ঢাকা, রবিবার, ২৮ আষাঢ় ১৪২৭, ১২ জুলাই ২০২০, ২০ জিলকদ ১৪৪১

খেলা

অল্পতেই খুশি ল!

স্পোর্টস করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১১-২৩-০৭ ০৮:৩২:২১ পিএম
অল্পতেই খুশি ল!

ঢাকা: দায়িত্ব নেওয়ার পর জাতীয় দলের সঙ্গে স্টুয়ার্ট ল’র সময় কেটেছে চার দিন। একদিন বৃষ্টিতে ধুয়ে গেছে।

দুইদিন হয়েছে প্রস্তুতি ম্যাচ। প্রথমদিন ফিল্ডিং সেশন। এত অল্প সময়ে একটি দলের আদ্যপ্রান্ত জেনে নেওয়া সম্ভব নয়। তবে ক্রিকেট ভাষাজ্ঞান দিয়ে খেলোয়াড়দের মেপে নেওয়া যায়। নতুন কোচ ল তাই করেছেন। জিপি-বিসিবি একাডেমি দলের বিপক্ষে জাতীয় দলের প্রস্তুতি ম্যাচের মধ্যদিয়ে বাংলাদেশের ক্রিকেট দেখে নিয়েছেন।

অল্প সময় হলেও জাতীয় দলের খেলা দেখে মুগ্ধ প্রধান কোচ। বলেছেন,“প্রস্তুতি ম্যাচ, ইনডোর সেশন এবং এক সকালের অনুশীলন পরখ করে ছেলেদের ভালোই দেখে নিয়েছি। যা দেখেছি তাতে আমি সন্তুষ্ট। আমি এবং জেসন তাদের মধ্যে প্রতিভার সন্ধান পেয়েছি। ”

দায়িত্ব নেওয়ার পর থেকে এখন পর্যন্ত নেতিবাচক কোন কিছু বলেননি প্রধান কোচ। প্রস্তুতি ম্যাচে একাডেমির কাছে জাতীয় দলের ৭০ ওভারে অল-আউট হয়ে যাওয়াকে বাকা চোখে দেখছেন না। উল্টো জেমি সিডন্সের মতো বলেছেন,“এটা প্রস্তুতি ম্যাচ ছিলো। যদি টেস্ট ম্যাচে ৭০ ওভারে অল-আউট হয়ে যায় তবে বিপদে হবে। বৈরি আবহাওয়ায় আমাদেরকে প্র্যাকটিস ম্যাচটি খেলতে হয়েছে। জিম্বাবুয়ের আবহাওয়া ভালো আশা করি এই সমস্যা সেখানে হবে না। ”

দুই দিনের প্রস্তুতি ম্যাচে একাডেমির বিপক্ষে ৪০ রানে জয় পেয়েছে জাতীয় দলে। আগে ব্যাট করে বেঁধে দেওয়া ৯০ ওভারে ২৫৮ রান তোলে তারা। যদিও অধিনায়ক সাকিব আল হাসান এবং সহ-অধিনায়ক তামিম ইকবালকে ছাড়াই খেলেছে জাতীয় দল। দলের মূল দুই ক্রিকেটারকে ছাড়াই একাডেমিকে অল-আউট করেছে ২১৮ রানে।

প্রস্তুতি ম্যাচ থেকে অনেক ইতিবাচক দিক খুঁজে পেয়েছেন নতুন কোচ। তার দৃষ্টিতে,“অনেক ইতিবাচক পয়েন্ট পেয়েছি। সত্যি বলতে খুব বেশি নেতিবাচক কিছু দেখা যায়নি। তাদের খেলাটা আমি উপভোগ করেছি। বাংলাদেশ একটি পরিপক্ষ দল। যাদের ভালো খেলার সামর্থ্য আছে এবং টেকনিকও ভালো। আমি খুবই খুশি। ”

উদ্বোধনী ব্যাটসম্যান শাহারিয়ার নাফিস ৭২ রানের ইনিংসটি আত্মবিশ্বাস যোগাচ্ছে কোচের জন্য। বাঁহাতি এই ব্যাটসম্যানের খেলা টিভিতে আগেও দেখেছেন বলে জানান কোচ। মাশরাফি বিন মুর্তজা এবং সাহাদাত হোসেনের অনুপস্থিতিতেও জাতীয় দলের বোলারদের পারফরমেন্সে সন্তুষ্ট স্টুয়ার্ট ল। তার মতে,“বোলিং বিভাগের জন্য খুবই গুরুত্বপূর্ণ যে টেস্ট ম্যাচ জিততে হলে ২০টি উইকেট নিতে হবে। কত রান করেছ সেটা কোন বিষয় নয়। পেস বোলিং নিয়ে আমি খুশি। ”

আপাতত জাতীয় দলের অনুশীলন শেষ। ২৭ জুলাই দেশ ছাড়ার আগের দিন ঐচ্ছিক অনুশীলন রাখা হয়েছে। ইচ্ছে হলে মিরপুরে আসবেন চাইলে নাও আসতে পারেন।

বাংলাদেশ সময়: ২০১৫ ঘণ্টা, জুলাই ২৩, ২০১১

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa