ্রগবার দল। আক্রমণে ছিলেন অরুনা দিনদানো।

১-০ গোলে এগিয়ে থেকেই বিরতিতে যায় ব্রাজিল। ৪৫ মিনিট পর্যন্ত গোল ব্যবধান বাড়নো সম্ভব না হলেও বেশ কয়েকবারই সাম্বা যাদুতে গ্যালারি মাতিয়েছে পাঁচবারের বিশ্বচ্যাম্পিয়নরা।

দ্বিতীয়ার্ধের পঞ্চম মিনিটেই ফ্যাবিয়ানো চমকে ব্যবধান দ্বিগুণ (২-০) করে ছন্দময় ফুটবলের কারিগররা। একক চেষ্টায় বক্সের ভেতর থেকে বাঁ পায়ের ভলি শটে বল জালে জড়ান।

এর কয়েক মিনিটের মাথায় সুবর্ণ সুযোগ হাত ছাড়া করেন আইভরিকোস্টের দিদিয়ের দ্রগবা। গোল পোস্টের সামান্য দূরে থেকে হেডে বল সীমানার বাইরে পাঠান চেলসি ফরোয়ার্ড।

ফুটবলের জাদুকর পেলের দলের আবারো উৎসব। ৬৩ মিনিটে বাম দিক থেকে কাকার মাইনাস বল, গোলে প্লেস করেন এলানো। ৩-০’তে এগিয়ে যায় ফুটবলের চারণভূমি। টুর্নামেন্টে এলানোর এটি দ্বিতীয় গোল।

৭৯ মিনিট আইভরিকোস্টের। পাল্টা আক্রমণ থেকে ব্যবধান ৩-১ এ কমিয়ে আনেন দ্রগবা। বাঁ প্রান্ত থেকে ক্রস বলে পেয়ে হেডে গন্তব্য খুঁজে নেন চেলসি তারকা। বোকা বনে যান অভিজ্ঞ গোলরক্ষক হুলিও সিজর।

খেলা শেষের পথে। জয়ের উৎসবের প্রস্তুতি নিচ্ছে ব্রাজিলি শিবির। শেষবাঁশি বাজার কয়েক মিনিট বাকি এমন সময়েই ঘটে আপত্তিকর ঘটনা। ইয়াইয়া তোরেকে অযথাই কনুই দিয়ে ধাক্কা দেওয়ায় দ্বিতীয় হলুদ কার্ড দেখেন কাকা। অভিজ্ঞ খেলোয়াড়ের এবাবে অধৈর্য্য হওয়ায় দুঙ্গার বিরক্তি প্রকাশ ছাড়া কিছুই করার ছিলো না।   

বাংলাদেশ স্থানীয় সময়: ০৩১১ ঘ. ২১ জুন, ২০১০
এসএ

        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
cache_14